শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ৩ এপ্রিল, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ৩ এপ্রিল, ২০২০ ০২:১০

সংসদ অধিবেশনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত ১২ এপ্রিলের পর

-স্পিকার

নিজস্ব প্রতিবেদক

সংসদ অধিবেশনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত ১২ এপ্রিলের পর

করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে জাতীয় সংসদের এপ্রিলে অনুষ্ঠেয় অধিবেশনের ক্ষেত্রে অনিশ্চয়তা সৃষ্টি হয়েছে। এ বিষয়ে সংসদ সচিবালয় এখনো কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি। তবে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, সংসদের পরবর্তী অধিবেশনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত ১২ এপ্রিলের পর। সংসদের শেষ অধিবেশন (ষষ্ঠ অধিবেশন) সম্পন্ন হয়েছিল ১৮ ফেব্রুয়ারি। সে হিসেবে ৬০ দিনের মধ্যে সংসদের অধিবেশন বসার সাংবিধানিক  বাধ্যবাধকতা অনুযায়ী ১৮ এপ্রিলের মধ্যে অধিবেশন বসতে হবে। এর আগে করোনাভাইরাসে সৃষ্ট পরিস্থিতির কারণে মুজিববর্ষ উপলক্ষে ২২ ও ২৩ মার্চ আহূত সংসদের বিশেষ অধিবেশন স্থগিত করা হয়। তবে বিশেষ অধিবেশন আহ্বান করার পর তা স্থগিতের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছিল। রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ তাঁর সাংবিধানিক ক্ষমতাবলে তা স্থগিত করেন।

এ বিষয়ে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, ৬০ দিনের মধ্যে জাতীয় সংসদের অধিবেশন বসার সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা রয়েছে। সংসদের অধিবেশন আহ্বান করেন রাষ্ট্রপতি। এ বাধ্যবাধকতা এড়িয়ে যাওয়ার মতো কোনো নির্দেশনা সংবিধানে নেই। রাষ্ট্রপতি সংবিধানের বাইরে যাবেন কী করে? এপ্রিলে সংসদের পরবর্তী অধিবেশন কবে বসবে, এ নিয়ে আমরা ভাবছি। করোনাভাইরাসের কারণে সাধারণ ছুটির মেয়াদ ৯ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। পরবর্তী ১০ ও ১১ এপ্রিল সাপ্তাহিক ছুটিও এর সঙ্গে যুক্ত থাকবে। এই সময়ে পরিস্থিতি বিবেচনা করে এ বিষয়ে ১২ এপ্রিলের পর সিদ্ধান্ত নিতে পারব বলে আশা করি।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর