শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ১৩ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১২ জানুয়ারি, ২০২১ ২৩:২৪

বিএনপি প্রার্থীদের টার্গেট নারী ও তরুণ ভোটার

ওয়ার্ড পর্যায়ে সমন্বিত প্রচারণা

মুহাম্মদ সেলিম, চট্টগ্রাম

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) নির্বাচনে ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে চলছে বিএনপি মনোনীত মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের সমন্বিত প্রচারণা। দলীয় প্রার্থীদের বিজয় নিশ্চিত করতে মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীরা নেমেছেন অভিন্ন প্রচারণায়। বিশেষ করে নারী ও তরুণ ভোটারদের ফোকাস করেই বিএনপি সাজিয়েছে চসিক নির্বাচনের রণকৌশল। সমন্বিত প্রচারণার বিষয়ে বিএনপির মেয়র প্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেন বলেন, ‘চসিক নির্বাচনে ওয়ার্ড পর্যায়ে বিএনপির কোনো বিদ্রোহী প্রার্থী নেই। নিজেদের মধ্যে কোনো দ্বন্দ্বও নেই। তাই প্রতিটি ওয়ার্ডে মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীরা যৌথ প্রচারণা চালাচ্ছেন।’ তিনি বলেন, ‘নির্বাচনে ডিজিটাল প্রচারণায় গুরুত্ব দিচ্ছে বিএনপি। গণসংযোগের পাশাপাশি সমানতালে চলছে ডিজিটাল প্রচারণাও। নিজেদের পেজ থেকে গণসংযোগের লাইভ করা হচ্ছে নিয়মিত।’ জানা যায়, চসিক নির্বাচনের ১৯ লাখ ৩৮ হাজার ৭০৬ জন ভোটারের প্রায় ৭০ শতাংশই হচ্ছে নারী ও তরুণ। তার মধ্যে আবার ৮৫ হাজার এবার নতুন করে ভোটার হয়েছেন। তাই নির্বাচনী প্রচারণায় নারী ও তরুণদের টার্গেট করে রণকৌশল সাজানো হয়েছে বিএনপির। অভিন্ন কৌশল নির্ধারণ করেই ৪০ সাধারণ ওয়ার্ড (এক ওয়ার্ডে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আওয়ামী লীগ প্রার্থী বিজয়ী) এবং ১৪ সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে বিএনপি সমর্থিত মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীরা চালাচ্ছেন যৌথ প্রচারণা। নারী ভোটারদের ভোট নিজেদের পক্ষে টানতে তৈরি করা হয়েছে নারী স্কোয়াড। তারা ভোটারদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে বিএনপির মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের জন্য ভোট চাইবেন। নতুন ও তরুণ ভোটারদের আকৃষ্ট করতে নেওয়া হচ্ছে তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তা। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নির্বাচনী প্রচারণার পাশাপাশি তৈরি করা হয়েছে ডিজিটাল ব্যানার ফেস্টুন। একই সঙ্গে করোনা প্রাদুর্ভাবকালে মেয়র প্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেনের কর্মকান্ড নিয়ে তৈরি করা হয়েছে শর্টফিল্ম। ৩৬ নম্বর গোসাইডাঙা ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো. হারুন (ডক) বলেন, ‘ওয়ার্ডে বিএনপির কোনো বিদ্রোহী প্রার্থী নেই। তাই মেয়র ও কাউন্সিলর পদে যৌথভাবে ভোট চাওয়া হচ্ছে।’


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর