রবিবার, ৪ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ টা

অফিস পাড়ায় ঘুরে বেড়াচ্ছে বানর

বিশ্বনাথ (সিলেট) প্রতিনিধি

অফিস পাড়ায় ঘুরে বেড়াচ্ছে বানর

ক্রমেই ছোট হয়ে আসছে বন-জঙ্গল। প্রকট হচ্ছে খাদ্য সংকট। এ অবস্থায় লোকালয়ে ছুটে আসছে স্তন্যপায়ী প্রাণী বানর। টিকে থাকার লড়াইয়ে মানুষের সঙ্গে নিজেদের খাপ খাইয়ে নিচ্ছে তারা। ছোট ছোট দলে বিভক্ত হয়ে বিভিন্ন বাসা-বাড়ির ছাদ ও অফিস পাড়ার কার্নিসে খুঁজে নিচ্ছে আশ্রয়। তেমনি কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর খামারবাড়ি সিলেটের উপ-পরিচালকের কার্যালয় ভবনে বসতি গেড়েছে একদল বানর। আশপাশের গাছ-গাছালি থেকে ফলমূল ও অফিস স্টাফদের দেওয়া খাবারে স্বাচ্ছন্দ্যে দিন কাটাচ্ছে বানররা। এ অফিস পাড়া যেন হয়ে উঠেছে তাদের নিরাপদ আবাসন। সরেজমিন সিলেট শহরের ধোপাদিঘিরপাড়স্থ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালকের কার্যালয়ে গিয়ে দেখা যায়, নতুন ভবনের তৃতীয় তলার কার্নিসে কিছু দূর পরপর বসে আছে একাধিক বানর। কোথাও একত্রে বসেছে দু’টি। কারও পাশে আছে বাচ্চাও। আগন্তুকের উপস্থিতিতে বিচলিত নয় কেউ। স্বাভাবিক ভাবেই খুনসুটিতে ব্যস্ত ওরা। এটি যেন তাদের অভয়াশ্রম। অফিস সূত্র জানায়, বহু আগ থেকে উপ-পরিচালকের কার্যালয় ভবনে নিরাপদ আবাসন গড়ে ৮০-৯০ সদস্যের একদল বানর। দিনের বেলা দল বেঁধে চষে বেড়ায় নতুন-পুরাতন ভবনসহ পুরো এলাকা। কখনো প্রতি কার্নিসে সারিবদ্ধ ভাবে বসে নেয় বিশ্রাম। মাঝে মধ্যে বিভিন্ন অফিস রুমে ঢুকে দখলে নেয় কর্তার চেয়ারও। এলোমেলো করে রাখে টেবিলের কাগজাদি। রাত্রি যাপনে তাদের পছন্দ পুুরনো অফিস ভবন।

 সন্ধ্যার সঙ্গে সঙ্গে ওই ভবনে জড়ো হয় সবাই। যার যার মতো ঘুমিয়ে পড়ে নিঃশব্দে। পরদিন ভোর থেকেই শুরু লাফালাফি। এগাছ থেকে ওগাছে, এ ভবন থেকে ও ভবনে। মধ্যখানে একটু জিরিয়ে দিনভর ফের ছুটাছুটি। কখনো হেঁটে বেড়ায় আপন মনে। 

এ বিষয়ে কথা হলে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর সিলেট অঞ্চলের অতিরিক্ত পরিচালক দিলীপ কুমার অধিকারী ‘বাংলাদেশ প্রতিদিন’কে বলেন, আমি এসে ওদের দেখেছি। শুনেছি বানররা বহু আগ থেকে এখানে আছে। মাঝে মধ্যে আমাদের বিরক্ত করে। ভিতরে প্রবেশ করে নিয়ে যায় খাবার। কেটে দেয় টেলিফোনের তারও। এতে তেমন সমস্যা হয় না। খাদ্যের অভাবে তারা এসেছে। এ প্রাণী পরিবেশের অবিচ্ছেদ্য অংশ। তাই আমরা তাদের নিরাপদ বিচরণ নিশ্চিত করেছি। 

এই বিভাগের আরও খবর