শিরোনাম
রবিবার, ২৮ জানুয়ারি, ২০২৪ ০০:০০ টা

জেসিআই কার্নিভাল রঙিন করল টগি ফান ওয়ার্ল্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক

জেসিআই কার্নিভাল রঙিন করল টগি ফান ওয়ার্ল্ড

জমকালো আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল সামাজিক ও অর্থনৈতিক কার্যক্রমে তরুণদের যুক্ত করা আন্তর্জাতিক প্ল্যাটফরম জুনিয়র চেম্বার ইন্টারন্যাশনাল (জেসিআই) বাংলাদেশের বার্ষিক আয়োজন- ‘জেসিআই কার্নিভাল’। গতকাল ঢাকার মাদানী এভিনিউর গ্রিনভিল আউটডোরসে দিনভর আয়োজনে ভিন্ন মাত্রা যোগ করে টগি ফান ওয়ার্ল্ডের অংশগ্রহণ। শুধু স্পন্সর পাটনার্শিপই নয়, পিএস-৪, মিনি গলফের মতো গেমগুলো নিয়ে জেসিআই কার্নিভালের অন্যতম আকর্ষণ ছিল টগি ফান ওয়ার্ল্ডের প্যাভিলিয়ন।

জেসিআই কার্নিভালের পৃষ্ঠপোষক হিসেবে ছিল দক্ষিণ এশিয়ার বৃহত্তম ভিআর থিম পার্ক টগি ফান ওয়ার্ল্ড। কার্নিভালে ঐতিহ্যবাহী মেজবান, বিভিন্ন রাইড, গেমস, পাপেট শো, নানা ধরনের খাবার, ফ্যাশন শো, কনসার্টসহ বিভিন্ন বিনোদনমূলক অনুষ্ঠান ছিল। এ ছাড়া ছিল চিকিৎসা, রিয়েল স্টেট, অটোমোবাইল, খাদ্যপণ্য, রেস্তোরাঁসহ বিভিন্ন পণ্যের ৪০টির মতো স্টল। সকাল থেকেই শিশু ও পরিবারসহ কার্নিভালে যোগ দেন জেসিআই সদস্যরা। গেট থেকে ঢুকেই চোখে পড়ে টগি ফান ওয়ার্ল্ডের গেমিং প্যাভিলিয়ন। সেখানে তরুণ প্রজন্ম মেতে ওঠে পিএস-ফোর ভিআর গেম নিয়ে। তরুণদের পাশাপাশি অভিভাবকরাও মিনি গলফের অভিজ্ঞতা নেন টগি ফান ওয়ার্ল্ডের প্যাভিলিয়ন থেকে। টগি ফান ওয়ার্ল্ডের ব্যানার ব্যাকড্রপের সামনে সেলফি তুলতে দেখা যায় জেসিআই কার্নিভালে অংশ নেওয়া নবীন সদস্যদের। রাত ১১টা পর্যন্ত পরিবারসহ আনন্দ উৎসবে মেতে থাকে জেসিআই সদস্যরা।

সকালের পর্বে পাপেট শোর পাশাপাশি আউটডোর গেমের মাধ্যমে শিশুদের বৃক্ষরোপণ ও পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রমে আগ্রহী করার প্রচেষ্টা আয়োজনে ভিন্নতা এনে দেয়। নারী-পুরুষদের জন্য ছিল বালিশ নিক্ষেপসহ নানা খেলার আয়োজন।

আয়োজকদের পক্ষ থেকে জানানো হয়, কার্নিভালের মাধ্যমে জেসিআই বাংলাদেশ তরুণদের মধ্যে উদ্যোক্তা ও সমাজসেবক তৈরিতে উদ্বুদ্ধ করতে চায়। এ ছাড়াও এই কার্নিভাল ঢাকাবাসীর জন্য একটি আনন্দদায়ক ও শিক্ষামূলক পরিবেশ তৈরি করেছে।

জেসিআই বাংলাদেশের ন্যাশনাল প্রেসিডেন্ট ইমরান কাদির বলেন, জেসিআই কার্নিভালে পার্টনার হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে টগি ফান ওয়ার্ল্ড। বিনোদনের পাশাপাশি মানসিক বিকাশের কেন্দ্র হিসেবে আমাদের পরিবারগুলোর আবেগের জায়গা টগি ফান ওয়ার্ল্ড। তাদেরকে পাশে পেয়ে আমরা আনন্দিত। তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক সামাজিক সংগঠন হিসেবে ১৮ থেকে ৪০ বছর বয়সী নাগরিকদের নিয়ে জেসিআইয়ের ৪০টি চ্যাপ্টারে চার হাজারের বেশি তরুণ যুক্ত আছেন সামাজিক কর্মকান্ডে। যাদের অনেকেই ভবিষ্যতে উদ্যোক্তা হিসেবে তৈরি করছেন নিজেদেরকে।

টগি ফান ওয়ার্ল্ড কর্তৃপক্ষ জানায়, বাংলাদেশের তরুণদের সামাজিক কার্যক্রমসহ উদ্যোক্তা গড়তে উৎসাহ প্রদান করছে এই আন্তর্জাতিক সংগঠন। জেসিআই কার্নিভালে অংশগ্রহণের মাধ্যমে তরুণদের সামাজিক কার্যক্রমে উৎসাহ প্রদানের পাশাপাশি জেসিআই সদস্যদের গেমিংয়ে নতুন অভিজ্ঞতা দিয়েছে টগি ফান ওয়ার্ল্ড। রাজধানীর বসুন্ধরা সিটির লেভেল ৮ থেকে ১৮ পর্যন্ত বিস্তৃত টগি ফান ওয়ার্ল্ডে রয়েছে লেজার ট্যাগ, পেইন্ট বল, ভার্চুয়াল রিয়ালিটি ও অগমেন্টেড রিয়ালিটি গেম এবং রোলার কোস্টারের মতো রোমাঞ্চকর সব আয়োজন। রুদ্ধশ্বাস অভিজ্ঞতা আনতে ১৭৬টিরও বেশি রাইড ও গেম রয়েছে এই থিম পার্কে। এখানে পুরো পরিবার একসঙ্গে মেতে উঠতে পারে জীবনের আনন্দে। জেসিআই বাংলাদেশের মতো সামাজিক সংগঠনের পাশে থাকতে পেরে আমরাও আনন্দিত।

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর