Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ৯ ডিসেম্বর, ২০১৮ ২৩:৫৫

ঐক্যফ্রন্টের মনোনয়নে বিএনপি নাখোশ

বরিশাল-৪ আসন

রাহাত খান, বরিশাল

ঐক্যফ্রন্টের মনোনয়নে বিএনপি নাখোশ

২০০৮ সালের ২৮ ডিসেম্বর সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে জাতীয় নির্বাচনে বিএনপি-জামায়াত জোট সারা দেশে যে ২৯টি আসন পেয়েছিল তার মধ্যে অন্যতম বরিশাল-৪ (হিজলা-মেহেন্দিগঞ্জ)। এ আসনে নির্বাচিত হয়েছিলেন জেলা (উত্তর) বিএনপির সভাপতি মেজবাউদ্দিন ফরহাদ। ওই নির্বাচনে আওয়ামী লীগের হেভিওয়েট প্রার্থী মো. মইদুল ইসলামকে ৪ হাজার ৩৭২ ভোটে হারিয়ে ৯২ হাজার ৫৫৬ ভোট পেয়ে এমপি নির্বাচিত হওয়ায় মেজবাকে ‘ঝড়ের আমলের এমপি’ বলা হয়। অথচ বরিশাল-৪ আসনে সেই মেজবাকে এবার দেওয়া হয়নি বিএনপি তথা জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের মনোনয়ন। ওই আসনে এবার নাগরিক ঐক্যের কোটায় ঐক্যফ্রন্টের মনোনয়ন পেয়েছেন এক সময়ের বিএনপির রাজনীতিক জে এম নুরুর রহমান জাহাঙ্গীর। দলে সক্রিয় বিগত দিনের আন্দোলন সংগ্রামের অগ্রসৈনিক নেতা-কর্মীবান্ধব মেজবা মনোনয়ন না পাওয়ায় রক্তক্ষরণ চলছে বরিশাল-৪ আসনের বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীদের হৃদয়ে। জোটের কারণে জনপ্রিয় মেজবাকে বাদ দিয়ে নুরুর রহমানকে ঐক্যফ্রন্টের মনোনয়ন দেওয়ায় বিএনপি নেতা-কর্মীরা বিস্মিত এবং হতবাক। বলা চলে শোকে স্তব্ধ বরিশাল-৪ আসনের বিএনপি নেতা-কর্মীরা। হিজলা উপজেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক নুরুল আলম রাজু বলেন, জেলা (উত্তর) বিএনপির সভাপতি মেজবাউদ্দিন ফরহাদ বহু বছর ধরে দলীয় নেতা-কর্মীদের আগলে রেখেছেন। মামলা-হামলায় জর্জরিত নেতা-কর্মীদের আইনি এবং আর্থিক সহায়তা দিয়েছেন। প্রত্যন্ত চরাঞ্চলে গিয়ে সংগঠন শক্তিশালী করেছেন। তার মতো নেতাকে বাদ দিয়ে নাগরিক ঐক্যের মনোনয়ন পাওয়ার পরও তিনি (নুরুর রহমান) বিএনপি বা সহযোগী সংগঠনের কারোর সঙ্গে যোগাযোগ পর্যন্ত করেননি। মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আসাদুজ্জামান মুক্তা বলেন, বরিশাল-৪ আসনে যাকে ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী দেওয়া হয়েছে তিনি এখন পর্যন্ত স্থানীয় বিএনপির কারোর সঙ্গে যোগাযোগ করেননি।


আপনার মন্তব্য