Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ১০ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৯ মার্চ, ২০১৯ ২২:৫৫

খাল দখল করে অট্টালিকা ব্যাহত চাষাবাদ

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি

খাল দখল করে অট্টালিকা ব্যাহত চাষাবাদ
খাল দখল করে বাড়ি -বাংলাদেশ প্রতিদিন

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় অবৈধভাবে দখল করা হচ্ছে নদ-নদী, খাল, বিল, জলাশয়। এ অবস্থায় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসকে (রাজস্ব) নির্দেশে গত ১৪ ফেব্রুয়ারি উপজেলা ভূমি অফিস ১২১ দখলবাজের তালিকা তৈরি করেন। তালিকার ৮ নম্বরে আছে পানিশ্বর ইউনিয়নের শাখাইতি গ্রামের নূরুল ইসলাম প্রকাশ নূরু মিয়ার নাম। তিনি শাখাইতি মৌজার ৭১৫ দাগে সরকারি খালের উল্লেখযোগ্য পরিমাণ ভরাট করে নির্মাণ করেছে বহুতল অট্টালিকা। ফলে খালের পানি নিষ্কাশন বিঘিœত হওয়া ও জলাবদ্ধতার কারণে এলাকার শত শত কৃষকের ফসল উৎপাদন ব্যাহত হচ্ছে। নূরুল ইসলামকে স্থানীয় ভূমি কর্মকর্তা গত ১৬ জানুয়ারি নোটিশ পাঠিয়ে তিন দিনের মধ্যে খালটি দখলমুক্ত করতে বললেও তিনি তার করেননি। সরকারি খাল দখল করেননি বলে দাবি নূরুল ইসলামের। পানিশ্বর ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, ১৬ জানুয়ারি খালের অবৈধ দখলদার নূরুল ইসলাম নূরুকে খালটি পানি নিষ্কাশনের জন্য উম্মুক্ত করে দেওয়ার চূড়ান্ত নোটিস দিলেও তিনি আমলে নেননি। পরে বিষয়টি সহকারী কমিশনারকে (ভূমি) জানালে ৭ ফেব্রুয়ারি কানুনগোর মাধ্যমে খালটি মাপঝোক করা হয়। রিপোর্ট এখনো পাইনি। সহকারী কমিশনার (ভূমি)’র অতিরিক্ত দায়িত্বে থাকা সরাইল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এএসএম মোসা বলেন, ‘মাপে খাল দখলের প্রমাণ মিলেছে। তার বিরুদ্ধে উচ্ছেদের মামলা প্রক্রিয়াধীন। অভিযুক্ত নূরুল ইসলাম নূরু মিয়া বলেন, ‘ভূমি অফিসের কানুনগো, নায়েব, সরাইল থানার ওসিসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে খালটি মাপঝোক করে অস্থায়ী খুঁটি দেওয়া হয়েছে। যাতে আমার দখলে সরকারি খালের কোনো অংশ নেই’।


আপনার মন্তব্য