Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper

শিরোনাম
প্রকাশ : ৯ নভেম্বর, ২০১৯ ১৭:০৭

ঘূর্ণিঝড় বুলবুল : সাতক্ষীরায় খোলা হয়েছে ২৭০টি আশ্রয় কেন্দ্র

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি

ঘূর্ণিঝড় বুলবুল : সাতক্ষীরায় খোলা হয়েছে ২৭০টি আশ্রয় কেন্দ্র
ফাইল ছবি

বঙ্গপোসাগরের সৃষ্ট ঘূর্নিঝড় বুলবুল ১৩০ কিলোমিটার থেকে ১৫০ কিলোমিটার গতিবেগে সাতক্ষীরার সুন্দরবন সংলগ্ন উপকূলের দিকে ধেয়ে আসছে। স্থানীয় আবওহাওয়া অধিদপ্তরের দেওয়া তথ্যমতে শনিবার রাত ৮টা অথবা তার আগে আঘাত আনতে পারে। 

ঘূর্ণিঝড় বুলবুল এই মুহুর্তে সাতক্ষীরার সুন্দরবন সংলগ্ন শ্যামনগর থেকে দক্ষিন পশ্চিমাঞ্চলে ২০০ কিলোমিটার দূরে অবস্থান করছে।  বুলবুল মোকাবেলায় সাতক্ষীরায় জেলা প্রশাসন ব্যাপক উদ্যোগ গ্রহন করেছে। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ২৭০টি আশ্রয় শিবির প্রস্তুত রাখা হয়েছে। ১২৫২ টি স্কুল কলেজ মাদ্রাসা ফাঁকা করে রাখা হয়েছে। 

শ্যামনগর ,আশাশুনি ও কালিগঞ্জ উপজেলার প্রত্যন্ত এলকার জনগণকে শনিবার বেলা ১১ টার মধ্যে এসব আশ্রয় কেন্দ্রে সরিয়ে আনার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। দুর্যোগ কবলিতদের সহায়তায় ১১০ মেট্রিক টন চাল, নগদ ১ লাখ টাকা, ৮০০ প্যাকেট শুকনো খাবার, ২৭ হাজার পানি বিশুদ্ধকরন ট্যাবলেট, পানীয় জল, ওষুধপত্র মজুদ রাখা হয়েছে। 

২২ হাজার স্বেচ্ছাসেবক ও রেডক্রিসেন্ট বাহিনী, ৮৫ টি মেডিকেল টিম, নৌ ও স্থলযান প্রস্তত রাখা  হয়েছে। একইভাবে পুলিশ, বনবিভাগ,কোস্টগার্ড, র্যাব ও বিজিবির পক্ষ থেকেও উপকূলীয় এলাকায় বুলবুল মোকাবেলায় আগাম ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। সরকারি কর্মকর্তাদের ছুটি বাতিল ঘোষণা করা হয়েছে। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত তাদের কর্মস্থল ত্যাগ করতে নিষেধ করা হয়েছে। 

অপরদিকে, সুন্দরবনের দুবলার চরে রাসমেলায় অংশগ্রহনেচ্ছু পূর্ন্যার্থীরা সম্ভাব্য দুর্যোগের কারণে যাত্রা বন্ধ করেছেন। উপকুলীয়এলাকায় সতর্কতাজারি করে উপকূলবাসীকে নিরাপদে আশ্রয় নিতে চেয়্যারম্যানদেরকে মাইকিং করতে বলা হয়েছে। এদিকে সকাল থেকে গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি অব্যাহত।

 


বিডি-প্রতিদিন/ সিফাত আব্দুল্লাহ


আপনার মন্তব্য