Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper

শিরোনাম
প্রকাশ : ১০ নভেম্বর, ২০১৯ ০১:১১

'বুলবুল' আতঙ্কে পিরোজপুরে সাইক্লোন শেল্টারে বাড়ছে মানুষ

পিরোজপুর প্রতিনিধি:

'বুলবুল' আতঙ্কে পিরোজপুরে সাইক্লোন শেল্টারে বাড়ছে মানুষ

রাত যতো বাড়ছে পিরোজপুরের মানুষের মধ্যে ‘বুলবুল’ আতঙ্ক ততো বাড়ছে। থেমে থেমে চলছে বাতাস-বৃষ্টি। সেই সাথে বাড়ছে পানির পরিমাণ। রাস্তাঘাটে মানুষের উপস্থিতি নেই বললেই চলে। চারদিকে বিরাজ করছে থমথমে অবস্থা।

দিনে সাইক্লোন শেল্টারগুলো প্রস্তুত থাকলেও ছিল না আশ্রয় প্রত্যাশীরা। রাত বাড়ার সাথে সাথে পিরোজপুর সদর, মঠবাড়িয়া, ইন্দুরকানীর বিভিন্ন সাইক্লোন শেল্টারে আশ্রয় নিয়েছে আশ্রয় প্রত্যাশীরা। পিরোজপুরে সাইক্লোন ‘বুলবুল’ মোকাবেলায় জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ২২৮টি সাইক্লোন শেল্টার রয়েছে। ফলে ২২৮টি কেন্দ্রে এখন পর্যন্ত আশ্রয় নিয়েছেন ৯০ হাজারের বেশি মানুষ। আশ্রয় কেন্দ্রগুলোর ১ লক্ষ ৭৩ হাজার মানুষের ধারণ ক্ষমতা রয়েছে। 

পিরোজপুরের সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা মঠবাড়িয়া উপজেলার মাঝের চরে। সেখানে লোকজন সাইক্লোন শেল্টারে আশ্রয় নিয়েছেন। এসব সাইক্লোন শেল্টারে স্থানীয় প্রশাসন পৌঁছে দিয়েছে চিড়া, গুড়, মুড়িসহ অন্যান্য শুকনো খাবার। রাখা হয়েছে পর্যাপ্ত পরিমাণে সুপেয় পানির ব্যবস্থা। পানি শোধনের জন্য পিরোজপুরের বিভিন্ন উপজেলায় দেয়া হয়েছে ৫০,০০০ পানি শোধন ট্যাবলেট। তাছাড়া জেলা প্রশাসন প্রতিটি উপজেলায় একটি করে কন্ট্রোল রুম খুলেছে। জরুরি সেবার জন্য ফায়ার সার্ভিস রেসকিউ টিম, দুর্যোগ আক্রান্ত মানুষের স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ১৬৯ টি মেডিকেল টিম রাখা হয়েছে। জেলা পুলিশ দুর্যোগপ্রবণ এলাকাগুলো থেকে পুলিশের ব্যবহৃত গাড়িতে করে লোকজনদের নেয়া হচ্ছে আশ্রয়কেন্দ্রে। তাছাড়া যেসব এলাকার মানুষজন আশ্রয় কেন্দ্রে যাচ্ছে তাদের বাড়িঘরের নিরাপত্তার জন্য পুলিশি টহল জোরদার করা হয়েছে। আশ্রয় কেন্দ্রে নারীদের নিরাপত্তার জন্য দেয়া হয়েছে পুলিশ। ইতিমধ্যে পিরোজপুরের জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার বিভিন্ন আশ্রয় কেন্দ্র পরিদর্শন করেছেন।

বিডি প্রতিদিন/এ মজুমদার


আপনার মন্তব্য