Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ১৮ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৭ জানুয়ারি, ২০১৯ ২২:২৫

স্বাস্থ্য খাতের দুর্নীতি

শুদ্ধি অভিযান কাজে পরিণত হোক

স্বাস্থ্য খাতের দুর্নীতি

চিকিৎসা বা স্বাস্থ্যসেবা মানুষের অন্যতম মৌলিক অধিকার। স্বাধীনতার পর শত সীমাবদ্ধতার পরও বঙ্গবন্ধু মানুষের মৌলিক অধিকারের খাতগুলোতে সাধ্যানুযায়ী বাজেট বরাদ্দ দিয়েছেন। তার হাতে গড়ে ওঠা রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ যখনই ক্ষমতায় এসেছে তখনই স্বাস্থ্য খাতকে অগ্রাধিকার দিয়েছে। এর ফলে স্বাস্থ্য পরিচর্যার বিভিন্ন দিক থেকে বাংলাদেশ দক্ষিণ এশিয়ার সেরা আসনে। স্বাস্থ্য খাতে সরকার সাধ্যানুযায়ী সর্বোচ্চ অর্থ ব্যয় করলেও এর এক বড় অংশই যে লুটেরাদের পকেটে যাচ্ছে তা একটি ওপেন সিক্রেট। স্বাস্থ্য খাতের এমন কোনো পর্যায় নেই যেখানে দুর্নীতি নেই। হিসাবরক্ষক আবজাল মিয়া নামের একজন সাধারণ কর্মচারী যার নিজের এবং স্ত্রীর আয়ে সংসার চালানো সম্ভব হলেও বাড়ি-গাড়ি, ফ্ল্যাট, অহরহ বিদেশ ভ্রমণ, ব্যাংকে অঢেল টাকা ইত্যাদি কল্পনায় আনাও কঠিন। কিন্তু তার পক্ষে শত কোটি টাকার মালিক বনে যাওয়া সম্ভব হয়েছে দুর্নীতি নামের আলাদিনের চেরাগের কল্যাণে। ভুয়া টেন্ডারের মাধ্যমে রাষ্ট্রের শত কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে স্বাস্থ্য অধিদফতরের বাজেট বিভাগের সহকারী পরিচালক ডা. আনিসুর রহমানকে দুদক জিজ্ঞাসাবাদ করেছে। বাংলাদেশ প্রতিদিনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিশ্বখ্যাত জাপানি ব্র্যান্ড ক্যাননের অথরাইজেশন লেটার জালিয়াতি করে ৮০ কোটি টাকার মেডিকেল যন্ত্রপাতি সরবরাহের টেন্ডার পাওয়ার চেষ্টা চালাচ্ছে স্বাস্থ্য খাতের একটি প্রভাবশালী সিন্ডিকেট। এ চক্রের অন্যতম হোতা এএসএল নামের একটি প্রতিষ্ঠান জাপানি ক্যাননের ভুয়া অথরাইজেশন লেটার দিয়ে এমআরআই, সিটি স্ক্যান মেশিনসহ অন্যান্য যন্ত্রপাতি সরবরাহের জন্য টেন্ডার দাখিল করেছে। মানিকগঞ্জের কর্নেল মালেক মেডিকেল কলেজ ও ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতাল স্থাপন শীর্ষক প্রকল্পের ভারী যন্ত্রপাতি কেনায় দাখিল করা টেন্ডার যাচাই-বাছাইয়ে ভয়াবহ এ জালিয়াতি ধরা পড়েছে। অথরাইজেশন জালিয়াতি করে পুরনো মেশিন দিয়ে নতুনের দামে ৮০ কোটি টাকা বাগিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করছিল ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানটি। স্বাস্থ্যমন্ত্রীর বাবার নামে প্রতিষ্ঠিত হাসপাতালের টেন্ডারে যারা পুকুর চুরির দুঃসাহস দেখাতে পারে তারা কতটা বেপরোয়া, তা সহজেই অনুমেয়। তবে এটা কোনো বিচ্ছিন্ন চিত্র নয়। বরং স্বাস্থ্য খাতের অতি সাধারণ চিত্র। আশার কথা, নতুন স্বাস্থ্যমন্ত্রী এ খাতে শুদ্ধি অভিযান চালানোর কথা বলেছেন। এটি বাস্তবেও পরিণত হবে- আমরা এমনটিই দেখতে চাই।


আপনার মন্তব্য