Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ৮ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৭ নভেম্বর, ২০১৯ ২৩:৩৫

মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার

স্বচ্ছ প্রক্রিয়ায় জনশক্তি রপ্তানি নিশ্চিত হোক

মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার

বাংলাদেশের অন্যতম বৃহত্তম শ্রমবাজার মালয়েশিয়ায় দীর্ঘদিন জনশক্তি রপ্তানি বন্ধ থাকার পর আবারও দ্বার উন্মোচনের আভাস মিলেছে। মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরের পার্লামেন্ট ভবনে দুই দেশের মন্ত্রিপর্যায়ের বৈঠকে এ-সংক্রান্ত অচলাবস্থার অবসান ঘটেছে। বুধবার মালয়েশিয়ার মানবসম্পদমন্ত্রী এম কুলাসেগারানের সঙ্গে প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী ইমরান আহমদের বৈঠকে ন্যূনতম অভিবাসন ব্যয়ে কর্মী প্রেরণ, রিক্রুটিং এজেন্সির সম্পৃক্ততার পরিধি, মেডিকেল পরীক্ষা, কর্মীর আর্থ-সামাজিক সুরক্ষা ও ডাটা শেয়ারিং বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। এ ছাড়া বিড়ম্বনা কমাতে বাংলাদেশ থেকে যাওয়ার আগে মাত্র একবার স্বাস্থ্য পরীক্ষার বিষয়ে দুই পক্ষই একমত হয়েছে। বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আগামী ২৪-২৫ নভেম্বর ঢাকায় জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপের পরবর্তী সভা হবে। এ সভার পর বাংলাদেশ থেকে মালয়েশিয়ায় কর্মী পাঠানো পুনরায় শুরু হবে বলে উভয় পক্ষ আশাবাদ ব্যক্ত করেছে। মালয়েশিয়ায় মাহাথির মোহাম্মদের নেতৃত্বে নতুন সরকার ক্ষমতায় আসার পর শ্রমিকদের কাছ থেকে মাত্রাতিরিক্ত অভিবাসন ব্যয় আদায় ও অন্যান্য অভিযোগে বাংলাদেশ থেকে লোক নেওয়া বন্ধ করা হয়। মালয়েশিয়া সরকার চায় জনশক্তি রপ্তানির ক্ষেত্রে এমন স্বচ্ছ প্রক্রিয়া অনুসৃত হোক, যাতে শ্রমিকদের স্বার্থ সংরক্ষিত থাকে। চলতি মাসের মধ্যে এ-সংক্রান্ত অচলাবস্থা কেটে গেলে মালয়েশিয়ায় বিপুলসংখ্যক বাংলাদেশির কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে। লোক পাঠানোর ক্ষেত্রে দুর্নীতি বন্ধ হলে তাতে শ্রমিকরা লাভবান হবে। রাজনৈতিকভাবে মালয়েশিয়ার বর্তমান সরকারের সঙ্গে বাংলাদেশের সহমর্মিতার সম্পর্ক থাকলেও জনশক্তি রপ্তানি প্রক্রিয়ায় স্বচ্ছতার ব্যত্যয় ঘটায় গত বছরের সেপ্টেম্বরে তারা বাংলাদেশ থেকে লোক নেওয়া আপাতত বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয়। আশা করা হচ্ছে, চলতি মাসের শেষার্ধে দুই পক্ষের বৈঠকে শ্রমবাজার খোলার ব্যাপারে ইতিবাচক সিদ্ধান্ত নেওয়া সম্ভব হবে। মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার উন্মোচন হলে দেশের রেমিট্যান্স আয় উল্লেখযোগ্য হারে বাড়বে বলে আশা করা হচ্ছে।


আপনার মন্তব্য