শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ২৩:২০

ইন্টারভিউ → মেহজাবিন চৌধুরী

আমি কোনো গ্রুপিংয়ে নেই

এ সময়ের একজন অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেত্রী মেহজাবিন চৌধুরী। একের পর এক নাটকে বৈচিত্র্যপূর্ণ অভিনয়গুণে ভক্তদের হৃদয়ে আলাদা স্থান করে নিয়েছেন। গত কয়েক বছর ধরেই দর্শকদের উপহার দিয়েছেন বেশকিছু মনে রাখার মতো নাটক। সমসাময়িক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে তার সঙ্গে কথা বলেছেন- পান্থ আফজাল

আমি কোনো গ্রুপিংয়ে নেই

কেমন আছেন? নতুন কোনো নাটকের শুটিং করছেন?

জি, ভালো আছি। মিজানুর রহমান আরিয়ানের একটি কাজ করছি। নাম ‘স্বার্থপর’। সহশিল্পী অপূর্ব। গল্পপ্রধান একটি কাজ।

 

এ ঈদে কয়টি নাটক দেখা হয়েছে?

এখনো তেমন করে দেখা হয়নি। তবে দেখব।

 

তবে বেশকিছু নাটকে আপনার অভিনয় দর্শক প্রশংসিত হয়েছে...

ভালো কাজ করার চেষ্টা করেছি। নির্মাণ, গল্প, কো-আর্টিস্ট, স্ক্রিপ্ট ভালো হলে কাজটিও ভালো হয়। তবে আমাদের ইন্ডাস্ট্রিতে ভালো স্ক্রিপ্ট রাইটারের অভাব রয়েছে।

 

‘স্ক্রিপ্ট রাইটারের অভাব’- একটু বুঝিয়ে বলবেন?

আমাদের নাট্য ইন্ডাস্ট্রিতে খুবই কম স্ক্রিপ্ট রাইটার রয়েছেন। আর ভালো স্ক্রিপ্ট রাইটার তো বলতে গেলে তেমন করে নেই। আমি মনে করি, নতুন নতুন স্ক্রিপ্ট রাইটার খুবই প্রয়োজন। প্রয়োজন ভালো গল্পের কনটেন্ট। তাহলেই ভালো ভালো নাটক দর্শক দেখতে পাবেন।

 

এখন তো স্ক্রিপ্ট ছাড়া শুধু গল্প দিয়েই কাজ করার ট্রেন্ড চালু হয়েছে। এ নিয়ে আপনার কি অভিমত?

কে কি করছে তা জানি না; তবে আমি স্ক্রিপ্ট ছাড়া কাজ করি না। এ পর্যন্ত যতগুলো কাজ করেছি তার প্রত্যেকটির স্ক্রিপ্ট ছিল।

 

পরিচিত তারকাদের গল্প ভাবনায় ইদানীং নাটক নির্মিত হচ্ছে। এটি কি পজেটিভ বলে আপনি মনে করেন?

আমাদের গল্পের অভাব রয়েছে। এ কারণেই অনেক অভিনেতা-অভিনেত্রী নতুন কোনো গল্প ভাবনা মাথায় এলে পরিচিত নির্মাতাদের সঙ্গে তা শেয়ার করেন। তবে এটা নিয়মিত কোনো ব্যাপার নয়।

 

কমেডি নাটকে মেহজাবিনকে কেন দেখা যায় না?

আমি পারসোনালি কমেডি নাটকে অভিনয় করা পছন্দ করি না; এড়িয়ে চলি। তবে কমেডি নাটক দেখতে পছন্দ করি। এটা অবশ্য চিরায়ত, যে রোমান্টিক নাটক পছন্দ করে সে কমেডি পছন্দ করে না। আবার সিরিয়াস নাটক যে পছন্দ করে, তার কাছে রোমান্টিক নাটক একঘেয়েমি লাগে। অনেকেই বলে রোমান্টিক নাটকে প্রেম প্রকাশের ভাষা কেন শুধু ‘আইলাবিউ’! আসলে প্রেম প্রকাশের আর অন্য কোনো ভাষা নেই; তাহলে তো নতুন ভাষার নাটক তৈরি করতে হবে। তবে কমেডিকে আমার মতে ভাঁড়ামি বলা ঠিক নয়।

 

অভিযোগ আছে নিশো-অপূর্ব থেকে আপনি বের হতে পারছেন না...

এর জবাব নির্মাতারা দিতে পারবেন ভালো। এখন নিশো-অপূর্ব ছাড়া অন্য সহশিল্পীদের সঙ্গে কাজের অফার পাই খুবই কম। আর কাস্টিংয়ের ব্যাপারটা কিন্তু পরিচালক দেখেন। তারা মনে করছেন না, তাই অপূর্ব-নিশোর বাইরে অন্যদের সঙ্গে কাজ করা হচ্ছে কম।

 

গ্রুপিং বিষয়টা প্রকট হয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে। এটি কি সত্যি?

স্পষ্ট করে বলি, আমি কোনো গ্রুপিংয়ে নেই। আর এটি নিয়ে তেমন করে জানিও না। তবে এটা ঠিক যে, কয়েকজন কো-আর্টিস্টের বাইরে নির্মাতারা আমাকে কাজের অফার করছেন না। ভালো অভিনেত্রী হলে চেষ্টা থাকে ভালো নির্মাতার সঙ্গে কাজ করার। আমার কাছে মিজানুর রহমান আরিয়ান, আশফাক নিপুণসহ যে কজনকে ভালো নির্মাতা বলে মনে হয়, তাদের সঙ্গেই আমি কাজ করি। গল্প, স্ক্রিপ্ট, নির্মাতা, কো-আর্টিস্টসহ সবকিছু মনের মতো হলেই কাজ করি ও করব।

 


আপনার মন্তব্য