Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২২:৫৫

সরকার সংবিধান বিরোধী পদক্ষেপ নিয়েছে : ফখরুল

নিজস্ব প্রতিবেদক

সরকার সংবিধান বিরোধী পদক্ষেপ নিয়েছে : ফখরুল

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া যেখানে কারাভোগ করছেন সেই কারাগারেই তাঁর বিচারের জন্য আদালত স্থাপনকে সংবিধানবিরোধী বলে আখ্যায়িত করেছেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। গতকাল সন্ধ্যায় গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে তিনি অভিযোগ করেন, কারান্তরীণ চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় সংবিধান লঙ্ঘন করে সরকার কারাগারে আদালত স্থাপন করছে। তিনি সংবিধানবিরোধী এ সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের জোর দাবি জানান। মির্জা ফখরুল বলেন, বেগম খালেদা জিয়ার মামলা এতদিন একটি বিশেষ আদালত তৈরি করে ঢাকা আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে চলছিল। এখন সরকার প্রজ্ঞাপন জারি করে কেন্দ্রীয় কারাগারের ভিতরে আদালত নিচ্ছে। তিনি বলেন, এটি একটি ক্যামেরা ট্রায়াল। এ ধরনের মামলায় ক্যামেরা ট্রায়ালের সুযোগ নেই। কাজেই এ পদক্ষেপ সম্পূর্ণভাবে সংবিধানবিরোধী। বিএনপি মহাসচিব বলেন, অত্যন্ত হীন উদ্দেশ্যে এসব কার্যক্রম করছে সরকার। এ ধরনের কার্যক্রম আসন্ন নির্বাচনকে প্রভাবান্বিত করবে। আমরা এটাকে খুবই গুরুত্বের সঙ্গে নিচ্ছি। এটাকে ছোট করে দেখার আর কোনো সুযোগ নেই। সরকারের এ পদক্ষেপের পরিপ্রেক্ষিতে পরবর্তী কর্মসূচি জানিয়ে দেওয়া হবে। এক প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, সবচেয়ে বড় কথা হচ্ছে— বেগম খালেদা জিয়া একজন প্রবীণ রাজনীতিক। তাঁর অধিকার হরণ করা হচ্ছে। সংবিধান লঙ্ঘন করা হচ্ছে।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেন, সংবিধান যতবার ও যতগুলো সংশোধন হয়েছে- কোনোবারই ৩৫ ধারার সংশোধন করা হয়নি। আজ একটি প্রজ্ঞাপন জারির মাধ্যমে এর পরিবর্তন করছে সরকার। একটা গণতান্ত্রিক দেশে এর চেয়ে জঘন্যতম কাজ আর কিছু হতে পারে না। সংবাদ সম্মেলনে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আবদুল মঈন খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


আপনার মন্তব্য