Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২৩:০৬

বাংলাদেশে শ্রম অধিকার নিশ্চিত বড় চ্যালেঞ্জ : বার্নিকাট

নিজস্ব প্রতিবেদক

বাংলাদেশে শ্রম অধিকার নিশ্চিত বড় চ্যালেঞ্জ : বার্নিকাট

বাংলাদেশে তৈরি পোশাক কারখানা সংস্কারের পর এখন শ্রম অধিকার নিশ্চিত করাকে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ বলে মনে করেন বিদায়ী মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শা স্টিফেন্স ব্লুম বার্নিকাট। তিনি বলেন, শ্রম অধিকারের বিষয়টি বাস্তবায়নে দেরি করলে বাংলাদেশের সুনাম নষ্ট হবে, বিদেশি ক্রেতাদের অন্যত্র ঝুঁকে পড়ার হুমকি তৈরি হবে।

গতকাল পোশাক মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাটকে বিদায়ী সংবর্ধনা দেয়। সেখানে বার্নিকাট এসব কথা বলেন। সংবর্ধনায় বিজিএমইএ সভাপতি সিদ্দিকুর রহমানসহ সংগঠনটির নেতারা উপস্থিত ছিলেন। বার্নিকাট তার বক্তব্যে বলেন, ‘ক্রেতারা পণ্য কেনার বিষয়ে শ্রম অধিকারের ইস্যুটি বেশি বিবেচনায় নিচ্ছেন। এজন্য আন্তর্জাতিক শ্রম আইনগুলো মেনে চলা জরুরি।’ তিনি বলেন, এটা শুধু সঠিক কাজই নয়, বুদ্ধিদীপ্ত কাজও বটে। যত দ্রুত সম্ভব এ বিষয়ে আইনগত পরিবর্তন আনা জরুরি। বিষয়টি দীর্ঘায়িত করলে তৈরি পোশাক খাতের কোনো লাভ হবে না। মার্কিন রাষ্ট্রদূত বলেন, শ্রম আইনকে আন্তর্জাতিক মানে উন্নীত করার পাশাপাশি কার্যকর করলে বিদেশের বাজারে বাংলাদেশের প্রতিযোগিতা বাড়বে। এটি বিশ্ববাজারে তৈরি পোশাকের অংশ বিস্তৃত করতেও সহায়ক হবে। ২০১৩ সাল থেকে অ্যাকর্ড-অ্যালায়েন্সের মাধ্যমে তৈরি পোশাক খাতে বিশাল সংস্কার আনা সম্ভব হয়েছে। এখন বিশ্বের নিরাপদ কারখানাগুলোর মধ্যে চলে এসেছে বাংলাদেশ। সামনে তৈরি পোশাক খাতে আরেকটি বড় চ্যালেঞ্জ শ্রম অধিকার নিশ্চিত করা। জাতীয় কর্মপরিকল্পনার আওতায় কারখানাগুলোর সংস্কারকাজ শেষ করা ও সংস্কারে অর্জিত অগ্রগতি বজায় রাখা দরকার। অনুষ্ঠানে মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত না হওয়া পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে জিএসপি সুবিধা পুনবর্হাল রাখার আহ্বান জানান বিজিএমইএ সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান।


আপনার মন্তব্য