Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ২ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১ মার্চ, ২০১৯ ২৩:২৫

ভারতের পাইলটকে হস্তান্তর

জঙ্গি ঘাঁটি ধ্বংসে পাকিস্তানে হামলা অব্যাহত রাখার ঘোষণা ভারতের

নয়াদিল্লি ও কলকাতা প্রতিনিধি

ভারতের পাইলটকে হস্তান্তর
ওয়াঘা সীমান্তে বিএসএফের কাছে হস্তান্তরের ঠিক আগে উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমান (ডানে)। পাশে পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা ফারিহা বুগতি -বিবিসি

উত্তেজনা কিছুটা প্রশমন করে পাকিস্তানের হাতে আটক হওয়া উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমানকে ভারতের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। গতকাল দুপুরে ইসলামাবাদ থেকে রওনা হয়ে সন্ধ্যায় ওয়াঘা সীমান্তে পৌঁছান অভিনন্দন। সেখানে বিভিন্ন আনুষ্ঠানিকতা শেষে স্থানীয় সময় রাত সাড়ে ৯টা নাগাদ ভারতে প্রবেশ করেন পাইলট অভিনন্দন বর্তমান। দেশের মাটিতে পা দিয়ে তিনি বলেন, দেশে ফিরে এসে ভালো লাগছে। জাতীয় বীরে পরিণত হওয়া অভিনন্দন বর্তমানকে অভ্যর্থনা জানাতে সীমান্তে ছিল মানুষের উপচেপড়া ভিড়। শুধু সীমান্ত নয়, ভারতজুড়েই ছিল আনন্দ ও উচ্ছ্বাস। ভারতের পক্ষ থেকে উইং কমান্ডার অভিনন্দনের হস্তান্তরকে কূটনৈতিক বিজয় বলা হলেও পাকিস্তানের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, শান্তির বার্তা দিতেই পাইলটকে ভারতে ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে। আন্তর্জাতিক বিশ্ব পাকিস্তানের এ পদক্ষেপের প্রশংসা করেছে। জানা গেছে, ইসলামাবাদ থেকে লাহোরে সড়ক পথে নিয়ে আসা হয় অভিনন্দনকে। সেখান থেকে বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে তাকে নিয়ে আসা হয় ওয়াঘা-আট্টারি সীমান্তে। সেখানে একবার মেডিকেল চেকআপ আর অন্যান্য আনুষ্ঠানিকতা শেষে রাতে ভারতের সেনাদের হাতে তাকে তুলে দেন পাক সেনারা। এ সময় অভিনন্দনের বাবা এয়ার মার্শাল এস বর্তমান, মা শোভা বর্তমান ও ভারতীয় বিমান বাহিনীর শীর্ষ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। তাকে অভিনন্দন জানাতে সীমান্ত গেটে জড়ো হন শতাধিক সাধারণ মানুষ। স্বদেশের বৈমানিককে ফেরত পেয়ে উল্লসিত হয়ে দেশাত্মবোধক স্লোগান দেন তারা। অভিনন্দন বর্তমান ভারতে প্রবেশের পরপরই আট্টারি সীমান্তে সংক্ষিপ্ত সংবাদ সম্মেলন করেন এয়ার ভাইস মার্শাল আর জি কে কাপুর। তিনি জানান, অভিনন্দনকে আমরা ফিরে পেয়েছি। তার এখন পুরো শরীরের স্বাস্থ্য পরীক্ষা প্রয়োজন। সে ফিরে আসায় আমরা খুশি। সেখান থেকে অভিনন্দনকে অমৃতসর এবং পরে বিমান বাহিনীর বিশেষ বিমানে তাকে দিল্লি নিয়ে যাওয়ার কথা। এদিকে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি তার প্রতিক্রিয়ায় বলেছেন, অভিনন্দন বর্তমানের এই মুক্তিতে প্রত্যেক ভারতীয় গর্বিত। সে তামিলনাড়ুর গর্বিত সন্তান। গত বুধবার কাশ্মীরে পাক-ভারতের আকাশ যুদ্ধে যুদ্ধবিমান ‘মিগ ২১’ বিধ্বস্ত হয়ে পাকিস্তানে আটক হন ভারতীয় বৈমানিক অভিনন্দন বর্তমান। পরদিন বৃহস্পতিবার শান্তির নিদর্শনস্বরূপ তাকে ছেড়ে দেওয়ার ঘোষণা দেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

জঙ্গি ঘাঁটি ধ্বংসে পাকিস্তানে হামলা অব্যাহত রাখার ঘোষণা ভারতের : সন্ত্রাসীদের মদদ দেওয়ার অভিযোগকে আবারও সামনে এনে ভারতীয় সশস্ত্র বাহিনী হুঁশিয়ার করেছে, ‘যতদিন পর্যন্ত পাকিস্তান এ অপতৎপরতা বন্ধ না করবে, ততদিন ভারত সে দেশের জঙ্গি ঘাঁটি ধ্বংসে হামলা চালিয়ে যাবে।’ চলমান উত্তেজনার মধ্যে প্রথমবারের মতো ভারতের সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনী আয়োজিত যৌথ সংবাদ সম্মেলনে কর্মকর্তারা এ ঘোষণা দেন। ভারতীয় সেনাবাহিনীর মেজর জেনারেল এস এস মহল গতকাল সংবাদ সম্মেলনে চলমান পরিস্থিতি সম্পর্কে বলেন, এ উত্তেজনা পাকিস্তানের সৃষ্টি। কিন্তু ভারত শত্রুপক্ষের যে কোনো পদক্ষেপের জন্য প্রস্তুত ছিল। নৌবাহিনীর রিয়ার অ্যাডমিরাল দলবির সিং গুজরাল বলেন, ভারত যে কোনো পদক্ষেপের জন্য প্রস্তুত এবং ব্যবস্থা নেওয়ার জন্যও প্রস্তুত। বিমান বাহিনীর প্রধান এয়ার ভাইস মার্শাল আর জি কে কাপুর বলেন, আমরা আমাদের টার্গেটে হামলা চালিয়েছি। কিন্তু হতাহতের সংখ্যা এখনই বলা সম্ভব নয়।

পাকিস্তানের ওআইসির সম্মেলন বয়কট : ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ ওআইসির মন্ত্রী পর্যায়ের একটি সভায় আমন্ত্রিত হওয়ায় সংযুক্ত আরব আমিরাতের এ সভা বয়কট করেছে পাকিস্তান। ১৯৬৯ সালে পাকিস্তানের চাপে মরক্কোতে অনুষ্ঠিত ওআইসির সম্মেলন থেকে ভারতের আমন্ত্রণ প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু এবারের চিত্র ভিন্ন। পাকিস্তানের আপত্তিকে গ্রাহ্য করা হয়নি। বরং গতকাল সভার উদ্বোধনী সেশনে অংশ নিয়ে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে তার দেশের অবস্থান তুলে ধরেন।


আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর