Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ২৩:১৬

মেয়ে বলেই পায়ে পিষে হত্যা!

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

মেয়ে বলেই পায়ে পিষে হত্যা!

সিরাজগঞ্জের বেলকুচি উপজেলার মুকন্দগাতিতে ৯ মাস বয়সী শিশু সুমাইয়া খাতুনকে তার বাবা পা দিয়ে পিষে হত্যা করার পর ডোবায় ফেলে দিয়েছেন। গতকাল ভোরে উপজেলার মুকন্দগাতি পশ্চিমপাড়া মহল্লায় এ ঘটনা ঘটেছে। ঘটনার পর থেকে ঘাতক বাবা বদিউজ্জামান পলাতক রয়েছেন। জানা গেছে, প্রথম মেয়ের পর দ্বিতীয় দফায় এই মেয়েটি জন্ম নেওয়ায় ক্ষুব্ধ হয়ে বাবা তাকে হত্যা করেন। বেলকুচি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আনোয়ারুল ইসলাম জানান, সাত বছর আগে তাঁত শ্রমিক বদিউজ্জামানের সঙ্গে পাবনার চাটমোহরের মির্জাপুর গ্রামের সিকেন্দার আলীর মেয়ে সুন্দরী খাতুনের বিয়ে হয়। কয়েক বছর আগে তাদের সংসারে একটি মেয়ে সন্তানের জন্ম হয়। এ নিয়েও তাদের সংসারে অসন্তোষ চলছিল। এরপর একটি ছেলে সন্তানের আশা করে আরেকটি বাচ্চা নেন। কিন্তু তাদের সংসারে আরও একটি মেয়ে জন্ম নেয়। নাম রাখা হয় সুমাইয়া খাতুন। সুমাইয়ার বয়স হয়েছিল নয় মাস। পরপর দুটি মেয়ে জন্ম হওয়ায় বদিউজ্জামান প্রায় স্ত্রীকে ও দুই সন্তানকে অত্যাচার নির্যাতন করতেন। এমনকি প্রায়ই শিশু সুমাইয়াকে হত্যা করার কথা বলতেন। এ অবস্থায় গতকাল ভোরে বদিউজ্জামান শিশু সুমাইয়ার বুকের ওপর পা রেখে পিষে তাকে হত্যা করে বাড়ির পাশে ডোবায় ফেলে দিয়ে পালিয়ে যান। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। ঘাতক বদিউজ্জামানকে গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান চলছে।


আপনার মন্তব্য