Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ১১ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১০ জানুয়ারি, ২০১৯ ২২:০২

ব্রাইডাল শাওয়ার

উম্মে হানি

ব্রাইডাল শাওয়ার
ছবি : ইন্টারনেট

বাঙালির বিয়ে মানেই কয়েকদিনের উৎসব। আর পারিবারিক এই আনন্দ-উৎসব জীবনে মাত্র একবারই আসে। প্রতিটি কনেরই এই আনন্দের মূল কেন্দ্রবিন্দু হয়ে থাকার স্বপ্ন দেখে। তাই এই উৎসবকে ঘিরে আয়োজনের শেষ নেই। ব্রাইডাল শাওয়ার এসেছে পাশ্চাত্য ঘরনা থেকে। এই অনুষ্ঠানের সঙ্গে সনাতন বাঙালি ঐতিহ্যের বেশ মিল খুঁজে পাওয়া যায়। আয়োজনটির সঙ্গে সনাতন ধর্মের আশীর্বাদ অনুষ্ঠানের সঙ্গে মিল রয়েছে। পাশ্চাত্য এবং বাঙালি আভিজাত্য সংমিশ্রণে ব্রাইডাল শাওয়ার এখন হয়ে উঠেছে অনেক জাঁকজমক।

 

ব্রাইডাল শাওয়ারের আয়োজন সাধারণত মেয়ের বান্ধবী ও বোনেরা করে থাকে। পরিবারের মুরব্বিদের হস্তক্ষেপ এখানে কমই দেখা যায়। মূলত এই অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো হয় কাছের খুব ঘনিষ্ঠ আত্মীয় স্বজন এবং বন্ধুদের। আমন্ত্রিত অতিথিরা কনেকে শুভেছা দোয়া এবং উপহার দিতে পারেন এই সময়ে। পারিবারিক আবহের এই আয়োজনে আত্মীয়স্বজন, বন্ধুবান্ধবের উপস্থিতি এবং আড্ডায় দারুণ জমে ওঠে। আজকাল শহুরে এসব অনুষ্ঠানে খাবারদাবারের পাশাপাশি নাচ-গান মজাদার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। অনেক পরিবার ব্রাইডাল শাওয়ারের এই আয়োজনটিকে ভিন্নমাত্রা দিতে রিসোর্ট ভাড়া করে পুরো অনুষ্ঠানটি সেখানেই সেরে নেন। তবে, ঘরোয়া আনন্দ অন্য কোথাও মেলে না। ঢাকঢোল না পিটিয়ে কিছুটা ব্যতিক্রমভাবেও আয়োজনটি করা যায়। হবু বউ এ আয়োজন সম্পর্কে কিছুই জানবে না। খানিকটা সারপ্রাইজ পার্টির মতো। বিয়ের আগে বন্ধুদের সঙ্গে একটা গর্জিয়াস গেট টুগেদারও বলা যেতে পারে। এতসব আয়োজনে কেক কাটা, নাচ, গান, আড্ডা এবং মজাদার খাবারে মাততে আর বাধা কোথায়? আয়োজনে বন্ধুদের সঙ্গে মিলিয়ে ড্রেস কোডও থাকতে পারে। ব্রাইডাল শাওয়ারের পুরোটা সময় সাজ আর ছবি তুলে আনন্দ করতে চাইলে আগে থেকেই কিছু মেকওভার ডেকোরেশন প্ল্যান করা ভালো। তবে অনুষ্ঠানটি যেন বিয়ের অনুষ্ঠানগুলোর মতো না হয়। সাজসজ্জায়ও বিয়ের সাজের চেয়ে ভিন্নতা থাকে।


আপনার মন্তব্য