Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ২১:৩৩

অ্যাডভেঞ্চারে রূপ সচেতনতা

বন-জঙ্গলে ঘোরাঘুরি, দুঃসাহসিক পাহাড় চষে বেড়ানো, নদীতে সাইক্লিং আরও কত কী! সবকিছুতেই আনন্দ খুঁজে পেলেও ত্বকের বেহাল দশা। ভ্রমণকালীন রূপচর্চা হয়তো মিলবে না, কিন্তু সতর্কতা তো অবলম্বন করাই যায়।

অ্যাডভেঞ্চারে রূপ সচেতনতা
মডেল : শ্রাবণা সরকার ছবি : শাকীর এহসানুল্লাহ

দেশ-বিদেশে ভ্রমণ করতে কার না ভালো লাগে! বর্তমানে তরুণ-তরুণীদের কাছে গ্রুপ নিয়ে ভ্রমণ বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। হাতে হাত ধরে কখনো দুঃসাহসিক পাহাড় ভ্রমণ, কখনো নদীতে সাইক্লিং এবং কাইকিং। কখনো বা মেঘাচ্ছন্ন কুয়াশা পেরিয়ে আঁকাবাঁকা পথে গন্তব্যে ছুটে চলা। অনাদ্রতার বন-জঙ্গল পেরিয়ে ভ্যাপসা গরম সঙ্গী করে ছুটে প্রাকৃতিক ঝরনার কাছে ছুটে যাওয়া। আর সমুদ্র সৈকতে স্নান করে নোনা পানি গায়ে জড়ানো ইত্যাদি। সব মিলিয়ে একটু রিল্যাক্সশনের আশায় ত্বকের ওপর নেমে আসে নানা বিপত্তি। এর প্রধান কারণ হঠাৎ করেই ভিন্ন পরিবেশে নিজেকে খাপ খাওয়ানোর চেষ্টা। আর এতে শুধু যে ত্বক ও চুলের ক্ষতি হয় তাও নয়, অনেক সময় শরীরও খারাপ করে ভ্রমণের সময়ে।

 

ছুটির আমেজ কিংবা বেড়ানোর নেশায় বন-বাদাড়ে ঘুরে বেড়াতে ব্যাগপত্র গুছিয়ে বেরিয়ে পড়লেন ঠিকই। কিন্তু আপনি জানেন কি! বেড়ানোর সময় খাওয়া-দাওয়া থেকে শুরু করে ঘুম; সব কিছুতেই চলে কয়েক দিনের বেশ অনিয়ম। আর তারই প্রভাব পড়ে আমাদের ত্বক ও চুলে। আর তাদের জন্য রইল বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ নিয়ে তৈরি এই বিশেষ ফিচার।

 

বেড়ানোর আগে জেনে নিন

সপ্তাহ খানেকের জন্য বেড়াতে যাবেন। গন্তব্য পাহাড়, নদী, বন-বাদাড়। তাই আগে থেকেই ত্বক ও চুলকে তৈরি করে নিন ভ্রমণের উপযোগী করে। কেননা, ছুটি উপভোগ করতে গিয়ে আপনার সৌন্দর্য যেন বাধা হয়ে না দাঁড়ায়। এক্ষেত্রে ভালো কোনো কসমোলজিস্টের পরামর্শ নিতে পারেন। বেড়াতে যাওয়া দিন তিনেক আগে পারলারে গিয়ে ফেসিয়াল, হেয়ার স্পা, পেডিকিওর, মেনিকিউর ইত্যাদি যাবতীয় কাজগুলো সেরে নিতে পারেন। ভ্রমণে যাওয়ার আগের দিন ত্বকের ময়লা ও মৃত কোষ দূর করতে স্ক্রাবিং করে নিন। শুধু মুখত্বক নয়, শরীরও স্ক্রাবিং করুন। আর হ্যাঁ সৌন্দর্যপ্রিয় মানুষের ভ্রমণকালীন ট্র্যাভেল ব্যাগে হালকা মেকআপ সরঞ্জাম বা বিউটি কিট গুছিয়ে নিতে পারেন। প্রয়োজনীয় সব সরঞ্জামের মধ্যে রয়েছে চিরুনি, রাবার ব্যান্ড, ববি পিন, হেয়ার কাচার, সেফটি পিন ইত্যাদি। এ ছাড়া ময়েশ্চারাইজার ক্রিম, লিপ বাম, পারফিউম, শ্যাম্পু, হেয়ার সিরাম, কন্ডিশনার, কাজল, লিপস্টিক, বিবি ক্রিম, কমপ্যাক্ট পাউডার ইত্যাদিও সঙ্গে রাখুন।

 

অরণ্যে দিবারাত্রি

বন-জঙ্গলে বেড়াতে কিছু প্রয়োজনীয় উপকরণ সঙ্গে নিয়ে নিন। পোকামাকড়ের কামড় থেকে বাঁচতে ইনসেক্ট রিপ্যালেন্ট নিয়ে নিন। সঙ্গে অ্যান্টিসেপটিক বা লোশনও রাখুন। শীতকাল ছাড়া মোটামুটি সারা বছরই জঙ্গলের ভিতরের পরিবেশ বেশ আর্দ্র থাকে। সুতরাং চুল রুক্ষ বা শুষ্ক হয়ে পড়া খুব একটা অস্বাভাবিক নয়। ভ্রমণকালে সম্ভব হলে প্রতিদিন শ্যাম্পু করুন। জল জঙ্গলে মেকওভার না নেওয়াই ভালো। তবে ছবি তোলার ক্ষেত্রে একান্তই মেকওভার নিতে  চাইলে আর্দ্র সহনীয় বিবি ক্রিম ব্যবহার করতে পারেন।

 

পাহাড়ের রৌদ্র আবহাওয়ায়

পাহাড় এমনিতেই সমতল থেকে ওপরে থাকে। তাই পাহাড়ে গরম পড়বে এটাই স্বাভাবিক। আর স্বাভাবিকতাকে রপ্ত করার কৌশল সম্পর্কেও ধারণা রাখতে হবে। পাহাড়ে বেড়াতে গেলে শীতকালীন রূপচর্চা ফলোআপ করতে হবে। পাহাড়ে দাবড়ে বেড়ানোর আগে ময়েশ্চারাইজার, বডিলোশন ব্যবহার করতে ভুলবেন না। যেহেতু রোদে রোদে চষে বেড়াতে হবে তাই সানস্ক্রিন মাস্ট। ঠোঁটের সুরক্ষায় লিপবাম ব্যবহার করুন। পাহাড়ের আবহাওয়ায় চুল ধোয়ার সুব্যবস্থা না থাকলেও সুযোগ পেলে শ্যাম্পু এবং কন্ডিশনার ব্যবহার করতে পারেন। তবে এমন পরিবেশে মেকআপ না করাই ভালো। একান্তই মেকওভার নিতে চাইলে অবশ্যই ক্রিম বেজড প্রসাধনী ব্যবহার করতে হবে।

 

সৈকতের নোনা প্রকৃতিতে

সৈকত মানেই তাপ আর গরম। তাই এখানে সানস্ক্রিন ব্যবহার করতেই হবে। এমন পরিবেশে উচ্চ এসপিএফযুক্ত সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন। আর বাইরে বেরোনোর ২০ মিনিট আগে সানস্ক্রিন লাগান এবং তিন ঘণ্টা পরপর আবার সানস্ক্রিন লাগাতে হবে। সৈকতে ভেজা গায়ে বালি লাগলে সহজে যেতে চায় না। সেক্ষেত্রে বেবি পাউডার ব্যবহার করুন। সারা দিনের ঘাম, ময়লা ত্বক বা চুলে জমে থাকতে দেবেন না। বেড়ানো শেষে হোটেল বা রিসোর্টে ফেরার পর ক্লিনজিং জেল বা ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ পরিষ্কার করে ময়েশ্চারাইজ লোশন ব্যবহার করুন। সকালে শ্যাম্পু করতে পারলে ভালো। না হলে চুল বেঁধে রাখুন। মেকআপ করার ক্ষেত্রে যত কম প্রসাধনী ব্যবহার করবেন তত ভালো।

লেখা : ফেরদৌস আরা


আপনার মন্তব্য