Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ২১:৩৬

ভিটামিন সিতে ভরপুর কমলালেবু

কমলালেবু ভিটামিন সিতে ভরপুর। ভিটামিন সি ছাড়াও এই ফলে আরও বিভিন্ন ধরনের ভিটামিন, পুষ্টি উপাদান রয়েছে। রইল তার বৃত্তান্ত...

ভিটামিন সিতে ভরপুর কমলালেবু
ছবি : ইন্টারনেট

ভিটামিন সি আমাদের দেহে সংরক্ষণ হয় না। প্রয়োজনের অতিরিক্ত হলে তা আমাদের শরীর থেকে বের হয়ে যায়। কিন্তু ভিটামিন সি আমাদের সব বয়সের মানুষের জন্য সারা বছর ভীষণ উপকারী।

 

কমলালেবু সারা পৃথিবীতে ভীষণ পরিচিত একটি ফল। পৃথিবীর প্রায় সব দেশে এই ফল পাওয়া যায়। আমাদের দেশে সারা বছর এই ফল পাওয়া যায়। এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি এবং ভিটামিন এ। এই ভিটামিন দুটি চোখ, নখ, চুল, হাড়, সর্বোপরি পুরো দেহের জন্য ভীষণ উপকারী। শিশু বয়স থেকে এই ফল খাওয়ার চেষ্টা করতে হবে।

 

♦  ভিটামিন সি পুরো দেহের চামড়ার পুষ্টি জোগায়, বহুবিধ ছোঁয়াচে অসুখ থেকে দূরে সরিয়ে রাখে। গরম ঠান্ডা জনিত অসুখ থেকে রক্ষা করে এই ফল।

♦  কমলালেবুতে রয়েছে কেরোটিনয়েড নামক এক উপাদান, যা ভাইরাসজনিত ইনফেকশনকে প্রতিহত করে। ডায়েরিয়ার জীবাণুকে করে দুর্বল। তারুণ্য বজায় রাখতে যুদ্ধ করে দেহের বিষাক্ত উপাদানগুলোর বিরুদ্ধে।

♦  এতে আরও আছে বিটা কেরোটিন। যা দেহে শীতকালীন অসুখ দূর করে, রোগ প্রতিরোধ শক্তি বাড়িয়ে তোলে। মুখ ও ঠোঁটের কোণায় ঘা, টনসিল, কাশি, শারীরিক দুর্বলতা কমাতে সাহায্য করে। এই ফলে এনটি অক্সিডেন্ট নামের জরুরি উপাদানটি দেহের বিষাক্ত জীবাণু মেরে ফেলতে যথেষ্ট ভূমিকা রাখে। ডায়াবেটিস রোগীর জন্যও এই ফল খুব দরকারি। তবে ডায়াবেটিস রোগীরা মিষ্টি কমলালেবু না খেয়ে টক লেবু খাবেন। কিছুটা টক লেবু তাদের জন্য বয়ে আনবে সুফল।

♦  এই ফল শরীরে টক্সিনের পরিমাণ কমায়। বেড়ে যাওয়া টক্সিন দেহে বিভিন্ন রকম অসুখ তৈরি করে। তাই নিয়মিত কমলালেবু খান। তবে এই ফলে পটাশিয়াম আছে। যা কিডনির জটিলতায় আক্রান্ত সব রোগীর জন্য খাওয়াটা উচিত হবে না। চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে খাওয়া উচিত।

♦  যে কোনো ঘা, জিহ্বায় ঘা, কাটা ও সেলাইজনিত চামড়া, মাংসপেশি শুকানোর জন্য কমলালেবু ভীষণ উপকারী ফল। গবেষণায় দেখা গেছে, যারা নিয়মিত এই ফল খায়, তাদের দাঁতের অসুখ হয় তুলনামূলকভাবে কম। তবে শুধু এই ফল খেলে চলবে না। নিয়মিত দাঁতের যতœ নিতে হবে।

♦  চোখের পাতায় ইনফেকশন, চোখ ওঠা ভীষণ ছোঁয়াচে রোগ। এই অসুখগুলোর বিরুদ্ধ লড়াই করে কমলালেবু।

♦  এই ফলে লিপিড বা চর্বি নেয়। যারা ওজন কমাতে চান, তারা এই ফল খান। ঠোঁট ও পায়ের গোড়ালি ফেটে যাওয়া রোধ করে এর ভিটামিন সি এবং ভিটামিন এ।

 

এই ফলের পুষ্টিগুণ তাড়াতাড়ি নষ্ট হয়। তাই ফ্রিজে সংরক্ষণ না করাই ভালো। পৃথিবীর একেক দেশে একেক প্রজাতির কমলালেবু পাওয়া যায়। সব ধরনের লেবু উপকারী। কমলালেবু কিনতে না পারলে, ভাতের সঙ্গে যে লেবু আমরা খাই তা নিয়মিত খান। সব বয়সের মানুষের জন্য ভিটামিন সি খুব দরকারি। তবে অ্যাসিডিটি যাদের বেশি হয়, তারা রাতে লেবু খাবেন না। কমলালেবু খাবার পর দুধ জাতীয় খাবার বাদ দেবেন। গুণের বিচারে, এই সারা বছর কমলালেবু হোক আপনার উপকারী বন্ধু। সপ্তাহে অন্তত একটি হলেও কমলালেবু খাবেন।

 

লেখক-  ডা. ফারহানা মোবিন


আপনার মন্তব্য