শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ২৩:৪০

সন্দেহভাজন ইরানি অস্ত্র আটকের দাবি যুক্তরাষ্ট্রের

১৫০টি ট্যাংক বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র ও ভূমি থেকে আকাশে নিক্ষেপযোগ্য তিনটি ক্ষেপণাস্ত্র

সন্দেহভাজন ইরানি অস্ত্র  আটকের দাবি যুক্তরাষ্ট্রের

আরব সাগর থেকে ১৫০টি ট্যাংক বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র ও ভূমি থেকে আকাশে নিক্ষেপযোগ্য তিনটি ক্ষেপণাস্ত্রসহ বেশকিছু অস্ত্র জব্দের দাবি করেছে যুক্তরাষ্ট্র। মার্কিন সেনাবাহিনীর এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, পালতোলা নৌকায় অভিযান চালিয়ে এসব অস্ত্র জব্দ করে নৌবাহিনীর একটি যুদ্ধজাহাজ। এসব অস্ত্রের নকশা ও উৎপাদন ইরানের বলে ধারণার কথা জানিয়েছে তারা। তবে এ বিষয়ে এখনো কোনো প্রতিক্রিয়া জানায়নি তেহরান। জাতিসংঘে গৃহীত এক প্রস্তাব অনুযায়ী নিরাপত্তা পরিষদের অনুমোদন ছাড়া নিজ দেশের বাইরে অস্ত্র সরবরাহ, বিক্রি বা স্থানান্তর করতে পারে না ইরান। নতুন জব্দ করা অস্ত্রের সঙ্গে গত বছরের নভেম্বরে পাওয়া অস্ত্রের মিল রয়েছে। ওই বিবৃতিতে বলা হয়, গত রবিবার রাতে আরব সাগরে একটি নৌকায় অভিযান চালায় মার্কিন যুদ্ধজাহাজ নরম্যান্ডি। সেখান থেকে জব্দ করা অস্ত্রের মধ্যে রয়েছে ১৫০টি ট্যাংক বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র (এটিজিএম) দেহলভি। এগুলো রাশিয়ার কর্নেট এটিজিএম-এর ইরানি সংস্করণ। এছাড়া জব্দ করা অন্য অস্ত্র ও সরঞ্জামগুলোর নকশা এবং উৎপাদনও ইরানের। এগুলোর মধ্যে রয়েছে ভূমি থেকে আকাশে নিক্ষেপযোগ্য তিনটি ইরানি ক্ষেপণাস্ত্র। 

নিষেধাজ্ঞার কারণে ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীরা স্থানীয়ভাবে অস্ত্র উৎপাদন করে। এক্ষেত্রে ব্যবহৃত হয় বিদেশি বিশেষজ্ঞ ও পাচার করে সংগ্রহ করা যন্ত্রাংশ।


আপনার মন্তব্য