শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১১ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১০ মার্চ, ২০২১ ২৩:৩৬

মিয়ানমার নিয়ে বিবৃতি দিতে ফের ব্যর্থ নিরাপত্তা পরিষদ

জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ মিয়ানমারের অভ্যুত্থান নিয়ে বিবৃতি দিতে আবারও ব্যর্থ হয়েছে। খসড়া বিবৃতিতে অভ্যুত্থানের নিন্দা ও শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ নিয়ন্ত্রণে সেনাবাহিনীকে সংযত হওয়ার আহ্‌বান জানানো হয়। কিন্তু তাতে বাধা দেয় ভারত, চীন ও রাশিয়া। খসড়া বিবৃতিতে দেশটির সেনাবাহিনীকে শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ নিয়ন্ত্রণে সংঘাতপূর্ণ আচরণ থেকে বের হয়ে আসার আহ্‌বান জানানো হয়। পাশাপাশি দেশটির সেনাবাহিনী সংযত না হলে ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারিও দেওয়া হয়। যদিও কূটনীতিকরা বলেছেন, আলোচনা সম্ভবত চলবে। গত মঙ্গলবার ব্রিটেনের খসড়া বিবৃতি সংশোধনের পরামর্শ দেয় চীন, রাশিয়া, ভারত ও ভিয়েতনাম। কূটনীতিকরা বিবৃতি থেকে সেনা অভ্যুত্থান সম্পর্কিত আলোচনা ও ‘সেনাবাহিনী সংযত না হলে আরও ব্যবস্থা গ্রহণের মতো কথাগুলো সরিয়ে ফেলার অনুরোধ জানিয়েছে। নিরাপত্তা পরিষদ গত মাসেও  মিয়ানমারের জরুরি অবস্থা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছিল। তখনো চীন-রাশিয়ার বিরোধিতায় বিবৃতিটিতে সেনা অভ্যুত্থানের নিন্দা জানানো হয়নি।

জাতিসংঘের মুখপাত্র স্তেফান দুজারিচ গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, ‘প্রতিটি সদস্য রাষ্ট্র স্বতন্ত্র ও সম্মিলিতভাবে ভূমিকা রাখতে পারে। আমরা সবসময় নিরাপত্তা পরিষদ থেকে দৃঢ় ও কঠোর ব্যবস্থা আশা করছি।’ খসড়া বিবৃতিতে ‘শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদকারীদের ওপর হামলার’ তীব্র নিন্দা জানিয়েছে নিরাপত্তা পরিষদ। জাতিসংঘের মানবাধিকার সংগঠন এবং হিউম্যান রাইটস ওয়াচ নিরাপত্তা পরিষদকে দেশটির ওপর আন্তর্জাতিক অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা আরোপের আহ্‌বান জানায়। সামরিক সরকারের ওপর অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপের আহ্‌বান জানিয়েছে হিউম্যান রাইটস ওয়াচ। কূটনীতিকরা বলছেন, এ ধরনের নিষেধাজ্ঞা জারির সম্ভাবনা নেই, কারণ, চীন ও রাশিয়া এর বিরোধিতা করবে।