Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ১৯ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৮ আগস্ট, ২০১৯ ২৩:৪৩

অষ্টম কলাম

টাকার নোট ও কয়েনে মলমূত্রের ব্যাকটেরিয়া

প্রতিদিন ডেস্ক

টাকার নোট ও কয়েনে মলমূত্রের ব্যাকটেরিয়া

গবেষকরা বাজারে পাওয়া টাকার নোট ও কয়েনে ব্যাকটেরিয়া পেয়েছেন। এ বিষয়ে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ বিজ্ঞানের ছাত্রী নিশাত তাসনিম প্রায় ছয় মাস ধরে গবেষণা করেছেন। এতে তিনি দেখেছেন, খুলনা শহরের বিভিন্ন পর্যায়ের দোকান ও বিভিন্ন পেশার মানুষের কাছ থেকে সংগ্রহ করা টাকা ও কয়েনে এমনসব ব্যাকটেরিয়া রয়েছে- যা মানুষের মল-মূত্র থেকে আসা। সূত্র : বিবিসি।

নিশাত তাসনিম জানান, ‘ই-কোলাই জাতীয় ব্যাকটেরিয়া মানুষের মলে পাওয়া যায়। এই ব্যাকটেরিয়াই ক্ষতিকর মাত্রায় মিলেছে সংগ্রহ করা টাকা ও কয়েনে।’ তিনি জানান, এক হাজার মাত্রা পর্যন্ত ব্যাকটেরিয়াকে সহনশীল হিসেবে গ্রহণযোগ্য মনে করা হলেও ১২টি উৎস  থেকে নেওয়া কাগজের টাকার নোট ও কয়েনে আরও অনেক বেশি মাত্রায় ব্যাকটেরিয়া মিলেছে। সবচেয়ে বেশি পরিমাণ ই-কোলাই ব্যাকটেরিয়া মিলেছে মাছ, মাংস আর মুরগির  দোকান থেকে সংগ্রহ করা টাকার নোট আর কয়েনে। তিনি বলেন, ‘এসব জায়গায় বিক্রেতারা যে হাতে মাছ, মাংস, মুরগি ধরছেন এবং পরিষ্কার করছেন- আবার সেই হাতেই টাকা ধরছেন। আবার ক্রেতারাও তাদের সঙ্গেই হাত দিয়ে ধরে নোট বা কয়েন বিনিময় করছেন। আমরা দেখার চেষ্টা করছি যে- প্রতিদিন এত টাকা আমরা একে অন্যের সঙ্গে  শেয়ার করছি- তা কতটা নিরাপদ? কিন্তু এটি করতে গিয়ে পুরনো সব নোট ও কয়েনেই ক্ষতিকর মাত্রায় ই-কোলাই ও ফেকাল কলিফর্ম ব্যাকটেরিয়ার অস্তিত্ব পেয়েছি।’ গবেষকরা বলছেন, পুরনো টাকায় বেশি ব্যাকটেরিয়া পাওয়া গেছে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর