শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৬ অক্টোবর, ২০১৯ ২৩:২৮

নেত্রকোনায় ছাত্রলীগ কর্মীকে কুপিয়ে হত্যা

প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল

নেত্রকোনা প্রতিনিধি

নেত্রকোনায় ছাত্রলীগ কর্মীকে কুপিয়ে হত্যা

নেত্রকোনার দুর্গাপুরে কাউছার তালুকদার (১৯) নামে এক ছাত্রলীগকর্মীকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। মঙ্গলবার রাত  পৌনে ১১টার দিকে পৌর শহরের পুলিশ মোড়ে এ ঘটনা ঘটে। পরিবারের অভিযোগ, স্থানীয় ছাত্রদল নেতা মো. মেহেদি হাসান ওরফে সাহসের (২১) নেতৃত্বে দুর্বৃত্তরা হামলা চালিয়ে কাউছারকে হত্যা করেছে। কাউছার উপজেলার মেছুয়া বাজারের মৃত আলাল উদ্দিন তালুকদারের ছেলে ও প্রয়াত সাবেক সংসদ সদস্য মুক্তিযোদ্ধা মো. জালাল উদ্দিন তালুকদারের ভাতিজা। কাউছার দুর্গাপুর পুলিশ মোড়ে মোটরসাইকেলের গ্যারেজ চালাতেন এবং স্থানীয় ছাত্রলীগের সক্রিয় কর্মী ছিলেন। কাউছার হত্যার প্রতিবাদে গতকাল সকালে পৌর শহরে প্রতিবাদ মিছিল বের হয়। এতে স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনসহ নানা শ্রেণি-পেশার মানুষ অংশ নেয়। এ ঘটনায় পুলিশ অভিযুক্ত মেহেদি হাসানের দাদা জেলা বিএনপির সাবেক সহসভাপতি ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ইমাম হাসান, ইমাম হাসানের ছেলে মো. জুলহাস ও নাতি পরশকে আটক করেছে। মেহেদি হাসান দুর্গাপুরের মাঝিয়াল গ্রামের মঞ্জুরুল হকের ছেলে। তিনি সুসং সরকারি ডিগ্রি কলেজ শাখা ছাত্রদলের যুগ্ম সম্পাদক। স্থানীয় লোকজন ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ছাত্রলীগকর্মী কাউছার তালুকদারের সঙ্গে ছাত্রদল নেতা মেহেদি হাসানের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বিরোধ চলছিল। এর জের ধরে মঙ্গলবার রাত পৌনে ১১টার দিকে মেহেদি হাসানের নেতৃত্বে কয়েকজন কাউছারের ওপর আকস্মিক হামলা চালায়। হামলাকারীরা কাউছারকে হকিস্টিক দিয়ে বেদম মারধর করে এবং রামদা দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। এ সময় পাশের দোকানি ও পথচারীরা বাধা দিলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা কাউছারকে উদ্ধার করে দুর্গাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেলে পাঠানো হয়। তবে হাসপাতালে নেওয়ার পর চিকিৎসক কাউছারকে মৃত ঘোষণা করেন। দুর্গাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মিজানুর রহমান বলেন, নিহতের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেলের মর্গে রাখা হয়েছে। এ ঘটনায় তিনজনকে আটক করা হয়েছে। জড়িত অন্যদের আটকে অভিযান চলছে।


আপনার মন্তব্য