শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ২০ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৯ অক্টোবর, ২০১৯ ২২:৪৬

সীতাকুণ্ডের জঙ্গলে চিকিৎসকের লাশ

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম

সীতাকুণ্ডের জঙ্গলে চিকিৎসকের লাশ

সীতাকুন্ডে রাস্তার পাশে মিলল চিকিৎসকের লাশ। জেলার সীতাকুন্ডের কুমিরার ঘাটগড় এলাকায় রাস্তার পাশ থেকে উদ্ধার হওয়া লাশের পরিচয় মিলেছে। তার নাম মো. শাহ আলম (৫৮), তিনি ছোট কুমিরা এলাকার মৃত আজিজুল হক মাস্টারের ছেলে এবং পেশায় একজন চিকিৎসক। কুমিরার ইউপি চেয়ারম্যান তার পরিচয় নিশ্চিত করেছেন। গতকাল সকাল ৮টার সময় কুমিরা ঘাটঘর এলাকার বাইপাস সড়কের পাশ থেকে পুলিশ অপরিচিত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করে। জানা গেছে, প্রতিদিনের মতো রোগী দেখে রাত ৯টার দিকে চেম্বার করেকুমিরা থেকে গাড়িযোগে চট্টগ্রাম শহরে নিজ বাসায় ফিরছিলেন ডা. শাহ আলম। পুলিশ ও স্থানীয়দের ধারণা দুষ্কৃতকারীরা তাকে খুন করে সড়কের পাশে রেখে পালিয়ে যায়।

সীতাকুন্ড মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শামীম শেখ বলেন, এলাকাবাসীর কাছ থেকে খবর পেয়ে প্রথমে আমরা ধারণা করেছিলাম সড়ক দুর্ঘটনায় অজ্ঞাত ব্যক্তিটি মারা যায়। কিন্তু ঘটনাস্থলে যাওয়ার পর মনে হলো তাকে কেউ খুন করে মহাসড়কের পাশে রেখে পালিয়ে গেছে। ব্যক্তিটি দুর্বৃত্তের হাতে হত্যার শিকার হয়েছে কিনা তা জানার জন্য আমরা সিআইডিতে খবর দিলে তারা এসে লাশের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ মর্গে পাঠিয়ে দেয়।

কুমিরা ইউপি চেয়ারম্যান মোরশেদ চৌধুরী জানান, কুমিরা হাইওয়ে সড়কে পাওয়া লাশটি ডা. শাহ আলমের। যিনি দীর্ঘ ৩০ বছর সৌদি আরবের মদিনা হাসপাতালে শিশু বিভাগের প্রধান হিসেবে কর্মরত ছিলেন। এলাকার মানুষকে সেবা দেওয়ার জন্য কুমিরা বাজারে ক্লিনিক খুলেছিলেন। রাতে  চেম্বার থেকে চট্টগ্রাম শহরের বাসায় যাওয়ার পথে তাকে খুন করা হয়ে থাকতে পারে। এ ব্যাপারে ডা. শাহ আলমের নিকটাত্মীয় ব্যারিস্টার মীর হেলাল বলেন, শান্ত মানুষটা মদিনা হাসপাতালে শিশু বিভাগের প্রধান হিসেবে কর্মরত ছিলেন। হঠাৎ তার মাথায় এলো নিজ এলাকার প্রতি তার দায়বদ্ধতা আছে, তাই মদিনার চাকরি ছেড়ে বাংলাদেশে এসে কুমিরায় একটি আধুনিক শিশু সেবা ক্লিনিক প্রতিষ্ঠা করেন।


আপনার মন্তব্য