Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper

শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ২৩ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২২ অক্টোবর, ২০১৯ ২৩:৪০

সুনামগঞ্জে চিকিৎসকের ওপর হামলা

আওয়ামী লীগ নেতা কাইয়ুম চেয়ারম্যান গ্রেফতার

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি

আওয়ামী লীগ নেতা কাইয়ুম চেয়ারম্যান গ্রেফতার

সুনামগঞ্জের বিশ্বম্ভরপুরে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ঢুকে সাইদুর রহমান রাজীব নামের এক বখাটে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতার পুত্র থাপ্পড় মেরে কর্তব্যরত চিকিৎসকের কানের পর্দা ফাটিয়ে দেওয়ার ঘটনায় দায়ের করা মামলায় তার বাবাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। পুলিশের হাতে গ্রেফতার ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল কাইয়ুম বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি। গতকাল দুপুরে সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার আবদুর জহুর সেতু থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। পুলিশ জানায়, সোমবার দুপুরে দলবল নিয়ে হাসপাতালে ঢুকে চিকিৎসক আক্তারুজ্জামানের ওপর অতর্কিত হামলা চালায় রাজীব। থাপ্পড় মেরে তার কানের পর্দা ফাটিয়ে দেওয়া হয়।

এ ঘটনায় সোমবার রাতে ডা. আক্তারুজ্জামান আখন্দ বাদী হয়ে ইউপি চেয়ারম্যান ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা আবদুল কাইয়ুম, তার ছেলে সাইদুর রহমান রাজীব ও অজ্ঞাত একজনকে আসামি করে বিশ্বম্ভরপুর থানায় মামলা করেন। এ মামলায় পুলিশ আবদুল কাইয়ুমকে গ্রেফতার করলেও ছেলে সাইদুর রহমান রাজীব পলাতক রয়েছে। হাসপাতাল সূত্র জানায়, কাইয়ুম চেয়ারম্যানের বখাটে ছেলে রাজীব বিশ্বম্ভরপুর হাসপাতালে গিয়ে নার্সদের উত্ত্যক্ত করত। বিভিন্ন সময় মাদকদ্রব্য সেবন করেও হাসপাতাল এলাকায় গিয়ে মাতলামি করত। তার এমন বখাটেপনার প্রতিবাদ করেন ডা. আক্তার। এসব কারণে রাজীব আক্তারের ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে সোমবার দুপুরে তুচ্ছ বিষয় নিয়ে আবাসিক ডাক্তারের কক্ষে গিয়ে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ শুরু করে। একপর্যায়ে তার গায়ে হাত তোলে। থাপ্পড় দিয়ে তার কানের পর্দা ফাটিয়ে ফেলে। এ সময় সাধারণ জনতার প্রতিরোধের মুখে ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যাওয়ার সময় আইনগত ব্যবস্থা নিলে ডাক্তারকে দেখে নেওয়ার হুমকি দেয় রাজীব। এদিকে, উপজেলার সর্বোচ্চ পদের স্বাস্থ্য কর্মকর্তাকে বখাটে এভাবে নির্যাতন করায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সুনামগঞ্জ বিএমএ নেতৃবৃন্দ। তারা হামলাকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণে বিশাল মানববন্ধনও করেন। বিএমএ সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা ডা. আবদুল হাকিম, সাধারণ সম্পাদক ডা. নূরুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. সৈকত দাসসহ নেতৃবৃন্দ তীব্র নিন্দা জানিয়ে জড়িতদের গ্রেফতারের দাবি জানিয়েছেন। এ ব্যাপারে বিশ্বম্ভরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহবুবুর রহমান বলেন, আবাসিক চিকিৎসক ডা. আক্তারুজ্জামানের ওপর হামলার ঘটনায় ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল কাইয়ুমকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে। তিনি আরও বলেন, চেয়ারম্যানের ছেলে সাইদুর রহমান রাজীব পলাতক। তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত আছে।


আপনার মন্তব্য