শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৩ নভেম্বর, ২০১৯ ২৩:৪২

নুহাশ পল্লীতে ভক্তদের ঢল

গাজীপুর প্রতিনিধি

নুহাশ পল্লীতে ভক্তদের ঢল

জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিক ও লেখক হুমায়ূন আহমেদের ৭১তম জন্মদিনে গতকাল গাজীপুরের নুহাশ পল্লীতে শ্রদ্ধা জানাতে তার কবরের পাশে মানুষের ঢল নামে। নানা বয়সী হুমায়ূনভক্ত সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত প্রিয় লেখকের কবরে শ্রদ্ধা জানান।

এর আগে রাত ১২টা ১ মিনিটে গাজীপুর সদর উপজেলার পিরুজালী গ্রামে হুমায়ূন আহমেদের হাতে গড়া নুহাশ পল্লীতে মোমবাতি প্রজ্বালন করে পুরো নুহাশ পল্লীকে আলোকিত করেন নুহাশ পল্লীর কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। ভোর ৫টার দিকে হুমায়ূন আহমেদের স্ত্রী মেহের আফরোজ শাওন ছেলে নিষাদ ও নিনিতকে সঙ্গে নিয়ে নুহাশ পল্লীতে আসেন। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে তিনি দুই ছেলেকে নিয়ে হুমায়ূন আহমেদের কবরে পু®পস্তবক অর্পণ এবং কবরের পাশে ফাতেহা পাঠ, কবর জিয়ারত ও মোনাজাত করেন। এ সময় নুহাশ পল্লীর কর্মচারী ও অসংখ্য হুমায়ূন ভক্ত উপস্থিত ছিলেন। পরে মেহের আফরোজ শাওন সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে বলেন, ‘হুমায়ূন আহমেদের জন্ম ও মৃত্যুবার্ষিকীতে এসে সব সময় যে কথাটা আমার কাছে আসে সেটা হচ্ছে ক্যান্সার হসপিটাল। ক্যান্সারের সঙ্গে হুমায়ূন আহমেদ যখন যুদ্ধ করছিলেন তখন এ বিষয়ে একটা লেখা লিখেছিলেন। যেটা নিয়ে তখন অনেক হৈচৈ হয়েছে। এটা খুবই দুর্ভাগ্য, ক্যান্সার হসপিটালের কথাটা বারবারই আমি বলে আসছি। এটা অনেক বড় ব্যাপার। আমি প্রতিবারই বলি, আমি করতে চাই। কিন্তু আমি একা পারছি না। এখন উদ্যোগটা নেওয়াই সবচেয়ে বড় ব্যাপার।’ জিয়ারত শেষে নুহাশ পল্লীতে হোয়াইট হাউসের পাশে স্থাপিত হুমায়ূন আহমেদের ম্যুরালের সামনে আপেলতলায় হুমায়ূন আহমেদের ৭১তম জন্মদিনের কেক কাটেন তার দুই ছেলে নিষাদ ও নিনিত।

নেত্রকোনায় হিমুদের মিলনমেলা : নেত্রকোনা প্রতিনিধি জানান, কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের নিজ জেলা নেত্রকোনা শহর এদিন হিমুদের মিলনমেলায় পরিণত হয়। বেলা ১১টায় হিমু পাঠক আড্ডার উদ্যোগে শহরে একটি বর্ণাঢ্য এবং নান্দনিক আনন্দ শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রার উদ্বোধন করেন বরেণ্য বুদ্ধিজীবী শিক্ষাবিদ যতীন সরকার।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর