শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ১ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ৩১ ডিসেম্বর, ২০২০ ২৩:৪৩

কঞ্চি দিয়ে আঘাত করায় শিশু হত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক, রংপুর

চার বছরের শিশু মাইশা আক্তার প্রতিবেশী জহুরুল হক ছক্কুকে চুমু খেতে বাধা দিয়ে বাঁশের কঞ্চি দিয়ে আঘাত করে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে মাইশাকে হত্যা করে ডোবায় ফেলে দেওয়া হয়েছে। বুধবার রংপুর নগরীর কেরানীপাড়া থেকে   ছক্কুকে গ্রেফতার করেছে  পিবিআই। গতকাল দুপুরে পিবিআই রংপুরের পুলিশ সুপার এ বি এম জাকির হোসেন প্রেস ব্রিফিংয়ে জানান, শিশুটির পরিবার ও অভিযুক্ত ছক্কু (৪৫) প্রতিবেশী। মাইশা তাকে দাদু বলে ডাকত। গত সোমবার দুপুরে ছক্কু মাইশাকে মোয়া কেনার জন্য দুই টাকা দেন। শিশু মাইশা মোয়া কিনে আনলে ছক্কু  কৌশলে তাকে বাড়ির ভিতর নিয়ে যান এবং কয়েকবার চুমু দেন। এ সময় মাইশা পাশে থাকা বাঁশের কঞ্চি দিয়ে ছক্কুকে আঘাত করলে ক্ষিপ্ত হয়ে ছক্কু মাইশাকে ধাক্কা দেন। এতে বাঁশের সঙ্গে বুকে ধাক্কা লেগে ঘটনাস্থলেই মারা যায় মাইশা। এরপর বস্তায় লাশ ভরে বাড়িতে লুকিয়ে রাখা হয়। পরে রাত ১১টার দিকে মাইশার লাশ প্রতিবেশী মতিন ও শাহিনের ডোবায় ফেলে গা ঢাকা দেন ছক্কু। মঙ্গলবার সকালে পুলিশ মাইশার লাশ ডোবা থেকে উদ্ধার করে। মাইশা রংপুুুর নগরীর ১৪ নম্বর ওয়ার্ডের বড়বাড়ি সরকারপাড়া গ্রামের মিস্ত্রি মনোয়ার হোসেনের মেয়ে। ছক্কু আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।


আপনার মন্তব্য