Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা
আপলোড : ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬ ০০:১২

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে তৎপর নিষিদ্ধ হিজবুত তাওহীদ

জয়শ্রী ভাদুড়ী, রাবি

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে তৎপর নিষিদ্ধ হিজবুত তাওহীদ

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মী সংগ্রহ ও প্রচারপত্র বিলি করে সংগঠনের সক্রিয়তার জানান দিচ্ছে নিষিদ্ধ উগ্রপন্থী সংগঠন হিজবুত তাওহীদ। নতুন ভর্তি শিক্ষার্থীদের দলে ভেড়াতে ক্যাম্পাস ও নগরীর আশপাশের মেসগুলোয় শক্তিশালী নেটওয়ার্ক গড়ে তুলেছে এ সংগঠনটি। গোয়েন্দা সূত্রে জানা যায়, নিষিদ্ধ সংগঠনটি নিজেদের বার্তা ছড়িয়ে দিতে বিলি করছে প্রচারপত্র। তারা মেস, পাড়া-মহল্লায় ঘুরে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে দাওয়াত দিচ্ছে এলাকাবাসীকে। তবে তাদের প্রধান টার্গেট তরুণরা। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ক্যাম্পাসের পাশের বিনোদপুর, কাজলা, মেহেরচণ্ডী, তালাইমারী, হাদীর মোড়, সাধুর মোড়, সাহেব বাজার, সোনাদিঘীর মোড়, মালোপাড়া, সিঅ্যান্ডবি, ভদ্রার অপেক্ষাকৃত ভিড় কম এমন মেসগুলো বাছাই করছে তারা। এরপর সেখানে নিজেদের কর্মী রেখে দলে টানার চেষ্টা করছে শিক্ষার্থীদের। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন বছরের ক্লাস শুরু হয়ে যাওয়ায় এ এলাকাগুলোয় নতুন শিক্ষার্থীরা আসছেন। শুধু মেস নয়, বিশ্ববিদ্যালয়ের হলগুলোতেও সক্রিয় অবস্থানে রয়েছে হিজবুত তাওহীদ। শিক্ষার্থীরা অনেক সময় সকালে ঘুম থেকে উঠেই রুমের দরজায় বা পাশে এদের প্রচারপত্র পড়ে থাকতে দেখেন। সম্প্রতি রাবি শিক্ষকদের চেম্বার ও প্রশাসন ভবনে প্রক্টরসহ বিভিন্ন শিক্ষকের রুমের সামনে সরকার ও জঙ্গিবাদ নিয়ে বিভিন্ন মন্তব্য লিখে খাম রেখে নিজেদের অস্তিত্বের জানান দিয়েছেন এই সংগঠনের কর্মীরা। তাদের মিডিয়া শাখার সঙ্গে যোগাযোগের জন্য মোবাইল নম্বর, ই-মেইলও প্রচারপত্রের সঙ্গে বিলি করছেন।

এর আগে ১৮ নভেম্বর রাজশাহী মহানগরীর সোনাদিঘি মোড় এলাকায় হিজবুত তাওহীদের লিফলেট বিতরণের সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী মামুন ও ইসলামের ইতিহাসের তুহিনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

এ ব্যাপারে উদ্বেগ প্রকাশ করে রাবি উপাচার্য অধ্যাপক মুহম্মদ মিজানউদ্দিন বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, ‘সম্প্রতি হিজবুত তাওহীদের তত্পরতা আমাদের চোখে পড়েছে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে বিষয়টি অবহিত করেছি। তারা জানিয়েছেন এর সঙ্গে সংশ্লিষ্টদের চিহ্নিত করতে কাজ চলছে।’ নগরীর মতিহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হুমায়ুন কবিরের কাছে এ ব্যাপারে জানতে চাইলে বলেন, ‘আমাদের টিম এই গ্যাংটা ধরার জন্য কাজ করছে। ইতিমধ্যে বেশ কিছু তথ্য পেয়েছি। তাদের পরিকল্পনা নস্যাতে যথাসাধ্য চেষ্টা করছি।’


আপনার মন্তব্য