শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ৮ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৭ আগস্ট, ২০১৯ ২৩:৪৩

রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় সুষমার শেষকৃত্য

কলকাতা প্রতিনিধি

রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় সুষমার শেষকৃত্য

চোখের পানিতে শেষ বিদায়। পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় শেষকৃত্য সম্পন্ন হলো ভারতের সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও দেশটির ক্ষমতাসীন দল বিজেপির জ্যেষ্ঠ নেতা প্রয়াত সুষমা স্বরাজের। গতকাল বিকাল ৪টা নাগাদ দিল্লির লোধি রোডের মহাশ্মশানে তাঁর শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়। দিল্লি পুলিশের পক্ষে ২১ বার গানস্যালুট দেওয়া হয় তাঁকে। সুষমার শেষকৃত্যের যাবতীয় আচার পালন করেন তাঁর কন্যা বাঁসুরি কৌশল। এ সময় সর্বক্ষণ কন্যার পাশে ছিলেন পিতা স্বরাজ কৌশল।

লোধি রোডে প্রয়াত নেত্রীকে শেষ শ্রদ্ধা জানান ভারতের উপরাষ্ট্রপতি ভেঙ্কাইয়া নাইডু, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং, নারী ও শিশুকল্যাণ মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি, লোকসভার স্পিকার ওম বিড়লা, বিজেপির সিনিয়র নেতা লালকৃষ্ণ আদভানি, ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব, দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল, উপমুখ্যমন্ত্রী মণীশ সিসোদিয়া, বিজেপির জাতীয় কার্যকরী সভাপতি জে পি নাড্ডা, ভুটানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী শেরিং তোবগে প্রমুখ। এর আগে সকালে দিল্লিতে সুষমার বাসভবনে সাধারণের শ্রদ্ধাজ্ঞাপনের জন্য দেহ শায়িত রাখা হয়। এ সময় প্রয়াত নেত্রীকে শেষ শ্রদ্ধা জানান ভারতের রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ, উপরাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রীসহ মন্ত্রিসভার একাধিক সদস্য; বিজেপি সাংসদ হেমা মালিনী, মানেকা গান্ধী প্রমুখ। সুষমাকে শ্রদ্ধা জানাতে তাঁর বাসবভনে যান সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং, কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী, ইউপিএ চেয়ারপারসন সোনিয়া গান্ধী, কংগ্রেস নেতা রাজীব শুক্লা, সিপিআইএম নেত্রী বৃন্দা কারাট, সপা নেতা মুলায়ম সিং যাদব, দিগি¦জয় সিং, যোগগুরু বাবা রামদেব, নোবেলজয়ী ব্যক্তিত্ব কৈলাস সত্যার্থীসহ সমাজের সর্বস্তরের মানুষ। সুষমার বাসভবনে এসে তাঁকে শ্রদ্ধা জানান ভারতে নিযুক্ত ইসরায়েলের রাষ্ট্রদূত রন মালকা।

এদিন সকালে প্রয়াত নেত্রীর বাসভবনে তাঁকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে এসে শোকে ভেঙে পড়েন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, বিজেপির সিনিয়র নেতা লালকৃষ্ণ আদভানি ও তাঁর কন্যা প্রতিভা আদভানি। তাঁরা প্রত্যেকেই সুষমার স্বামী স্বরাজ কৌশল ও কন্যা বাঁসুরিকে সমবেদনা জানান।

উল্লেখ্য, হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মঙ্গলবার রাতে দিল্লির অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট মেডিকেল সায়েন্সেস (এইমস) হাসপাতালে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। তাঁর বয়স হয়েছিল ৬৭ বছর। তাঁর অকালমৃত্যুতে ভারতজুড়েই শোকের ছায়া নেমে আসে। তাঁর মৃত্যুতে দিল্লি ও হরিয়ানা রাজ্য সরকার দুই দিনের রাষ্ট্রীয় শোক পালনের ঘোষণা দিয়েছে।


আপনার মন্তব্য