Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ৫ ডিসেম্বর, ২০১৮ ২৩:১১

সময়টা এখন মডরিচের

ক্রীড়া ডেস্ক

সময়টা এখন মডরিচের

মেসি এবং রোনালদোকে সাম্রাজ্যচ্যুত করে ব্যালন ডি’র মুকুটটা ধারণ করেছেন লুকা মডরিচ। ক্রোয়েশিয়ান তারকার ব্যালন ডি’অর জয়ের চেয়েও মেসি-রোনালদোর গত ১০ বছরের আধিপত্য শেষ হওয়ার বিষয়টা অনেক স্থানেই প্রাধান্য পেয়েছে। অনেকে এতে খুশি হয়েছেন। আবার কেউ কেউ অসন্তুষ্ট হয়েছেন। বিশেষ করে মেসির পাঁচ নম্বরে অবস্থানকে কঠোর সমালোচনার দৃষ্টিতে দেখছেন কেউ কেউ। বার্সা কোচ ভালভার্দে তো নিজের মনের কথাটা সরাসরি বলেই দিলেন। মেসির প্রতি কী তবে অন্যায় করা হয়েছে! সেসব আপাতত আড়ালে পড়ে যাচ্ছে লুকা মডরিচের সাফল্যের নিচে। ব্যালন ডি’অরটা নিয়ে রিয়ালে ফিরতেই লুকা মডরিচের ক্লাব অধিনায়ক সার্জিও রামোস এক পাট নেচে নিয়েছেন। কেবল রামোস কেন, রিয়ালের প্রত্যেকেই এই আনন্দে মেতেছে। অবশ্য এটা স্প্যানিশ জায়ান্টদের কাছে নিয়মিত ব্যাপার হয়ে গেছে। রিয়ালের ৭ জন ফুটবলার মিলে ১১ বার ব্যালন ডি’অর জিতেছেন। অবশ্য বার্সেলোনাও ১১ বার এই পুরস্কারটা ঘরে তুলেছে। বার্সা ও রিয়ালের কাছাকাছি আর কেউ নেই। ৮ বার করে এই ট্রফি ঘরে তুলেছে জুভেন্টাস ও এসি মিলান। সেসব ইতিহাস না হয় থাক। লুকা মডরিচ কী করছেন! মেসি-রোনালদো ভিন গ্রহের ফুটবলার। সর্বকালের সেরাদের তালিকায় এই দুজনের স্থান নিশ্চিত। কেউ কেউ তো তাদেরকে সর্বকালের সেরা বলেই মত দিচ্ছেন। এদেরকে ছাড়িয়ে কেউ যে এই যুগে ব্যালন ডি’অর জিততে পারে তা ভুলেই গিয়েছিল সবাই। সেই ধারণাকে মিথ্যা প্রমাণ করলেন লুকা মডরিচ। কিন্তু তিনি নিজেই বিষয়টা বিশ্বাস করতে পারছেন না। এই কারণেই অন্তত একটা সপ্তাহ ব্যালন ডি’র ট্রফিটা পাশে নিয়েই ঘুমাতে চান তিনি। ঘুম ভাঙলেই যদি স্বপ্নটা মিথ্যে হয়ে যায়, এই ভয়ে! ক্রোয়েশিয়ান এই তারকার কাছে ব্যালন ডি’অর জেতাটা স্বপ্ন বলেই মনে হচ্ছে এখনো। তিনি অন্যদের মতো বিশ্বাস করতেন, এই ট্রফিটা মেসি আর রোনালদোর জন্যই। অন্তত এই যুগে। কিন্তু এবারের বিশ্বকাপ বদলে দিল সবকিছু।

এদিকে লুকা মডরিচের ব্যালন ডি’অর জয়ের খবরটা বেশ গুরুত্ব দিয়েই ছেপেছে ক্রোয়েশিয়ার বিভিন্ন পত্রিকা। কেবল ক্রোয়েশিয়া কেন, ইউরোপিয়ান মিডিয়ায় লুকা মডরিচের জয়ের খবরটা অন্যতম সংবাদ হিসেবে ছাপা হয়েছে। ক্রোয়েশিয়া উইকে লুকা মডরিচের ব্যালন ডি’অর জয়ের প্রতিটা মুহূর্তের খবর ছাপা হয়েছে। প্রশংসার সাগরে ভাসছেন তিনি এখন। তবে লুকা মডরিচ সুখের সাগরে ভাসতে ভাসতেও নিজেকে বেশ নিয়ন্ত্রণে রেখেছেন। একজন উদ্বাস্তু বালক থেকে বিশ্বসেরা ফুটবলার হওয়ার গৌরবটা তিনি উপভোগ করছেন বটে। তবে নিজের অতীতটা মোটেও ভুলে যাচ্ছেন না তিনি।

ভুলছেন না কোচ জিদানকেও। লুকা মডরিচ ট্রফিটা হাতে নিয়ে বলেছেন, ‘জিদানই প্রথম ব্যক্তি যিনি বিশ্বাস করেছিলেন, একদিন আমি ব্যালন ডি’অর জিততে পারি।’ জিদানের বিশ্বাসটা সত্যি প্রমাণ করলেন লুকা মডরিচ।


আপনার মন্তব্য