Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২৫ আগস্ট, ২০১৯ ২২:০৪

রাজশাহী সীমান্তে চোরাচালান বেড়েছে, তথ্য বিজিবির

নিজম্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী

রাজশাহী সীমান্তে চোরাচালান বেড়েছে, তথ্য বিজিবির
রাজশাহী সীমান্ত দিয়ে মাদকের চোরাচালান বৃদ্ধি পেয়েছে। তবে সেই চোরাচালান রোধে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) রাজশাহীর ব্যাটালিয়ানের সদস্যরা দিনরাত কাজ করে চলেছে। ইয়াবা মিয়ানমার থেকে চোরাইপথে দেশে প্রবেশ করে বলে প্রচলিত থাকলেও, বর্তমানে তা ভারতীয় সীমান্ত দিয়ে দেশে আসছে। বিজিবি ১ ব্যাটালিয়নের পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল ফেরদৌস জিয়াউদ্দিন মাহমুদ গণমাধ্যমের কর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময়ে এ তথ্য তুলে ধরেন। রবিবার বেলা সাড়ে ১১টায় বিজিবি ১ ব্যাটালিয়নের সভা কক্ষে এ মতবিনিময় অনুষ্ঠিত হয়। 
 
তিনি বলেন, রাজশাহীর বিস্তীর্ণ এলাকা জুড়ে আছে ভারতীয় সীমান্ত। যার একটি উল্লেখযোগ্য অংশ নদীপথ। চোরাকারবারীরা এই রুটে মাদক চোরাচালানে নিত্য নতুন কৌশল অবলম্বন করছে। তাদের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বিজিবি নিজেদের বিদ্যমান প্রযুক্তি ও সোর্সকে কাজে লাগিয়ে মাদকের সেই চোরাচালানগুলো উদ্ধার করছে। ফলাফল রাজশাহীর বিস্তীর্ণ সীমান্তের কোন না কোন রুটে প্রতিদিন  উদ্ধার হচ্ছে বিপুল সংখ্যক মাদকের চালান। 
 
বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) রাজশাহী ব্যাটালিয়ান-১ এর দেওয়া তথ্য মতে, ২০১৯ এর গত আট মাসে প্রায় দেড় কোটি টাকা মূল্যের মাদকদ্রব্য উদ্ধার করেছেন তারা। যার মধ্যে আছে ভারতীয় ফেন্সিডিল ২১ হাজার ১৫৪ বোতল, ইয়াবা আট হাজার ২৭৫ পিস, হেরোইন ৭৪৩ গ্রাম, গাঁজা ৬৩ কেজি, ভারতীয় মদ ৩২৪ বোতল, গ্যালিসিক্স ইঞ্জেকশন ১ হাজার ১২০ পিস।
 
বিজিবি’র ১ ব্যাটালিয়নের পরিচালক জানান, এই রুটে সাম্প্রতিক অভিযানে উদ্ধার হওয়া মাদকের পরিমাণ অন্য যেকোনো সময়ের চাইতে বেশি। যা প্রমাণ করে রাজশাহী সীমান্তে মাদকের চালান বৃদ্ধি পেয়েছে। তবে বিজিবির দেওয়া তথ্য এটাও প্রমাণ করে বাহিনীটির সফলতা। প্রতিদিন ভারতীয় বর্ডার এলাকার কোন না কোন রুটে সীমান্ত পাচার হয়ে আসে মাদক তারা উদ্ধার করেছে। যা চোরাকারবারীদের আর্থিক ক্ষতির পাশাপাশি তাদের মনোবল নষ্ট করতে ভূমিকা রাখছে।
 
বিডি প্রতিদিন/এনায়েত করিম

আপনার মন্তব্য