শিরোনাম
প্রকাশ : ২৪ অক্টোবর, ২০২০ ২০:৪০

জেলা প্রশাসকের হস্তক্ষেপে দিনাজপুরে দীর্ঘদিনের জলাবদ্ধতা থেকে মুক্তি পেল কৃষকেরা

দিনাজপুর প্রতিনিধি

জেলা প্রশাসকের হস্তক্ষেপে দিনাজপুরে দীর্ঘদিনের জলাবদ্ধতা থেকে মুক্তি পেল কৃষকেরা

দীর্ঘ ৮ বছরের জলাবদ্ধতা থেকে মুক্ত হল দিনাজপুর জেলার ফুলবাড়ীর উপজেলার ২টি ইউনিয়নের ১০টি গ্রামের দুই হাজার ১শ একর ফসলি জমি। দীর্ঘদিন ধরে সৃষ্ঠ জলাবদ্ধতা নিরসনের ব্যবস্থা করেছেন দিনাজপুরের জেলা প্রশাসক মো. মাহমুদুল আলম।

শনিবার দুপুর সাড়ে ১১টায় ফুলবাড়ী উপজেলার দৌলতপুর ইউনিয়নের বারাইপাড়া গ্রামে কোদাল হাতে ক্যানেল নির্মাণের কাজ উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক মো. মাহমুদুল আলম।

স্থানীয় জনপ্রতিনিধি উপজেলা চেয়ারম্যান আতাউর রহমান মিল্টন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নিরু শামসুনাহার বলেন, দীর্ঘ ৮ বছর ধরে ফুলবাড়ী উপজেলার খয়েরবাড়ি-দৌলতপুর ইউনিয়নের আশ পাশের ১০টি গ্রামের প্রায় ৫ হাজার বিঘা জমিতে জলাবদ্ধতা থাকার কারণে ওই জমিগুলো অনাবাদী হয়ে পড়ে থাকে। দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন মহলে কৃষকরা দাবি জানিয়ে আসলেও কোন উপকার পায়নি। সর্বশেষ দিনাজপুর জেলা প্রশাসক এর দৃষ্টিতে আসলে তিনি এই উদ্যোগ গ্রহন করেন।  

এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক মো. মাহমুদুল আলম বলেন, ফুলবাড়ী উপজেলার খয়েরবাড়ী ও দৌলতপুর এলাকার প্রায় ২ হাজার একশ একর জমিতে দীর্ঘদিন ধরে জলাবদ্ধতা থাকার কারণে কৃষকরা ফসল ফলানো থেকে বঞ্চিত ছিল। এলাকাবাসী বিষয়টি জানালে তিনি সরেজিমনে এলাকা পরিদর্শন করেন এবং কয়েকশ পরিবার যাতে তাদের কৃষি জমিতে ফসল ফলাতে পারে সেজন্য ৩০০ মিটার পরিমান ক্যানেল নির্মাণ করার পরিকল্পনা গ্রহণ করেন। এরই প্রেক্ষিতেই শনিবার এলাকাবাসীর সাথে একাত্বতা ঘোষণা করে স্বেচ্ছাশ্রমে ক্যানেল খননের কাজ শুরু করা হয়। ক্যানেল খননের শেষ না হওয়া পর্যন্ত পুরো বিষয়টি তিনি নিজেই তদারকি করবেন বলেও জানান। এছাড়াও ক্যানেল খননের ফলে যেসব কৃষকের ক্ষতি হয়েছে তারাও জমি এবং ফসলের ক্ষতিপূরণ পাবেন বলেও নিশ্চিত করেন তিনি। 

এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ফুলবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা খায়রুল আলম সুমন, সদ্য যোগদাকৃত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রিয়াজ উদ্দিন, সহকারী কমিশনার ভূমি কানিজ আফরোজ, উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নিরু সামসুন্নাহারসহ উপজেলার ৭টি ইউনিয়ন চেয়ারম্যান। ক্যানেল খননের কাজে এগিয়ে আসেন ফুলবাড়ী উপজেলার শিক্ষক, সুধিজন, কৃষক, কৃষাণী, স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীসহ কয়েক হাজার মানুষ।

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন

BP

আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর