Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ১৭ মে, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৬ মে, ২০১৯ ২৩:৩৬

অন্য ছাত্রসংসদের জন্য ডাকসু নেতাদের সোচ্চার হতে হবে

-মুশতাক হোসেন

অন্য ছাত্রসংসদের জন্য ডাকসু নেতাদের সোচ্চার হতে হবে

ডাকসুর সাবেক সাধারণ সম্পাদক মুশতাক হোসেন বলেছেন, অন্য বিশ্ববিদ্যালয়-কলেজে ছাত্র সংসদ নির্বাচনের দাবিতে সাধারণ ছাত্র-ছাত্রীদের এগিয়ে আসতে হবে। ডাকসু নেতাদেরও এ দাবিতে সোচ্চার হতে হবে। অন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যেন দ্রুত ছাত্র সংসদ নির্বাচন হয় সে দাবিতে ভূমিকা রাখতে হবে। গতকাল বাংলাদেশ প্রতিদিনের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।

মুশতাক হোসেন বলেন, শুধু ডাকসু নির্বাচন হলে হবে না। সব কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে অবিলম্বে ছাত্র সংসদ নির্বাচন হতে হবে। ছাত্র-ছাত্রীদের স্বার্থে অধিকার আদায়ের জন্য সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছাত্র সংসদ থাকা উচিত। ডাকসু নির্বাচনের পর দেখা যাচ্ছে সরকারও খুশি নয়, বিরোধীরাও খুশি নয়। নির্বাচনের ফলাফল নিয়ে কেউ খুশি নয়। আর এর জন্য বলি হচ্ছে সাধারণ শিক্ষার্থীরা। ডাকসু নির্বাচনের মাধ্যমে এমন এক পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে, যাতে কেউ অন্য বিশ্ববিদ্যালয়, কলেজে নির্বাচনের দিকে না আসে। যারা নির্বাচন চায়নি তারা চেষ্টা করেছে ডাকসু নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে। তারা ব্যর্থ হয়নি। যারা ডাকসুর দাবিতে সরব ছিল তারাও আজ চুপ হয়ে আছে। আজ মনে হচ্ছে, হাই কোর্টের চাপ না থাকলে ডাকসু নির্বাচন হতো কি না সন্দেহ। তিনি বলেন, বিভিন্ন কারণে দীর্ঘ ২৮ বছর বন্ধ ছিল ডাকসু নির্বাচন। কেউ কেউ চায়নি এ নির্বাচন। অন্যদিকে বিভিন্ন ছাত্র সংগঠন সোচ্চার ছিল এ নির্বাচনের দাবিতে। নির্বাচন হওয়ার পর এরাও চুপ হয়ে গেছে। যারা নির্বাচন চায়নি তাদের কৌশল সফল হয়েছে। এদের কৌশল ব্যর্থ করতেই সাধারণ ছাত্র-ছাত্রীদের এগিয়ে আসতে হবে। সাধারণ ছাত্র-ছাত্রীদের অধিকার আদায়ের জন্যই অন্য ছাত্র সংসদ নির্বাচনগুলোও হওয়া দরকার।

মুশতাক হোসেন বলেন, ছাত্র সংসদ ছাড়াই বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন দীর্ঘদিন ধরে অভ্যস্ত হয়ে গেছে। তারা তাদের স্থিতাবস্থা ভাঙতে চায় না। কারণ ছাত্র সংসদ না থাকায় বিশ্ববিদ্যালয় বা কলেজ কর্তৃপক্ষের কোনো সমস্যা হচ্ছে না। সমস্যা হচ্ছে সাধারণ ছাত্র-ছাত্রীদের। তারা একটি মৌলিক অধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। তাই কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ছাত্র সংসদের দাবিতে ছাত্র-ছাত্রীদের আগে এগিয়ে আসতে হবে।


আপনার মন্তব্য