শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১২ ডিসেম্বর, ২০১৯ ২৩:৫১

বাণিজ্যমন্ত্রীর হুঁশিয়ারি

সিন্ডিকেট করলে সিটিসেলের মতো হারিয়ে যাবেন

নিজস্ব প্রতিবেদক

অসাধু ব্যবসায়ীদের হুঁশিয়ারি দিয়ে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, বাজারে অশুভ প্রতিযোগিতা করলে সিটিসেলের (মোবাইল কোম্পানি) মতো হারিয়ে যাবেন। গতকাল রাজধানীর টিসিবি ভবনে প্রতিযোগিতা কমিশন আয়োজিত এক সেমিনারে তিনি এ হুঁশিয়ারি দেন। মন্ত্রী বলেন, দেশে প্রথম যখন মোবাইল ফোন এলো তখন সিটিসেল একচেটিয়া ব্যবসা করে অনেক বেশি দামে বিক্রি করেছে। আজ তারা হারিয়ে গেছে। 

দেশে পিয়াজ সংকটকে কাজে লাগিয়ে ব্যবসায়ীরা সুযোগ নিয়েছিল মন্তব্য করে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ২৯ সেপ্টেম্বর ভারত নিষেধাজ্ঞা জারির পরপরই ব্যবসায়ীরা পিয়াজের দাম দ্বিগুণ করে ফেলে, অথচ এই পিয়াজ আগে কেনা ছিল। ‘ব্যবসায়ী ও ক্রেতার স্বার্থ সংরক্ষণে বাজারে সুষ্ঠু প্রতিযোগিতা নিশ্চিতকরণ’ শীর্ষক সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিন। প্রতিযোগিতা কমিশনের চেয়ারম্যান মো. মফিজুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে পরিকল্পনা কমিশনের সাধারণ অর্থনীতি বিভাগের সদস্য শামসুল আলম, বাণিজ্য সচিব ড. মো. জাফর উদ্দীন, এফবিসিসিআই সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম এবং কমিশনের সদস্য মো. আবদুর রউফ বক্তব্য দেন। সেমিনারে শামসুল আলম বলেন, সরকারের কাছে থাকা তথ্যের বিভ্রান্তির কারণেই পিয়াজ সংকট দেখা দিয়েছে। সরকার বলছে দেশে পিয়াজের উৎপাদন ২২ থেকে ২৩ লাখ টন, এটি ১৮ লাখ টনের বেশি হবে না। আর ঘাটতি বেশি হওয়ার কারণেই সংকটের কারণে পিয়াজের দাম বেড়েছে বলে মনে করেন তিনি। তিনি বলেন, পিয়াজের আমদানিকারক ২৫০ থেকে ৩২০ জন। এত  লোক মিলে সিন্ডিকেট করা যায় না।

তিনি সরকারকে শক্ত রেফারির মতো হাল ধরার পরামর্শ দেন। বাণিজ্য সচিব ড. মো. জাফর উদ্দীন বলেন, বাজারে সিন্ডিকেট ও মজুদদারি বন্ধ করতে প্রতিযোগিতা কমিশনকে আইনি ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে। শুধু বাজার মনোপলির দিকে দৃষ্টি না দিয়ে ব্যবসায়ীদের সমস্যাগুলো সমাধানেও নজর দেওয়ার জন্য প্রতিযোগিতা কমিশনের কাজ করা উচিত বলে মনে করেন এফবিসিসিআই সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর