শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২ এপ্রিল, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২ এপ্রিল, ২০২০ ০০:২১

কৃষি সংবাদ

ব্লাস্ট রোগ প্রতিরোধী বারি গম-৩৩ জনপ্রিয় হয়ে উঠছে

রিয়াজুল ইসলাম, দিনাজপুর

ব্লাস্ট রোগ প্রতিরোধী বারি গম-৩৩ জনপ্রিয় হয়ে উঠছে

ব্লাস্ট রোগ প্রতিরোধী ও জিংক-সমৃদ্ধ বারি গম-৩৩ কৃষকের কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। আবহাওয়া উপযোগী, তাপ সহনশীল, স্বল্প খরচে ও স্বল্প সময়ে অধিক লাভবান এ গমের বীজ বপনের পর বিঘাপ্রতি ১৮ মণ ফলন হয়। তাই বাংলাদেশের আবহাওয়া অনুকূলে এ জাতের গম চাষ দিন দিন বেড়েই চলেছে। বাংলাদেশে গতবারের চেয়ে এবার কমপক্ষে ৩ লাখ টন গম বেশি উৎপাদন হবে বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা। মানুষের চাহিদার কথা মাথায় রেখে বাংলাদেশ গম ও ভুট্টা গবেষণা ইনস্টিটিউট দেশের আবহাওয়া উপযোগী ও উচ্চফলনশীল জাতের গম বীজ উদ্ভাবনে গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছে। এ জাতটি ব্লাস্ট রোগ প্রতিরোধী ও জিংক-সমৃদ্ধ হওয়ায় দেশের দক্ষিণ ও পশ্চিমাঞ্চলের ব্লাস্টপ্রবণ এলাকায় বিশেষভাবে চাষ উপযোগী বলে জানান বাংলাদেশ গম ও ভুট্টা গবেষণা ইনস্টিটিউট, দিনাজপুরের মহাপরিচালক ড. মো. এছরাইল হোসেন। সরেজমিন দেখা যায়, করোনাভাইরাসের কারণে সবাই যখন ঘরমুখী, তখন দেশের মানুষের খাদ্যের কথা চিন্তা করে এ প্রতিষ্ঠানের সবাই কাজ করছেন। বাংলাদেশ গম ও ভুট্টা গবেষণা ইনস্টিটিউট-দিনাজপুরের নিজস্ব খামার প্লটে উচ্চফলনশীল বারি গম-৩৩ জাতের বীজের জন্য হারভেস্ট চলছে। আগামী মওসুমের জন্য এ বীজ সংরক্ষণের প্রক্রিয়া চলছে। এবার সারা দেশে ২০২০টি প্রদর্শনী প্লট করা হয়েছে বলে জানান প্রতিষ্ঠানের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মো. নুর আলম। তিনি জানান, নভেম্বরের ১৫ থেকে ৩০ তারিখ পর্যন্ত বীজ বপনের সময়। বপনের ১১০-১১৫ দিনের মধ্যে ফলন পাওয়া যায়। বাংলাদেশ গম ও ভুট্টা গবেষণা ইনস্টিটিউট, দিনাজপুরের মহাপরিচালক ড. মো. এছরাইল হোসেন জানান, গতবার এ জাতের গম সারা দেশে ৩ লাখ ৫২৮ হেক্টর জমিতে চাষ করে উৎপাদন হয়েছে প্রায় সাড়ে ১১ লাখ টন গম। এবার সারা দেশে ৩ লাখ ৪১ হাজার হেক্টর জমিতে গম চাষ হয়েছে। আশা করা যাচ্ছে, এবার ১৪ লাখ টন গম উৎপাদন হবে।

গতবারের চেয়ে এবার বেশি ফলন হবে আড়াই লাখ টন। দেশে গমের চাহিদা ৭০ লাখ টন। যে হারে উচ্চফলনশীল গমের চাষ বাড়ছে, তাতে অদূর ভবিষ্যতে দেশের চাহিদা পূরণ সম্ভব হবে। এ লক্ষ্যে কৃষি মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায় গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছেন দেশের বিজ্ঞানীরা। এ প্রতিষ্ঠান ইতিমধ্যে ৩৪টি গমের জাত উদ্ভাবন করেছে। এখন উচ্চফলনশীল বারি গম-৩৩ জাতটি কৃষকের কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। আগামীতে আরও উচ্চফলনশীল গমের জাত উদ্ভাবনের কাজ করছে প্রতিষ্ঠানটি।


আপনার মন্তব্য