শিরোনাম
প্রকাশ : ১৪ জানুয়ারি, ২০২০ ২২:৩৩

অবশেষে সিসিকের বোধোদয়

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিলেট

অবশেষে সিসিকের বোধোদয়

পূর্ব ঘোষণা ছাড়া অপরিকল্পিতভাবে সড়কের উপরের কালভার্ট ভেঙে জনদুর্ভোগ সৃষ্টির পর বোধোদয় হয়েছে সিলেট সিটি করপোরেশনের (সিসিক)। মঙ্গলবার নাইওরপুল-জিন্দাবাজার সড়ক ব্যবহারকারীদের বিকল্প সড়ক ব্যবহারের অনুরোধ জানিয়ে জারি করা হয়েছে গণবিজ্ঞপ্তি। একই সাথে ওই সড়কের পুরনো আরও দুটি কালভার্ট ভেঙে নতুন করে করারও ঘোষণা দিয়েছে সিসিক।

গত শনিবার রাতে কোনো রকমের পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই গুরুত্বপূর্ণ নাইওরপুল-জিন্দাবাজার সড়কের দুটি কালভার্ট ভেঙে ফেলে সিটি করপোরেশন। নতুন করে নির্মাণের লক্ষ্যে ওই রাতে বারুতখানা ও পশ্চিম নাইওরপুলে কালভার্ট দুটি ভাঙ্গা হয়। সকালে ওই রাস্তা দিয়ে চলাচলকারীরা পড়েন বিপাকে। পূর্ব ঘোষণা ছাড়া সিটি করপোরেশনের এমন কাণ্ডে নগরবাসীর মাঝে ক্ষোভের সঞ্চার হয়। অনেকে এটিকে সিটি করপোরেশনের ‘অপরিকল্পিত’ ও ‘বেপেরোয়া’ কাণ্ড বলেও অভিহিত করেন। 

নগরবাসীর ক্ষোভের মুখে মঙ্গলবার সিটি করপোরেশন একটি গণবিজ্ঞপ্তি জারি করে। জনদুভোর্গের ওই বিজ্ঞপ্তিতে সিটি করপোরেশন দুঃখপ্রকাশও করে। তবে দুদিন আগেই ওই রাস্তায় যান চলাচল বন্ধ হয়ে গেলেও সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে গণবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয় মঙ্গলবার থেকে নাইওরপুল-জিন্দাবাজার সড়কে যানচলাচল বন্ধ থাকবে।

সিলেট সিটি করপোরেশনের প্রধান প্রকৌশলী নূর আজিজুর রহমান জানান, ‘কালভার্ট ভাঙ্গার আগে গণবিজ্ঞপ্তিটি দেওয়ার কথা মনে ছিল না। পরে জনদুর্ভোগের বিষয়টি টের পেয়ে বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়েছে।’ 

কালভার্ট পুনঃনির্মাণে দেড় মাসের মতো সময় লাগতে পারে উল্লেখ করে নূর আজিজুর রহমান বলেন, ‘নগরীর উন্নয়নের স্বার্থে নগরবাসীকে এই সময় পর্যন্ত বিকল্প রাস্তা ব্যবহার করতে হবে’।

বিডি প্রতিদিন/এনায়েত করিম


আপনার মন্তব্য

close