Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২৩ জুলাই, ২০১৯ ২২:৫৭

১২ হাজার টাকায় নাতনিকে বিক্রি করলেন নানি! অতঃপর...

নরসিংদী প্রতিনিধি:

১২ হাজার টাকায় নাতনিকে বিক্রি করলেন নানি! অতঃপর...

নরসিংদীর পলাশে সাড়ে তিন বছরের নাতনিকে বিক্রি করার অভিযোগে তার নানিকে আটক করা হয়েছে। পরে নানির দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে শিশুটিকে গাজীপুর জেলার কাপাসিয়ার দক্ষিণ গাও গ্রাম থেকে উদ্ধার করে পলাশ থানা পুলিশ। শিশু তাওহিদ গাজীপুরের আলাউদ্দিনের ছেলে। 

পুলিশ জানায়, পলাশ উপজেলার ঘোড়াশাল পৌর এলাকার বালুচর গ্রামের নান্নু মিয়ার মেয়ে রোকসানা গত তিন মাস আগে গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলার জামালপুর গ্রামের হতদরিদ্র আলাউদ্দিনের কাছ থেকে তাওহিদ নামের ওই শিশুটিকে পালক আনে। পরে গত রমজানের ঈদের পর শিশু তাওহিদকে রোকসানা তার মা-বাবার কাছে রেখে সাতক্ষীরা তার স্বামীর বাড়িতে চলে যায়। রোকসানার মা-বাবা শিশুটিকে লালন-পালন করতে থাকে। এদিকে গত রবিবার সন্ধ্যায় রাকসানার বাবা নান্নু মিয়া শিশু তাওহিদকে পাওয়া যাচ্ছেনা উল্লেখ করে পলাশ থানায় একটি সাধারণ ডাইরী করে। একই সাথে দিনভর এলাকা জুড়ে মাইকিং করানো হয়। 

পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদে নানি রানু বেগম (৫২) এর আচরণ সন্দেহ হয়। পরে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাকে আটক করে। দীর্ঘক্ষণ জিজ্ঞাসাবাদের পর রানু বেগম শিশু তাওহিদকে ১২ হাজার টাকায় গাজীপুরের কাপাসিয়ার দক্ষিণ গাও গ্রামের নি:সন্তান বাবুল মিয়ার কাছে বিক্রি করে দেওয়ার কথা স্বীকার করে। এরই সূত্র ধরে মঙ্গলবার সকালে পলাশ থানা পুলিশ শিশুটিকে উদ্ধার করে। 

এ ব্যাপারে পলাশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মো. নাসির উদ্দিন জানান, শিশু তাওহিদকে উদ্ধার করা হয়েছে। অভিযুক্ত রানু বেগমের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। 


বিডি প্রতিদিন/হিমেল


আপনার মন্তব্য