শিরোনাম
প্রকাশ : ২ মার্চ, ২০২১ ১৭:৪৮
আপডেট : ২ মার্চ, ২০২১ ১৭:৫৫
প্রিন্ট করুন printer

মামলা তুলে না নেওয়ায় হামলা, বৃদ্ধা হাসপাতালে

শরীয়তপুর প্রতিনিধি

মামলা তুলে না নেওয়ায় হামলা, বৃদ্ধা হাসপাতালে
হাসপাতালে আহত বৃদ্ধা।

শরীয়তপুরের জাজিরায় আদালতে চলমান মামলা তুলে না নেওয়ায় পুনরায় হামলা চালিয়ে এক বৃদ্ধাকে জখম করার অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে। এসময় বসতঘর ভাঙচুর ও মালামাল লুট করার অভিযোগ করেছে ভুক্তভোগী পরিবার। এ বিষয়ে জাজিরা থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

স্থানীয়রা ও ভুক্তভোগীরা জানায়, দীর্ঘদিন যাবৎ জায়গা নিয়ে উপজেলার মুলনা ইউনিয়নের বোয়ালিয়া গ্রামে তোতা মিয়ার সাথে সোবাহান ভূইয়ার বিরোধ চলে আসছে। ২০১৯ সালের ১ নভেম্বর জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে তোতা মিয়া সোবাহানের মা ছায়রন নেছাকে মারধর করে বলে অভিযোগ রয়েছে। এ ঘটনায় ছায়রন নেছা বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলাটি এখনো শরীয়তপুর আদালতে চলমান রয়েছে।

সম্প্রতি ওই মামলা প্রত্যাহারের জন্য ছায়রন নেছাকে বারবার চাপ প্রয়োগ করছিলেন আসামিরা। ছায়রন নেছা মামলা প্রত্যাহারে রাজি না হওয়ায় ভোরে কয়েকজন দুর্বৃত্ত তার বাড়িতে ঢুকে বসতঘরে হামলা চালায়। একটি বসতঘর ভেঙে গুড়িয়ে দেয় তারা এবং ভেতরে থাকা আসবাবপত্র লুট করে নেয় বলে অভিযোগ উঠেছে। এসময় ছায়রন নেছা মারাত্মক আহত হয়। তাকে জাজিরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় ছায়রন নেছার পত্রবধূ জাজিরা থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

সোবাহান ভূইয়ার বোন প্রতিপক্ষ কহিনুর বেগম জানান, আমাদের জায়গায় তারা দীর্ঘদিন যাবৎ ঘর তুলে রেখেছে। আমরা তাদের ঘর ভেঙে দিয়েছি। কিন্তু ছায়রন নেছার ওপরে কোনো হামলা করা হয়নি। তিনি এখন মিথ্যা অভিযোগ করছেন।

জাজিরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজহারুল ইসলাম বলেন, এ বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। অপরাধীদের অবশ্যই আইনের আওতায় আনা হবে।

বিডি প্রতিদিন/এমআই


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর