Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ১০ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৯ মার্চ, ২০১৯ ২৩:০৮

নদী দখল সঠিকভাবে উচ্ছেদ করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক

নদী দখল সঠিকভাবে উচ্ছেদ করুন

বিশিষ্ট সাংবাদিক ও কলামিস্ট সৈয়দ আবুল মকসুদ বলেছেন, নদীকে দখল ও দূষণমুক্ত করতে সরকার অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের যে অভিযান পরিচালনা করছে তাকে আমরা অভিনন্দন জানাই। তবে বুড়িগঙ্গায় অবৈধ স্থাপনা ভাঙার ক্ষেত্রে কোনো কোনো জায়গায় দখলদারদের সঙ্গে আপস করা হয়েছে। আমাদের দাবি, যথাযথ পন্থায় সঠিক আইন মেনে ছোট-বড় না দেখে নদীর জায়গা দ্রুত নদীকে ফিরিয়ে দেওয়া হোক।  বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলনের (বাপা) এক প্রতিনিধি দল গতকাল বুড়িগঙ্গা নদীর দুই পাড়ের উচ্ছেদ কার্যক্রম সরেজমিন পরিদর্শনকালে তিনি এসব কথা বলেন। প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন বাপার সহ-সভাপতি সৈয়দ আবুল মকসুদ। প্রতিনিধি দলে ছিলেন বাপার সাধারণ সম্পাদক ডা. মো. আবদুল মতিন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মহিদুল হক খান, পুরান ঢাকার বাসিন্দা ও বাপার সদস্য জাভেদ জাহান, ইমরান হোসেন, লালন গবেষক সরদার হীরক রাজা, গ্রিন ভয়েসের সমন্বয়ক আবদুস সাত্তার প্রমুখ। ডা. মো. আবদুল মতিন বলেন, সরকারি টাস্কফোর্স গণমাধ্যমে বলেছেন, তারা নদী রক্ষাবিষয়ক হাইকোর্টের রায় মেনে কাজ করছেন। কিন্তু দেখা যায়, অধিকাংশ স্থানেই উচ্চ আদালতের রায় হুবহু প্রতিপালিত হয়নি, বরং তারা ভুলভাবে স্থাপিত নদীর সীমানা খুঁটিকে ভিত্তি করে তাদের কার্যক্রম পরিচালনা করছেন। অধিকাংশ স্থানে নদীতট (ফোর শোর) রক্ষা করা হয়েছে, ১৫০ ফুট প্রস্থ ‘নদীপাড়’ রক্ষা করা হয়নি। দুঃখজনক বিষয় হচ্ছে আদি বুড়িগঙ্গার ওপরে অসংখ্য বেআইনি দখলদারকে কিছুই করা হয়নি। আমরা বুড়িগঙ্গা নদীর সঠিক পুনরুদ্ধার নিশ্চিতকরণে হাইকোর্টের রায়ের যথাযথ, পূর্ণাঙ্গ ও নির্মোহ বাস্তবায়ন দাবি করছি। প্রতিনিধি দলটি সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনাল থেকে যাত্রা শুরু করে বসিলা খেয়াঘাট (ব্রিজের নিচে) মোহাম্মদপুর পর্যন্ত নদীর বর্তমান অবস্থা ও সরকারি কার্যক্রম পরিদর্শন করেন।


আপনার মন্তব্য