শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১০ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৯ অক্টোবর, ২০১৯ ২৩:৩২

বিশ্ববিদ্যালয় অপরাধ ক্ষেত্রে পরিণত

নিজস্ব প্রতিবেদক

বিশ্ববিদ্যালয় অপরাধ ক্ষেত্রে পরিণত
সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী

প্রখ্যাত শিক্ষাবিদ, ইমেরিটাস অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী বলেছেন, বিশ্ববিদ্যালয় গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠান। অথচ বিশ্ববিদ্যালয় এখন অপরাধ ক্ষেত্রে পরিণত হয়েছে। আগে তো দুর্নীতি, যৌন হয়রানির ঘটনা ছিল। এবার নৃশংসভাবে ছাত্রকে হত্যা করা হয়েছে। আবরার কোনো অন্যায় করেনি, শুধু ভিন্ন মত প্রকাশের জেরে তাকে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়েছে। বাংলাদেশ প্রতিদিনকে গতকাল তিনি আরও বলেন, শুধু ভিন্ন মত প্রকাশ করায় একজন শিক্ষার্থীকে এভাবে পিটিয়ে মেরে ফেলা যায় না। আবরার হত্যাকা- বিশ্ববিদ্যালয়ে মত প্রকাশের স্বাধীনতার ওপর আক্রমণ। এটা অপ্রত্যাশিত, হতাশার এবং দুঃখজনক। অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা জ্ঞানচর্চা করবে, মত প্রকাশ করবে, একে অন্যের মতকে শ্রদ্ধা করবে। শিক্ষার্থীরা সহনশীলতা শিখবে। কিন্তু এখন বিশ্ববিদ্যালয়গুলো গণতান্ত্রিক, সাংস্কৃতিক বৈশিষ্ট্য হারাতে বসেছে। যে দল যখন ক্ষমতায় থাকে তাদের অনুগত ছাত্রসংগঠনের আধিপত্য তৈরি হয় ক্যাম্পাসে। তারা শিক্ষার্থীদের মত প্রকাশে কণ্ঠরোধ করে। এবার বিশ্ববিদ্যালয়ের হলে শিক্ষার্থীকে নৃশংসভাবে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এর বড় কারণ বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ছাত্র সংসদ নেই। ছাত্র সংসদ থাকলে ভিন্ন মত থাকে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে গণতন্ত্র, সংস্কৃতির চর্চা হয়। ২৮ বছর ধরে দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ছাত্র সংসদ নির্বাচন নেই। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ নির্বাচন হয়েছে ত্রুটিপূর্ণ। মত প্রকাশের স্বাধীনতা না থাকলে তা বিশ্ববিদ্যালয় হবে না। বিশিষ্ট এই শিক্ষক আরও বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক সমিতির গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা থাকা উচিত। শুধু ঘটনা ঘটার পরে বিবৃতি দিয়ে দায়িত্ব শেষ করা যাবে না। শিক্ষার্থীদের ভালো-মন্দ দেখাসহ নিরাপত্তার বিষয়েও তাদের সজাগ দৃষ্টি থাকতে হবে। সরকারকেও শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার বিষয়টি দেখতে হবে।


আপনার মন্তব্য

close