শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ২৯ মে, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৯ মে, ২০২০ ০০:০১

নিউজিল্যান্ড করোনা মুক্ত, লকডাউন খুলে যাচ্ছে দেশে দেশে

যুক্তরাষ্ট্রে ১ লাখ ছাড়াল মৃত্যু

প্রতিদিন ডেস্ক

করোনাভাইরাসের কারণে বিশ্বজুড়ে স্তব্ধ হয়ে থাকা অর্থনীতিকে রক্ষা করতে বিভিন্ন দেশে শুরু হয়েছে লকডাউন তুলে নেওয়া। এ লক্ষ্যে এরই মধ্যে অনেক দেশ নানামুখী প্রস্তুতি নিয়েছে।

এদিকে ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্যানুযায়ী, গত বুধবার পর্যন্ত বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা ছিল তিন লাখ ৫৮ হাজার এবং আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৫৮ লাখ ২০ হাজার। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু ও আক্রান্ত দেশের তালিকায় ছিল যুক্তরাষ্ট্রে এক লাখ দুই হাজার ও ১৭ লাখ ৪৭ হাজার। এরপরের ধাপে যুক্তরাজ্যে মৃত্যু সাড়ে  ৩৭ হাজার ও আক্রান্ত দুই লাখ ৬৭ হাজার, ইতালিতে মৃত্যু ৩৩ হাজার ও আক্রান্ত দুই লাখ ৩১ হাজার, ফ্রান্সে মৃত্যু সাড়ে ২৮ হাজার ও আক্রান্ত এক লাখ ৮৩ হাজার, স্পেনে মৃত্যু ২৭ হাজার ১১৮ ও আক্রান্ত দুই লাখ ৮৪ হাজার।

করোনামুক্ত নিউজিল্যান্ড : নিউজিল্যান্ডে হাসপাতালে থাকা করোনা আক্রান্ত শেষ রোগীটিও সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন গত বুধবার। এই প্রথম দেশটির কোন হাসপাতালে একজনও করোনা রোগী নেই। এদিন নিউজিল্যান্ডের স্বাস্থ্য বিভাগের পক্ষ থেকে এ তথ্য জানানো হয়। কলকাতায় চালু দূরপাল্লার বাস : গত বুধবার থেকে কলকাতায় চালু হয়েছে দূরপাল্লার বাস সার্ভিস। গতকাল থেকে কলকাতা ও বাগডোগরা বিমানবন্দর থেকে অভ্যন্তরীণ আকাশপথে উড়োজাহাজ চলাচল শুরু হয়েছে। এদিকে কেন্দ্রীয় সরকার ও পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকার লকডাউনের বিভিন্ন ক্ষেত্রে কিছু ছাড় দিয়েছে। সৌদিতে কারফিউ তুলে নেওয়া হচ্ছে : সৌদি আরবে করোনাভাইরাসের কারণে জারি করা কারফিউ ধীরে ধীরে তুলে নেওয়া হবে। ৩১ মে থেকে ২০ জুনের মধ্যে খুলে দেওয়া হবে মসজিদগুলোও। সীমান্ত খুলে দিচ্ছে ইউরোপসহ বিভিন্ন দেশ : করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হওয়ায় সীমান্তে বিদ্যমান কড়াকড়ি শিথিলের চিন্তা-ভাবনা করছে বিভিন্ন দেশ। এরই মধ্যে লুক্সেমবার্গ সীমান্তে কড়াকড়ি কিছুটা শিথিল করেছে জার্মানি। ডেনমার্ক, হাঙ্গেরিসহ আরও কয়েকটি দেশ সীমান্ত খুলে দেওয়ার পথে এগোচ্ছে। জার্মানিও আসছে ১৫ জুন থেকে ইইউসহ যুক্তরাজ্যের নাগরিকদের জন্য সীমান্ত খুলে দেওয়ার কথা ভাবছে। ছন্দে ফিরছে চিনের নাইট ক্লাবও : করোনাভাইরাসের ধাক্কা অনেকটাই কাটিয়ে উঠে চেনা ছন্দে ফিরছে চীন। আস্তে আস্তে স্বাভাবিক জনজীবনে ফেরার চেষ্টা করছেন মানুষ। খুলছে নাইট ক্লাবের মতো জায়গাগুলোও।

 

স্বাস্থ্য বিভাগের মহাপরিচালক ডা. অ্যাশলে ব্লুমফিল্ড এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ‘বর্তমানে দেশের কোনো হাসপাতালে কোভিড-১৯ আক্রান্ত আর একজন রোগীও নেই। সর্বশেষ মিডলমোর হাসপাতাল থেকে একজন রোগী সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। বর্তমানে দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২১ জন, তারা বাড়িতেই চিকিৎসা নিচ্ছেন।’  

ডেইলি মেইলের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, গতকাল ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে কোনো  করোনা রোগীর মৃত্যু হয়নি। এছাড়াও গত পাঁচ দিনে কোনো রোগী নতুন করে আক্রান্ত হননি। এদিকে টানা ২ মাস লকডাউনে থাকার পর ১৪ মে থেকে রেস্তোরাঁ, দোকানপাট ও সিনেমা হলসহ সমাজের প্রায় সবকিছুই খুলে দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আরডেন।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর