শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ১ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ২৩:১৭

সংঘাত-বর্জনে পৌর ভোট

নিহত ১, ককটেল বিস্ফোরণ, বিভিন্ন পৌরসভায় ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া । উৎসবমুখর ভোট : ইসি

গোলাম রাব্বানী

সংঘাত-বর্জনে পৌর ভোট
জামালপুর পৌর নির্বাচনে দুই কাউন্সিলর সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার পর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে র‌্যাবের লাঠিচার্জ -বাংলাদেশ প্রতিদিন

বিক্ষিপ্ত সংঘাত-সংঘর্ষ ও বর্জনের মধ্য দিয়ে পঞ্চম ধাপে ২৯ পৌরসভায় ভোট গ্রহণ শেষ হয়েছে। সৈয়দপুর পৌরসভায় নির্বাচনী সহিংসতায় একজন নিহত হয়েছেন। রাজশাহীর চারঘাটে একটি ভোট কেন্দ্রে ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনাও ঘটেছে বিভিন্ন পৌরসভায়। এ ছাড়া বিভিন্ন পৌরসভায় এজেন্টদের ঢুকতে না দেওয়া, গোপন কক্ষ নিয়ন্ত্রণে নেওয়া ও প্রশাসনের অসহযোগিতার অভিযোগ তুলে নির্বাচন বর্জন করেছেন বিএনপির মেয়র প্রার্থীরা। গতকাল সকাল ৮টায় এসব পৌরসভায় ভোট গ্রহণ শুরু হয়, চলে টানা বিকাল ৪টা পর্যন্ত। এ ধাপে ২৯ পৌরসভায় ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোট গ্রহণ হয়।

উৎসবমুখর ভোট- ইসি : নির্বাচন কমিশন সচিব হুমায়ুন কবির খোন্দকার বলেছেন, ‘২৯টি পৌরসভায় নির্বাচন এবং উপজেলায় চারটি উপনির্বাচন হয়েছে। রিটার্নিং কর্মকর্তা, মনিটরিং সেল থেকে প্রতি ঘণ্টায় রিপোর্ট পেয়েছি। তাতে বুঝেছি, উৎসবমুখর পরিবেশে নির্বাচন হয়েছে।’ গতকাল ভোট শেষে নির্বাচন ভবনে তিনি সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন। সৈয়দপুরে মৃত্যুর ঘটনায় তিনি বলেন, ‘নিঃসন্দেহে কোনো মৃত্যুই কাক্সিক্ষত নয়। এর জন্য সবাই দুঃখিত। সরকারি মহিলা ডিগ্রি কলেজ কেন্দ্রের পাশে ছোটন নামের একজন ব্যক্তি আহত অবস্থায় ছিলেন। হাসপাতালে নেওয়ার পর মারা যান। তার শরীরে আঘাতের কোনো চিহ্ন ছিল না। সুরতহালে এরকমই পাওয়া গেছে। মৃত্যুটি কোনো পুলিশের গুলিতে হয়নি। এখন এই মৃত্যু কীভাবে হয়েছে রিপোর্ট পেলে বলতে পারব। আমাদের মূল্যায়নে ভোট ভালো হয়েছে। যদি কেউ নির্বাচন প্রত্যাখ্যান করেন, নিতান্তই তার ইচ্ছা। সেটি করতেই পারেন। অভিযোগ করলে তদন্ত করে দেখব। চারঘাটে ককটেল বিস্ফোরণের দুষ্কৃতকারী চারজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। প্রতিটি ক্ষেত্রে মাঠে অ্যাকশন ছিল, যার কারণে নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছে। নির্বাচন কমিশন সবসময় চায় সব দল নির্বাচনে অংশগ্রহণ করুক। আমাদের কাছে যিনিই সহযোগিতা চাইবেন, কমিশন তা প্রদান করবে।’ আমাদের নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর- নীলফামারী : নীলফামারীর সৈয়দপুরে নির্বাচনী সহিংসতায় ছোটন অধিকারী (৪৫) নামের একজন নিহত হয়েছেন। এ ছাড়া আহত হয়েছেন আরও দুজন। গতকাল বেলা সাড়ে ১১টার দিকে পৌরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের সৈয়দপুর মহিলা মহাবিদ্যালয় কেন্দ্রের বাইরে এ ঘটনা ঘটে। নিহত ছোটন মুন্সিপাড়া এলাকার মৃত নিতাই অধিকারীর ছেলে। জানা গেছে, তিনি শহরের ৫ নম্বর ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থী নজরুল ইসলাম রয়েলের (ব্রিজ প্রতীক) কর্মী ছিলেন। স্থানীয়রা জানান, ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বী নজরুল ইসলাম রয়েল ও আকতার হোসেন ফেকুর সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও মারামারির ঘটনা ঘটে। একপর্যায়ে ছোটন গুরুতর আহত হলে তাকে স্থানীয় হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। সৈয়দপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুল হাসনাত খান জানান, কেন্দ্রের বাইরে ওই ঘটনা ঘটেছে। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। এদিকে এজেন্টদের বের করে দেওয়া, ভোট কেন্দ্র দখলসহ নানা অভিযোগ তুলে নির্বাচন বর্জন করেছেন জাতীয় পার্টির প্রার্থী সিদ্দিকুল আলম সিদ্দিক। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীদের পাশাপাশি অনিয়মে সহযোগিতা করেছে পুলিশ প্রশাসন। এ ছাড়া দুপুরে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ান ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী হাফেজ নুরুল হুদা। তিনিও একই অভিযোগ করে ভোট থেকে সরে দাঁড়ান। রাজশাহী : ভোট কেন্দ্রে হাতবোমা বিস্ফোরণের পর রাজশাহীর চারঘাট পৌরসভা নির্বাচনের বিএনপি মনোনীত প্রার্থী জাকিরুল ইসলাম বিকুল ভোট বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন। গতকাল দুপুরে মিয়াপুর এলাকায় নিজের বাড়িতে তিনি গণমাধ্যমকর্মীদের সামনে ভোট বর্জনের ঘোষণা দেন। পৌরসভার বর্তমান মেয়র বিকুল বলেন, ‘ভোট কেন্দ্র দখলে নিতে আমার সামনেই হাতবোমার বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে। কোনো কেন্দ্রে ধানের শীষের এজেন্ট থাকতে দেওয়া হয়নি। প্রশাসন সহযোগিতা না করার কারণে আমি মনে করি, ভোটে আমার থাকা উচিত নয়।’ এর আগে বেলা ১১টার দিকে সারদা থানাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে হাতবোমার বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। এতে হতাহতের কোনো ঘটনা না ঘটলেও ভোটারদের মধ্যে আতঙ্ক দেখা দেয়। জানা গেছে, দুটি হাতবোমার একটি বিস্ফোরিত হয় এবং অন্যটি অবিস্ফোরিত অবস্থায় পড়ে থাকে। পরে পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) সদস্যরা অবিস্ফোরিত হাতবোমাটি উদ্ধারের পরে নিষ্ক্রিয় করেন। লক্ষ্মীপুর : লক্ষ্মীপুরের রায়পুর পৌরসভা নির্বাচনে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। গোপন বুথে একটি বিশেষ দলের পক্ষে ওপেন ভোট প্রদান, বিএনপির এজেন্ট বের করে দেওয়া, অন্যের ভোট দিয়ে দেওয়াসহ নানা অভিযোগ করেছেন বিএনপির মেয়র প্রার্থী। একাধিক ভোট কেন্দ্রে সাধারণ ভোটাররা ভোট দিতে না পারার অভিযোগ এনে গণমাধ্যমকর্মীদের কাছে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। রায়পুর মার্চেন্ট একাডেমি কেন্দ্রে ওপেন ভোট দেওয়াকে কেন্দ্র করে নৌকা ও ধানের শীষ প্রতীকের সমর্থকদের মধ্যে ধস্তাধস্তির ঘটনা ঘটেছে। এ সময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ ভোটারদের বের করে দেয়। মাদারীপুর : মাদারীপুরের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের আল-জাবির হাই স্কুল কেন্দ্রে কাউন্সিলর প্রার্থীর ফলাফল ঘোষণাকে কেন্দ্র করে প্রিসাইডিং অফিসারকে অবরুদ্ধ করে বিক্ষোভ করেন পাঞ্জাবি মার্কার কাউন্সিলর প্রার্থী ইব্রাহিম কালুর সমর্থকরা। এ সময় নির্বাচন-সংশ্লিষ্ট সব সরঞ্জামও আটকা পড়ে। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এতে তিন পুলিশসহ কমপক্ষে ১২ জন আহত হয়েছেন। ৪৫ মিনিট পর বিজিবি, র‌্যাব ও পুলিশের একাধিক দল ঘটনাস্থলে এসে প্রিসাইডিং অফিসার এবং নির্বাচনের সরঞ্জাম উদ্ধার করে। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, এজেন্টের ভুল তথ্যে পাঞ্জাবি মার্কার প্রার্থী ইব্রাহিম কালু বিজয়ী হয়েছেন বলে উল্লাস করতে থাকেন তার সমর্থকরা। পরে এ কেন্দ্রের ফলাফল ঘোষণা করলে দেখা যায়, এই ওয়ার্ডে উটপাখি মার্কার প্রার্থী রেজাউল কমির বিজয়ী হয়েছেন। এতে ইব্রাহিম কালুর সমর্থকরা ফলাফল কারচুপির অভিযোগ এনে নির্বাচনের সরঞ্জামসহ প্রিসাইডিং অফিসারকে অবরুদ্ধ করেন। জামালপুর : সকাল থেকে শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ চললেও জামালপুর পৌরসভার একটি কেন্দ্রে মসজিদের মাইকে ঘোষণা দিয়ে দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও মোটরসাইকেল ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। এদিকে ভোট কারচুপির অভিযোগে নির্বাচন বয়কটের ঘোষণা দিয়েছেন বিএনপি প্রার্থী। দুপুরের দিকে জামালপুর পৌরসভার সিংহজানী বহুমুখী উচ্চবিদ্যালয় কেন্দ্রে দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। পরে বিভিন্ন মসজিদের মাইকে ঘোষণা দিয়ে প্রতিপক্ষের ওপর হামলার আহ্বান জানায় অপর পক্ষ। এ সময় দুই পক্ষের মধ্যে দফায় দফায় ঘণ্টাব্যাপী ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এদিকে জামালপুর পৌর নির্বাচনে বিএনপির মেয়র প্রার্থী অ্যাডভোকেট শাহ্ মো. ওয়ারেছ আলী মামুন ভোট কারচুপির অভিযোগ এনে নির্বাচন বয়কটের ঘোষণা দিয়েছেন। ঝিনাইদহ : ঝিনাইদহের মহেশপুর পৌর নির্বাচনে বিএনপির মেয়র প্রার্থীর অ্যাডভোকেট আমিরুল ইসলাম খান চুন্নু ও শৈলকুপা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে উপনির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী অ্যাডভোকেট হুমায়ুন বাবর ফিরোজ ভোট বর্জন করেছেন। এদিকে কালীগঞ্জ পৌর নির্বাচনে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এ সময় বাড়িঘর ভাঙচুর ও উভয় পক্ষের ৪ জন আহত হয়। সকাল ১০টার দিকে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে কাশীপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়  কেন্দ্রে কাউন্সিলর প্রার্থী আরিফুল ইসলামের এক সমর্থককে অন্য কাউন্সিলর প্রার্থী মেহেদী হাসান সজলের এক সমর্থক দালাল বলেন। এতে তিনি ক্ষিপ্ত হন। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে তাদের হাতাহাতি হয়। পরে তা উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ায় রূপ নেয়। এ সময় বাড়িঘর ভাঙচুরসহ উভয় পক্ষের ৪ জন আহত হওয়ার ঘটনা ঘটে। অন্যদিকে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে অদ্ভুত কান্ড ঘটিয়েছেন এক যুবক। প্রার্থীর সমর্থনে সারা গায়ে বোতল লাগিয়ে কেন্দ্রের বাইরে  ঘোরাঘুরি করছিলেন তিনি। এ সময় তাকে আটক করা হয় এবং ২০০ বোতল দিয়ে বানানো প্রতীক ভাঙতে বলা হয়। এরপর তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়। ময়মনসিংহ : ময়মনসিংহের নান্দাইল পৌরসভা নির্বাচনে ভোট কেন্দ্রে ঢুকে হইচই করার অভিযোগে তিন কাউন্সিলর প্রার্থী ও এক নৌকার সমর্থককে আটক করা হয়েছে। অবশ্য ভোট গ্রহণ শেষে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। বগুড়া : ফেনসিডিলের বোতল রাখার অভিযোগ এনে বগুড়ায় ধানের শীষের এজেন্টসহ দুজনকে আটক করেছে গোয়েন্দা পুলিশ। গতকাল বিকাল ৪টায় বগুড়া সেন্ট্রাল হাইস্কুল ভোট কেন্দ্রে তাদের আটক করা হয়। শরীয়তপুর : শরীয়তপুর জেলার ডামুড্যা পৌরসভা নির্বাচনের স্থগিত দুই কেন্দ্রের ভোট গ্রহণ হয় কাল। তবে এর আগেই নির্বাচন থেকে সরে গেছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা মার্কার মেয়র প্রার্থী মাস্টার কামাল উদ্দিন আহমেদ। জয়পুরহাট : জয়পুরহাট পৌর নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থীর এজেন্টদের বের করে দেওয়া, প্রধান নির্বাচনী এজেন্ট ফজলুর রহমানের গাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগ এনে ভোট প্রত্যাখ্যানের ঘোষণা দিয়েছেন বিএনপির প্রার্থী অধ্যক্ষ শামসুল হক।