শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ৮ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ৭ জুলাই, ২০২১ ২৩:৪৫

জলবায়ু পরিবর্তনের জন্য ধনী দেশগুলোই দায়ী

নিজস্ব প্রতিবেদক

জলবায়ু পরিবর্তনের জন্য ধনী দেশগুলোই দায়ী
Google News

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, জলবায়ু পরিবর্তনের জন্য ধনী দেশগুলোই দায়ী। কিন্তু ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোকে প্রয়োজনীয় ক্ষতিপূরণ দেয় না তারা। জলবায়ু পরিবর্তনের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় ২০১০ সাল থেকে বাংলাদেশকে বছরে ২ বিলিয়ন ডলার খরচ করতে হচ্ছে। গতকাল ভার্চুয়াল মাধ্যমে সংযুক্ত হয়ে ‘ফার্স্ট ক্লাইমেট              ভালনারেবল ফাইন্যান্স সামিট’-এ তিনি এসব কথা বলেন। এতে বক্তব্য দেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি)-বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক মো. আবুল কালাম আজাদ। সামিট পরিচালনা করেন অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের সচিব ফাতিমা ইয়াসমিন। এ সময় অর্থমন্ত্রী বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের জন্য কারা দায়ী তা সবাই জানে। এর জন্য মূলত ধনী দেশগুলোই দায়ী। তাদের জনসংখ্যা মাত্র ৫ শতাংশ। অথচ ৫ শতাংশ জনসংখ্যা নিয়ে এরা ২২ শতাংশ কার্বন ডাইঅক্সাইড নিঃসরণ করছে। অন্যদিকে আমরা জলবায়ু পরিবর্তনের শিকার হচ্ছি। তিনি বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনজনিত দুর্যোগ মানুষের সৃষ্টি। আমরা এর জন্য দায়ী নই। মাতারবাড়ী যে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র তৈরি হবে তা তেমন কার্বন ডাইঅক্সাইড নিঃসরণ করবে না। এ ছাড়া রূপপুরে পারমাণবিক বিদ্যুৎ উৎপাদন করছি, এখানে ফসিল ফুয়েল ব্যবহার করা হবে না। ফলে এতে পরিবেশের ক্ষতির বিষয়টাও থাকবে সহনীয়।

মুস্তফা কামাল বলেন, ফসিল ফুয়েল ব্যবহারের কারণে বিশ্ব উত্তপ্ত হচ্ছে। বিশ্বের উষ্ণতা বাড়ছে। এর জন্য বিমান ভ্রমণেও সমস্যা হচ্ছে। অ্যান্টার্কটিকা মহাদেশের বিশাল বরফখন্ড গলতে শুরু করেছে। এর ফলে আমাদের দেশের নিচু অংশ ডুবে যাবে। উন্নত দেশগুলোর সহায়তা ছাড়া জলবায়ু পরিবর্তনজনিত সমস্যা মোকাবিলা সম্ভব নয়। আমরা সবাই জানি ২০০৩ সালে ইউরোপে ৭০ হাজার মানুষ মারা গেছে শুধু জলবায়ু পরিবর্তন সমস্যার কারণে। অর্থমন্ত্রী আরও বলেন, সোলার এনার্জি উৎপাদন করলে জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলা সম্ভব। কিন্তু আমাদের জমির পরিমাণ কম। সোলার এনার্জি উৎপাদনে বেশি জমির প্রয়োজন হয়। খাদ্য চাহিদা মেটাতে কৃষিজমির সর্বোত্তম ব্যবহার করছি। অনুষ্ঠানে বন ও পরিবেশ মন্ত্রী শাহাব উদ্দিন বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে বাংলাদেশ সবচেয়ে দুর্যোগপ্রবণ দেশ। আমরা এ বিষয়ে একমত যে জলবায়ুগত সমস্যার জন্য দায়ী উন্নত বিশ্ব। সবাই এক হয়ে উন্নত দেশগুলোকে বলব সঠিক পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য।