শিরোনাম
প্রকাশ : ৮ আগস্ট, ২০২১ ০৮:২০
প্রিন্ট করুন printer

আল্লাহর সাহায্য লাভের উপায়

মাইমুনা আক্তার

আল্লাহর সাহায্য লাভের উপায়
Google News

কিছু গুণ আছে, যেগুলো অর্জন করলে মহান আল্লাহর প্রিয় হওয়া যায় এবং সব সময় আল্লাহর বিশেষ সাহায্য পাওয়া যায়। নিম্নে সেই গুণগুলো তুলে ধরা হলো—

প্রকৃত মুমিন হওয়া : মহান আল্লাহর সন্তুষ্টি ও ক্ষমা লাভের প্রথম মাধ্যম হলো ঈমান। যারা প্রকৃত মুমিন, তারা মহান আল্লাহর বিশেষ বান্দা। মহান আল্লাহ সুখে-দুঃখে তাদের সঙ্গে থাকেন। ইরশাদ হয়েছে, ‘নিশ্চয়ই আল্লাহ তাঁর মুমিন বান্দাদের সঙ্গে আছেন।’ (সুরা আনফাল, আয়াত : ১৯)

আল্লাহভীরুতা ও দয়াশীলতা : তাকওয়া অর্জনের মাধ্যমে আল্লাহভীরু হওয়া যায়। আর আল্লাহভীরু মানুষ আল্লাহর সৃষ্টির ওপর দয়া করে। মহান আল্লাহ এমন মানুষের সঙ্গে থাকার ঘোষণা দিয়েছেন। পবিত্র কোরআনে ইরশাদ হয়েছে, ‘নিশ্চয়ই আল্লাহ তাদের সঙ্গে আছেন, যারা আল্লাহভীরু ও অনুগ্রহকারী।’ (সুরা নাহল, আয়াত : ১২৮) অর্থাৎ তারা সব সময় মহান আল্লাহর বিশেষ রহমতের ছায়ায় থাকে।

ধৈর্যশীলতা : যারা বিপদাপদে ধৈর্য ধারণ করে, আল্লাহ তাদের সঙ্গে থাকেন। আল্লাহ বলেন, ‘হে মুমিনরা! তোমরা ধৈর্য ও নামাজের মাধ্যমে সাহায্য চাও। নিশ্চয়ই আল্লাহ ধৈর্যশীলদের সঙ্গে আছেন।’ (সুরা বাকারা, আয়াত : ১৫৩)

আল্লাহর পথে আহ্বানকারী হওয়া : যারা মানুষকে আল্লাহর পথে আহ্বান করে, আল্লাহ তাদের সঙ্গে থাকেন। আল্লাহ মুসা ও হারুন (আ.)-কে ফেরাউনের কাছে দ্বিনি দাওয়াত নিয়ে যাওয়ার নির্দেশ দেন। তাঁদের অভয় দিয়ে মহান আল্লাহ বলেন, ‘তোমরা ভয় পেয়ো না, নিশ্চয়ই আমি (আল্লাহ) তোমাদের সঙ্গে আছি, আমি শুনি ও দেখি।’ (সুরা ত্ব-হা, আয়াত : ৪৬)

বিপদে আল্লাহর সাহায্যপ্রার্থী হওয়া : কেউ যখন বিপদগ্রস্ত হয় এবং আল্লাহর কাছে সাহায্য চায়, মহান আল্লাহ তাকে সাহায্য করেন। ইরশাদ হয়েছে, ‘যখন দুই দল পরস্পরকে দেখল, মুসার অনুসারীরা বলল, নিশ্চয়ই আমরা ধরা পড়ে যাব। মুসা বলল, কখনোই না। নিশ্চয়ই আমার রব আমার সঙ্গে আছেন। তিনি আমাকে পথ দেখাবেন।’ (সুরা শুআরা, আয়াত : ৬২)

মহানবী (সা.) সম্পর্কে পবিত্র কোরআনে এসেছে, ‘যখন তারা [রাসুল (সা.) ও আবু বকর (রা.)] গুহায় ছিল, তখন সে [রাসুল (সা.)] তার সঙ্গীকে বলেছিল, বিষণ্ন হয়ো না। আল্লাহ আমাদের সঙ্গে আছেন।’ (সুরা তাওবা, আয়াত : ৪০)

উল্লিখিত গুণাবলি অর্জন করতে পারলে আল্লাহর বিশেষ সাহায্য লাভ করা যায়। মহান আল্লাহ আমাদের আমল করার তাওফিক দান করুন।

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন