শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৭ মার্চ, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৬ মার্চ, ২০২০ ২২:৪০

সাংবাদিক হয়রানি ও নির্যাতন

কুড়িগ্রাম ডিসিসহ চার কর্মকর্তা প্রত্যাহার

নিজস্ব প্রতিবেদক

স্থানীয় সাংবাদিক আরিফুল ইসলামকে মধ্যরাতে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে অন্যায়ভাবে কারাদন্ড দেওয়ার ঘটনায় কুড়িগ্রামের ডেপুটি কমিশনার (ডিসি) সুলতানা পারভীনকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। একই সঙ্গে ওই ঘটনায় ম্যাজিস্ট্রেটের দায়িত্ব পালনকারী সিনিয়র সহকারী কমিশনার রিন্টু বিকাশ চাকমা, নাজিম উদ্দীন, সহকারী কমিশনার এস এম রাহাতুল ইসলামকে প্রত্যাহার করে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে ন্যস্ত করা হয়েছে।

গতকাল জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের পৃথক পৃথক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে এ আদেশ জারি করা হয়। এই সঙ্গে কুড়িগ্রামের নতুন ডিসি ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে উপসচিব রেজাউল করিমকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। এদিকে সাংবাদিক আরিফুলকে রাতের আঁধারে ঘর তুলে নিয়ে মারধর করা ও ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে এক বছরের কারাদন্ড দেওয়ার ঘটনা তদন্তে গঠিত কমিটি অভিযুক্তদের দোষী সাব্যস্ত করে প্রাথমিক তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিয়েছে।

 এতে উল্লেখ করা হয়েছে, গভীর রাতে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে কুড়িগ্রামের সাংবাদিক আরিফুল ইসলামকে নির্যাতন ও এক বছরের সাজা দেওয়ার কাজগুলো অবৈধভাবে করা হয়েছে। রংপুর বিভাগীয় কমিশনার অফিস সূত্রে জানা গেছে, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে রংপুরের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার আবু তাহের মাসুদ রানাকে ঘটনাটি তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়। তিনি শনিবার কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে যান। তদন্ত কর্মকর্তা কুড়িগ্রামের জেলা প্রশাসক সুলতানা পারভীন, ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকারী নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রিন্টু বিকাশ চাকমা, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নাজিম উদ্দীনসহ সংশ্লিষ্ট কয়েকজনের জবানবন্দি গ্রহণ করেন। এ ছাড়া অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার সাংবাদিক আরিফুল ইসলামের বাসায় যান এবং তার স্ত্রী ও স্বজনদের সাক্ষাৎকার নেন। এ বিষয়ে অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) জাকির হোসেন জানান, তদন্তে উঠে এসেছে গভীর রাতে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা, বাসার গেট ও ঘরের দরজা ভেঙে সাংবাদিক আরিফুল ইসলামকে নির্যাতনসহ যাবতীয় কাজ অবৈধভাবে করা হয়েছে।  আমরা ডিসিসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ করেছি। তাদের এরই মধ্যে প্রত্যাহার করা হয়েছে।  তারা ঢাকায় জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে যোগ দেওয়ার পর পরবর্তী সিদ্ধান্ত জানা যাবে।

সাজার নথিপত্র হাই কোর্টে তলব : কুড়িগ্রামে গভীর রাতে সাংবাদিক আরিফুল ইসলামকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে জেল-জরিমানা দেওয়ার ঘটনায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের সব নথিপত্র তলব করেছে হাই কোর্ট। আগামী ২৩ মার্চের মধ্যে ওইসব নথিপত্র দাখিল করার পাশাপাশি এ ঘটনায় জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের নেওয়া পদক্ষেপ জানাতে রাষ্ট্রপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছে আদালত। এ বিষয়ে ওই দিন আদেশের জন্য ধার্য করেছে আদালত। একটি রিট আবেদনের শুনানি শেষে বিচারপতি মো. আশরাফুল কামাল ও বিচারপতি সরদার মো. রাশেদ জাহাঙ্গীরের হাই কোর্ট বেঞ্চ গতকাল এ আদেশ দেয়। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে আদালতে রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ এম আমিন উদ্দিন ও আইনজীবী ইশরাত হাসান। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল দেবাশিস ভট্টাচার্য।

সাংবাদিক নির্যাতনের প্রতিবাদ : কুড়িগ্রামের সাংবাদিক আরিফুল ইসলামসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে সাংবাদিকদের ওপর হামলা, মামলা ও নির্যাতনের প্রতিবাদে গতকালও ঠাকুরগাঁও, নেত্রকোনা, বাগেরহাট, শেরপুর, নরসিংদী, কিশোরগঞ্জ, ঝালকাঠি, নীলফামারী, হবিগঞ্জ, রংপুর, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, শ্রীমঙ্গলে (মৌলভীবাজার) বিক্ষোভ, সমাবেশ ও মানববন্ধন হয়েছে।


আপনার মন্তব্য