শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ১৯ জুন, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৯ জুন, ২০২১ ০০:১৩

আজ থেকে আবার টিকার প্রথম ডোজ শুরু

একটি বাদে সাত বিভাগেই বাড়ল সংক্রমণ

দুই মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ শনাক্তের হার, ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত ৩৮৮৩, মৃত্যু ৫৪

নিজস্ব প্রতিবেদক

একটি বাদে সাত বিভাগেই বাড়ল সংক্রমণ
Google News

আগের দিনের তুলনায় গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রাম বিভাগে করোনা শনাক্তের হার সামান্য কমেছে। তবে বেড়েছে বাকি সাত বিভাগে। এর মধ্যে শুরু থেকে সংক্রমণ ও মৃত্যুর হারে সবচেয়ে নিরাপদ অবস্থানে থাকা ময়মনসিংহ বিভাগে শনাক্তের হার এক দিনেই বেড়েছে ৫ শতাংশের বেশি। এ ছাড়া সারা দেশের নমুনা পরীক্ষায় গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ছিল ১৮ দশমিক ৫৯ শতাংশ, যা গত ৬১ দিনের মধ্যে সর্বোচ্চ। স্বাস্থ্য অধিদফতরের তথ্যানুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ২০ হাজার ৮৮২ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৩ হাজার ৮৮৩ জনের দেহে সংক্রমণ শনাক্ত হয়। এই সময়ে মারা গেছেন ৫৪ জন। সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৯৫৫ জন। গতকাল পর্যন্ত দেশে মোট করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে ৮ লাখ ৪৪ হাজার ৯৭০ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন ১৩ হাজার ৩৯৯ জন। সুস্থ হয়েছেন ৭ লাখ ৭৮ হাজার ৪২০ জন। এদিকে এক দিনের ব্যবধানে গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার বেড়েছে সাত বিভাগে। এর মধ্যে ঢাকা বিভাগে শূন্য দশমিক ৭৯ শতাংশ, ময়মনসিংহ বিভাগে ৫ দশমিক ২৪ শতাংশ, রাজশাহী বিভাগে ৩ দশমিক ৩৮ শতাংশ, রংপুর বিভাগে ১ দশমিক ৯২ শতাংশ, খুলনা বিভাগে ৪ দশমিক ১০ শতাংশ, বরিশাল বিভাগে শূন্য দশমিক ৮৭ শতাংশ ও সিলেট বিভাগে ২ দমমিক ১২ শতাংশ বেড়েছে। অন্যদিকে চট্টগ্রাম বিভাগে শনাক্ত হার শূন্য দশমিক ৫৯ শতাংশ কমেছে। করোনা সংক্রমণের হটস্পট খুলনা বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ছিল ৪০ দশমিক ৯১ শতাংশ ও রংপুর বিভাগে ছিল ৩৩ দশমিক ৬০ শতাংশ। অন্য বিভাগগুলোয় শনাক্তের হার ছিল ১১ থেকে ১৯ শতাংশের মধ্যে। গত একদিনে যারা মারা গেছেন তাদের মধ্যে ৩৫ জন ছিলেন পুরুষ ও ১৯ জন নারী। হাসপাতালে ৫২ জন ও                 বাড়িতে ২ জন মারা গেছেন। বয়স বিবেচনায় মৃতদের মধ্যে ২৬ জন ছিলেন ষাটোর্ধ্ব, ১৫ জন পঞ্চাশোর্ধ্ব, ৭ জন চল্লিশোর্ধ্ব, ৫ জন  ত্রিশোর্ধ্ব ও ১ জনের বয়স ছিল ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে। এর মধ্যে ১২ জন ঢাকা, ১৫ জন চট্টগ্রাম, ১২ জন রাজশাহী, ৮ জন খুলনা, ৪ জন বরিশাল, ২ জন সিলেট ও ১ জন ময়মনসিংহ বিভাগে মারা গেছেন। করোনা পরিস্থিতি নিয়ে আমাদের নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের পাঠানো আরও তথ্য- রাজশাহী : রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে ৬ জন করোনা পজেটিভ ছিলেন। বাকিরা মারা যান উপসর্গ নিয়ে। এ নিয়ে চলতি মাসের গত ১৮ দিনে এ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে মারা গেছেন ১৮৩ জন। খুলনা : খুলনা বিভাগের ১০ জেলায় করোনা শনাক্তের হার প্রতিদিনই রেকর্ড ছাড়াচ্ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষায় ১ হাজার ৩৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়। মৃত্যু হয়েছে ৮ জনের। এর আগে ১৭ জুন (বৃহস্পতিবার) করোনা শনাক্ত হয় ৭৬৫ জনের, মৃত্যু হয় ১৮ জনের। নওগাঁ : গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আরও ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এই সময়ে ৫৮ জনের দেহে সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার প্রায় ২৩ শতাংশ। নেত্রকোনা : গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৭টি নমুনা পরীক্ষায় শনাক্ত হয়েছে ১৪ জন। শনাক্তের হার প্রায় ২১ শতাংশ। গত এক সপ্তাহে ৩ জনসহ মোট মারা গেছেন ২৫ জন। নাটোর : নাটোর সদর হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে দুজন মারা গেছেন। এ ছাড়া জেলায় নতুন করে ৬৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

 

রাজবাড়ী : রাজবাড়ী পৌরসভা ও বিভিন্ন উপজেলায় এখন ঘরে ঘরে জ্বর। তবে অধিকাংশই মৌসুমি জ্বর ভেবে পরীক্ষা না করিয়ে স্থানীয় চিকিৎসকদের পরামর্শে ওষুধ খাচ্ছেন। এতে কারও করোনা হলেও ধরা পড়ছে না। রাজবাড়ী পৌরসভা এলাকার বাসিন্দা আবদুল সালাম কয়েক দিন পূর্বে জ্বরে আক্রান্ত হলেও সম্প্রতি এক বন্ধুর পরামর্শে র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন পরীক্ষা করালে তার দেহে করোনা শনাক্ত হয়।

সাতক্ষীরা : গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার উপসর্গ নিয়ে সাতক্ষীরায় ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ ছাড়া ১৮৮ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৮৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৪৫ দশমিক ২১ শতাংশ। জেলায় এ পর্যন্ত করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৫৫ জনের, উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন আরও ২৫৯ জন। বাগেরহাট : এই জেলার মোংলা উপজেলার পর করোনার নতুন হটস্পটে পরিণত হয়েছে ফকিরহাট, রামপাল, বাগেরহাট সদর, শরণখোলা ও মোরেলগঞ্জ উপজেলা।  গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় আরও ৮৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৫০ শতাংশ। অন্যদিকে ফকিরহাটে শনাক্তের হার ছিল ৬৫ দশমিক ২১ শতাংশ ও রামপালে ৬২ দশমিক ৫০ শতাংশ। কুষ্টিয়া : কঠোর বিধি-নিষেধের পর এবার কুষ্টিয়া পৌর এলাকায় ৭ দিনের লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। গত ১৭ জুন কুষ্টিয়া জেলায় এ যাবৎকালের রেকর্ড করোনা শনাক্ত ও মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। ২৪ ঘণ্টায় ৩৯৯টি নমুনা পরীক্ষায় ১৫৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ৪ জনের মৃত্যু হয়। গত দুই দিনে তিনজন চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। শেরপুর : সীমান্ত জেলা শেরপুরে করোনা পরিস্থিতি ক্রমেই খারাপ হচ্ছে। মহামারীর শুরু থেকে এ বছরের মে মাস পর্যন্ত শেরপুরের করোনা পরিস্থিতি অনেকটা নিয়ন্ত্রণে থাকলেও চলতি জুন মাস থেকে প্রতিদিনই ভাঙছে করোনা আক্রান্তের রেকর্ড। গত ১৭ জুন শেরপুরে রেকর্ড ৪৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়, যার মধ্যে ৪৮ জনই সদর উপজেলার বাসিন্দা। টাঙ্গাইল : করোনা আক্রান্ত হয়ে টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলার দিঘলকান্দি ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম মারা গেছেন। গতকাল সকালে হাসপাতালে নেওয়ার পথে তিনি মারা যান। জেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৩৫টি নমুনা পরীক্ষায় ১৪৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৪৩ দশমিক ২৮ শতাংশ।

বগুড়া : বগুড়ায় করোনা সংক্রমণে গত ২৪ ঘণ্টায় ৪ জন মারা গেছেন। এই নিয়ে গত তিন দিনে মারা গেলেন ১১ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ২৭৪টি নমুনার ফলাফলে ৫২ জনের পজেটিভ এসেছে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ : গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জের ৪ জন মারা গেছেন। এ ছাড়া ৩৯৫ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৭৫ জনের শরীরে সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। এদিকে সচেতনতার অভাবে শহর ছাড়িয়ে গ্রামাঞ্চলে ছড়িয়ে পড়ছে করোনা।

চুয়াডাঙ্গা : এ জেলায় বেড়েই চলেছে করোনার প্রকোপ। সীমান্তবর্তী এলাকাগুলোতে দ্রুত বাড়ছে সংক্রমণ হার। গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় নতুন করে আরও ৪৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ছিল ৬৭ দশমিক ১৯ শতাংশ। দিনাজপুর : গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় ১৯৬টি নমুনা পরীক্ষায় ৯৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৪৭ দশমিক ৪৪ শতাংশ। এর মধ্যে দিনাজপুর সদরেই ৬৮ জন করোনায় আক্রান্ত।

গোপালগঞ্জ : সংক্রমণ ঠেকাতে রেড জোনের আওতায় এনে গতকাল শুক্রবার সকাল থেকে গোপালগঞ্জ পৌর এলাকা, গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার লতিফপুর ইউনিয়ন, মুকসুদপুর উপজেলা সদর এবং কাশিয়ানী উপজেলা সদরে ৭ দিনের বিশেষ লকডাউন শুরু হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় গোপালগঞ্জে ১৪৮টি নমুনা পরীক্ষায় ৩৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

ঝিনাইদহ : সংক্রমণ বাড়ায় ঝিনাইদহের ৬টি পৌরসভা এলাকায় বিশেষ লকডাউন ও মহেশপুর উপজেলার সীমান্ত-সংলগ্ন ৬টি ইউনিয়নে পূর্বে জারি করা নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ আরো ৭ দিন বাড়ানো হয়েছে। গেল ২৪ ঘণ্টায় ঝিনাইদহ জেলায় ১৫২টি নমুনা পরীক্ষায় ৫৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর