শিরোনাম
প্রকাশ : ২৩ মার্চ, ২০২০ ১৯:৪৩
আপডেট : ২৩ মার্চ, ২০২০ ১৯:৪৫

উদ্বোধনের পরেই করোনা সচেতনতায় স্থগিত চট্টগ্রামে ই-পাসপোর্টের কার্যক্রম

সাইদুল ইসলাম, চট্টগ্রাম

উদ্বোধনের পরেই করোনা সচেতনতায় স্থগিত চট্টগ্রামে ই-পাসপোর্টের কার্যক্রম

মুক্তিযোদ্ধা জাহেদ আহমেদ। পাঠালটুলি এলাকার ডবলমুরিং থানার বাসিন্দা। চট্টগ্রামে এই মুক্তিযোদ্ধার মাধ্যমে প্রথম ই-পাসপোর্টের আনুষ্ঠানিক কার্যক্রমের উদ্বোধন হয়েছে সোমবার। ই-পাসপোর্টের প্রথম সিরিয়াল নাম্বার ০০০০০১। চট্টগ্রামের দায়িত্বশীল কর্মকর্তাদের মাধ্যমে ঘরোয়া পরিসরে যাত্রা শুরু করলেও দেশের করোনা ভাইরাসের কারণে ই-পাসপোর্টসহ এমআরপির নানাবিধ কার্যক্রম স্থগিত করেছে কর্তৃপক্ষ।

অন্যদিকে করোনা ভাইরাসের কারণে সেবাপ্রত্যাশীদের দৃষ্টি আকর্ষণে একটি অফিস আদেশ জারি করা হয়েছে। এতে করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধের জন্য নতুন এমআরপি ও ই-পাসপোর্টের আবেদনের (বায়োমেট্টিক সংশ্লিষ্ট) সকল কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। এতে এমআরপি ডেলিভারি ও এমআরপির রি-ইস্যু কার্যক্রম (ছবি পরির্বতন ব্যতীত) চলমান থাকবে।

সোমবার দুপুরে চট্টগ্রামে আনুষ্ঠানিকভাবে ই-পাসপোর্টের যাত্রা শুরু করেছে। করোনায় ঘরোয়া পরিবেশে চট্টগ্রামবাসীর জন্য ই-পাসপোর্টের উদ্বোধন হয়েছে। উদ্বোধন করেন ই-পাসপোর্টের চট্টগ্রাম বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত অন্যতম কর্মকর্তা লেঃ কর্নেল মোহাম্মদ নুরুল আলম ও বিভাগীয় পাসপোর্ট ও ভিসা অফিস, মুনছুরাবাদ চট্টগ্রামের চট্টগ্রাম পরিচালক মো. আবু সাঈদ। এসময় আরো দায়িত্বশীল কর্মকতা-কর্মচারিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র সহকারি পরিচালক মো. খোরশেদ আলম, উপ-সহকারি পরিচালক মো. এনায়েত উল্লাহ, মো. ইয়াহিয়া, ওমর ফারুক, জান্নাতুল মাওয়া, রুনু শ্রী দাশ গুপ্তা, ওবায়দুর রহমান, আবদুল হামিদ, মারুফ হোসেন ও সাধন প্রমুখ।

বিভাগীয় পাসপোর্ট ও ভিসা অফিস, মুনছুরাবাদ চট্টগ্রামের চট্টগ্রাম পরিচালক মো. আবু সাঈদ বলেন, ই-পাসপোর্টের কার্যক্রম শুরু করেছি। দেশের করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধের জন্য নতুন এমআরপি ও ই-পাসপোর্টের আবেদনের (বায়োমেট্টিক সংশ্লিষ্ট) সকল কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। এতে এমআরপি ডেলিভারি ও এমআরপির রি-ইস্যু কার্যক্রম (ছবি পরির্বতন ব্যতীত) চলমান থাকবে। তাছাড়া করোনা ভাইরাসের কারণ সেবাপ্রত্যাশীদের মুখে মাস্ক ও হাত ধৌত করে অফিসে বা ভিতরে প্রবেশ করতেও অুনরোধ করা হয়েছে।

চট্টগ্রামে ই-পাসপোর্টের প্রথম আবেদনকারী মুক্তিযোদ্ধা জাহেদ আহমেদ বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশে ঢাকার পর চট্টগ্রামে প্রথম ই-পাসপোর্ট চালু হয়েছে। এতে আমি একজন মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে চট্টগ্রামের প্রথম আবেদনকারী হিসেবে গর্বিত। বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অনেক এগিয়ে গেছে। ডিজিটাল বাংলাদেশ নির্মাণে সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে বলেও জানান তিনি।

পাসপোর্ট অফিস ও সংশ্লিষ্ঠ সূত্রে জানা গেছে, সোমবার আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস, চান্দঁগাও উদ্বোধন হওয়ার কথা থাকলেও এটি পরিবর্তন করে ৩০ মার্চ সময় নির্ধারণ করা হয়েছে। এই কার্যক্রম নিয়মিত হলে দ্রুত পাসপোর্ট পেতেও ভোগান্তি পোহাতে হবে না বলে জানালেন তিনি। গত ২২ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ই-পাসপোর্টের কার্যক্রম আনুষ্ঠানিকভাবে প্রাথমিকভাবে প্রথম পর্যায়ে ঢাকায় উদ্বোধন করেছিলেন।

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর