Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ১ জুন, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১ জুন, ২০১৯ ০০:০৩

বুথে টাকা নেই ভোগান্তিতে সেই পাটকল শ্রমিকরা

নিজস্ব প্রতিবেদক, খুলনা

বুথে টাকা নেই ভোগান্তিতে সেই পাটকল শ্রমিকরা

খুলনায় রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল শ্রমিকরা নতুন করে বিপাকে পড়েছেন। শ্রমিকদের বকেয়া মজুরি-বোনাসের টাকা ব্যাংক অ্যাকাউন্টে জমা হলেও অনেকে তা তুলতে পারছেন না। নির্দিষ্ট ব্যাংকের এটিএম বুথে টাকা শেষ হয়ে যাওয়ায় ৩০ ভাগ শ্রমিক টাকা তুলতে পারেননি। এছাড়া ব্যাংকে নিজ নামে অ্যাকাউন্ট না থাকায় ক্রিসেন্ট জুটমিলের শতাধিক শ্রমিক বকেয়া মজুরির টাকা তুলতে পারছেন না। পাটকল শ্রমিক লীগ খুলনা-যশোর অঞ্চলের আহ্বায়ক মো. মুরাদ হোসেন বলেন, সকালেই মিল এলাকার এসআইবিএল ও ইস্টার্ন ব্যাংকের এটিএম বুথের টাকা শেষ হয়ে যায়। ফলে শ্রমিকরা টাকা তুলতে পারছেন না। বন্ধের দিন হওয়ায় ব্যাংক কর্তৃপক্ষও বুথে টাকা সরবরাহ করতে পারছে না। তিনি বলেন, যে শ্রমিকদের নিজ নামে কোনো ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নেই, তাদের পে-স্লিপ দেওয়া হলেও তারা মজুরির টাকা পাচ্ছেন না। ব্যাংকে অ্যাকাউন্ট খোলার পরই তারা টাকা উত্তোলন করতে পারবেন।

এদিকে গতকাল সকালে খালিশপুর মিল এলাকার ব্যাংকে টাকা না পেয়ে শ্রমিকরা খুলনা সদরের এসআইবিএলের শাখায় ভিড়ু জমান। এ সময় তারা এটিএম বুথে কার্ড দিয়ে টাকা তুলতে পারেননি। ফলে বুথের সামনে দাঁড়িয়ে অনেকে প্রতিবাদ করতে থাকেন। শ্রমিকরা জানান, মিলের বুথে সকালে টাকা না পেয়ে অনেকে শহরে ব্যাংকের বুথগুলোতে যান। কিন্তু সেখানেও তারা টাকা পাননি। শনিবারের আগে টাকা তোলা যাবে না বলে ব্যাংক থেকে জানানো হয়েছে।

এসআইবিএল খুলনার অপারেশন্স অফিসার নুরুল ইমাম খান মিঠু বলেন, প্রতিটি বুথের লোড ক্যাপাসিটি ২৫ লাখ টাকা। আর শ্রমিকদের দেওয়া হচ্ছে প্রায় ৫০ কোটি টাকা। এ কারণে বুথে চাপ পড়েছে। শুক্রবার বন্ধের দিনে বুথে টাকা লোড দেওয়ার নিয়ম নেই। শনিবার ১৩টি বুথে টাকা লোড দেওয়ার পর শ্রমিকরা টাকা তুলতে পারবেন।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর