শনিবার, ২৪ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ টা

ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগ ৭০ হাজারে দফারফা

মাতব্বরদের পকেটে ৪০ হাজার টাকা

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল

বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জে তরুণীকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে অভিযুক্তকে  মাতব্বররা সালিশের নামে ছেড়ে দিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এদিকে সালিশে ধার্য জরিমানার ৭০ হাজার টাকার মধ্যে ৪০ হাজার দিয়ে সটকে পড়েন অভিযুক্ত। বর্তমানে ওই টাকা সালিশদারদের কাছে রয়েছে। এ বিষয়ে খোঁজখবর নিয়ে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছেন মেহেন্দিগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল কালাম।  স্থানীয়রা জানান, বৃহস্পতিবার রাত ১০টায় জেলের ঘরে ঢুকে তার মেয়েকে ধর্ষণের চেষ্টা করে যুবক বেল্লাল রাড়ি। এ সময় তরুণীর পরিবারের লোকজন বেল্লালকে ধরে বেঁধে রেখে তাকে মারধর করে। বিষয়টি জানাজানি হলে গতকাল সকালে স্থানীয় মামুন চৌকিদার, জসিম খান, কবির খাঁ, আনোয়ার চৌকিদার ও মো. জহিরের উপস্থিতিতে তরুণীর বাড়িতে সালিশ বসে। সালিশে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে বেল্লালকে ৭০ হাজার টাকা জরিমানা এবং জুতার মালা পরানো হয়। বেল্লালের পরিবার তাৎক্ষণিক ৪০ হাজার টাকা সালিশদারদের কাছে দিয়ে আটকাবস্থা থেকে তাকে ছাড়িয়ে নেয়। তবে ওই অর্থ তরুণীর পরিবার পায়নি।

সালিশের কথা স্বীকার করলেও কোনো জরিমানা করা হয়নি বলে জানিয়েছেন মামুন চৌকিদার। তিনি বলেন, ওই ছেলে এবং মেয়ে পরস্পরকে ভালোবাসে। রাতে বেল্লাল তার প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন। এ সময় প্রেমিকার পরিবারের লোকজন তাকে মারধর করেন। খবর পেয়ে সালিশের মাধ্যমে বেল্লালকে মুক্তির ব্যবস্থা করেন তারা। এ সময় শর্ত দেওয়া হয়, ওই ছেলে বা মেয়ে ভবিষ্যতে যে আগে একে-অন্যকে ফোন দেবেন তাকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা গুনতে হবে।