শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৭ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০৩

কাঁচা বাজারোত আগুন নাগছে বাহে

‘পিয়াজের গায়োত হাত দেওয়া যাওচে না’

বদরগঞ্জ (রংপুর) প্রতিনিধি

কাঁচা বাজারোত আগুন নাগছে বাহে

এমারুল হক (৬০)। বাড়ি রংপুর জেলার বদরগঞ্জ উপজেলার রামনাথপুর ইউপির ঝাকুয়াপাড়া গ্রামে। তিনি এসেছেন সবজি বাজারে। বাড়ি ফেরার পথে কথা হয় তার সঙ্গে। তিনি জানান, কাঁচাবাজার আসি বাবা মোর মাথা খারাপ হয়্যা গেইছে। কি খাইবেন, কাঁচা বাজারোত আগুন নাগছে বাহে, সউক জিনিসের দাম বেশি। পিয়াজের গায়োত তো এলাও হাত দেওয়া যাওচে না। কথা হয় সবজি বাজারে আসা পৌরশহরের বালুয়াভাটা মহল্লার বাসিন্দা রেজাউল ইসলামের সঙ্গে। তিনি জানান, সব ধরনের সবজির দাম অনেক বেশি। তিনি আরও জানান, অনতিবিলম্বে সংশ্লিষ্টদের বাজার মনিটরিং করা উচিত ।  কথা হয় সবজি বাজারে আসা অপর ক্রেতা মাহাফুজ ওয়াহিদ চয়নের সঙ্গে। তিনি জানান, কাঁচাবাজারে ৫০০ টাকা নিয়ে যাওয়া এখন বোকামি ছাড়া কিছুই নয়। তিনি আরও জানান; মধ্যস্বত্বভোগিরাই ফায়দা লুটে নিচ্ছে। বঞ্চিত হচ্ছে কৃষক আর ভোক্তারা। কাঁচামাল ব্যবসায়ী মাহাবুল মিয়া জানান, বেশি দাম দিয়ে কিনতে হয় বিধায় সব রকমের সবজির বাজার এখনও বেশ চড়া। তবে তিনি আশা প্রকাশ করেন অচিরেই দাম নাগালের মধ্যে আসবে। বদরগঞ্জ উপজেলা উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা কনক চন্দ্র রায় জানান, অল্প কয়েকদিন পর সব ধরনের শীতকালীন সবজি বেশি বেশি করে বাজারে আসতে শুরু করবে। আশা করছি ওই সব সবজি বাজারে আসা মাত্র দাম নাগালের মধ্যে এসে যাবে। বদরগঞ্জ উপজেলা কৃষি অফিসার গোলাম মোস্তফা মো. জোবাইদুর রহমান জানান, নতুন উঠেছে শীতের সবজি। এ কারণে দাম বেশি। আশা করছি অল্প কয়েকদিনের মধ্যে সবজির দাম কমে যাবে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর