Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৮ এপ্রিল, ২০১৯ ২১:৩৬

গরমে হালকা সাজ

গরমে হালকা সাজ
♦ মডেল : সেমন্তী সৌমী ♦ পোশাক : ইয়াংকে ♦ ছবি : রাফিয়া আহমেদ

গ্রীষ্ম মানে নববর্ষ। বৈশাখ আর আম। আকাশে হঠাৎ মেঘ আর ঝড়ো হাওয়ার সময়টাই এখন। এ সময় প্রকৃতিতে ভর করে আছে বৈশাখের ঝড়ো হাওয়া। বাতাসের আর্দ্রতা থাকলেও বছরের অন্যান্য সময়ের তুলনায় গরম চরমে ওঠে ঠিক এই সময়। তাই বলে তো ঘরে বসে থাকা চলে না। নিত্যদিনের কাজকর্ম, অফিস সব সামাল দিয়ে বিয়েবাড়ি, টুগেদার পার্টি আরও কত আয়োজন! তাই রোজকার সাজসজ্জায়ও রমণীদের পছন্দ সেই আবেশটিই ফুটিয়ে তোলা।

গরমের সময় ভারি সাজ মোটেও মানানসই নয়। হালকা সাজে পরিপাটি থাকার মতো শান্তি আরেকটিও নেই। এতে ফুটে উঠবে আপনার রূপ আভিজাত্য। এ বিষয়ে ওমেন্স ওয়ার্ল্ডের পরিচালক ও বিশিষ্ট রূপবিশেষজ্ঞ ফারনাজ আলম বলেন, ‘গরমে মেয়েদের সাজ-মেকআপে থাকে দারুণ উদাসীনতা। রোদ আর গরমের প্যাঁচপ্যাঁচে ঘামে সাজ নষ্ট হয়ে যাওয়ার ভয় থাকে। তাই এই গরমের স্মার্ট সলিউশন রপ্ত করা উচিত। অফিস বা পার্টি; যাই হোক আপনি থাকবেন সাজে অনন্য। আর তা দিন বা রাত; গরমের সলিউশন একটাই, হালকা সাজ।’

এ সময় হালকা সাজ-পোশাকের উদ্দেশ্য স্নিগ্ধ থাকা। নিজেকেও প্রকৃতির মতো সাবলীল করে তোলা। তবে হ্যাঁ, গ্রীষ্ম মানেই প্রতিদিন বৈশাখী ঝড়, মেঘ-বায়ুর উগ্র মেজাজ এমনকি মাঝে মাঝে তর্জন-গর্জন আর রোদের দাপট  থাকবেই। তাই যে কোনো অবস্থায় নিজেকে মানিয়ে নিতে হালকা সাজের বিকল্প নেই। এ সময়ে ত্বকের ট্যান অনুযায়ী প্রসাধন ব্যবহার জরুরি। পাশাপাশি সচেতন হতে হবে সানস্ক্রিন ব্যবহারের প্রতিও। যাদের ত্বক তৈলাক্ত তাদের জন্য ওয়াটারবেইজ সানস্ক্রিন ভালো হবে। সেই সঙ্গে বাইরের ধুলাবালি থেকে ঘরে ফিরে ভালো স্ক্রাবার দিয়ে ত্বক পরিষ্কার করাও জরুরি। এজন্য সঙ্গে রাখুন ফেসওয়াশ। গরমে সবচেয়ে ভালো হবে ময়েশ্চারাইজিং ক্লিনজার। তৈলাক্ত ত্বকে লেবু বা কমলার ফেসওয়াশ ভালো। স্বাভাবিক ত্বকে নিন ফ্রুটস ফেসওয়াশ এবং শুষ্ক ত্বকে আমন্ড তেলসমৃদ্ধ ফেসওয়াশ।

প্রথমে মাইল্ড ক্লিনজার দিয়ে মুখ আর গলা পরিষ্কার করে নিন। এবার এক টুকরো বরফ ঘষে নিন। এবার সানস্ক্রিন নিন। গরমে খুবই প্রয়োজনীয় সানস্ক্রিন। সানস্ক্রিন বাইরে যাওয়ার ১৫-২০ মিনিট আগেই লাগাতে হয়। এরপর বেইজ মেকআপ করুন। বেইজ মেকআপ করার জন্য টিন্টেড ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে পারেন। এর সান প্রটেকশন ফ্যাক্টর রোদ থেকে ত্বককে রক্ষা করে এবং ত্বকের জৌলুসতা বাড়ায়। মুখে দাগ থাকলে কনসিলার ব্যবহার করুন। এমনকি চোখের নিচের কালি ঢাকার জন্যও কনসিলারের চেয়ে ভালো অপশন আর  নেই। এরপর ফাউন্ডেশন লাগাতে হবে। বেইজের ক্ষেত্রে ভারি ফাউন্ডেশন এড়িয়ে চলুন। তবে রাতে লিকুইড ফাউন্ডেশন লাগাতে পারেন। এবার প্যানকেক। পার্টিসাজ না হলে এটা লাগাবেন না। রাতে শিমার লাগাতে পারেন। মেকআপ হয়ে গেলে একটু ফেস পাউডার পাফ করে নিন। তবে যাই করুন না, মেকআপ যেন ন্যাচারাল হয়।

গরমে সারা মুখে মেকআপ না করেও নজর কাড়তে পারেন একটা দারুণ শেডের লিপস্টিক দিয়ে। গরমে ঠোঁটে হালকা রঙের লিপস্টিকই ভালো। লিপস্টিক ম্যাট হলে  বেশিক্ষণ থাকে। চোখের সাজে আমরা সাধারণত কাজল, আইলাইনার ও মাশকারা ব্যবহার করি। গরমে সবগুলো না লাগিয়ে যে কোনো একটি বা দুটি লাগাতে পারেন। আবার শুধু মাশকারাতেও  চোখ আকর্ষণীয় করে তোলা যায়। সঙ্গে হালকা আইশ্যাডো লাগাতে পারেন। চোখ বা ঠোঁটের মধ্যে  যে কোনো একটি হাইলাইট করুন। একসঙ্গে দুটো অংশ হাইলাইট করবেন না। গরমে নিউট্রাল শেডের আইশ্যাডো লাগাতে পারেন। সঙ্গে মাশকারা মাস্ট!

একটা দারুণ হেয়ার স্টাইল সবার মধ্যেও আপনাকে করে তুলবে এক্কেবারে আলাদা। তবে একটু বুদ্ধি খাটালে কিন্তু তাড়াহুড়োর মধ্যেও বেশি সময় না দিয়ে সুন্দর  হেয়ার স্টাইল করে ফেলা যায়। হালকা সাজে ঝলক দেখাতে জুতা, এক্সেসরিজ, স্কার্ফ, ব্রাইট কালারের ব্যাগ ক্যারি করতে পারেন। গরমে খুব ভারী জুয়েলারি পরতে যাবেন না। হালকা-পাতলা গয়নাই  বেছে নিন। তবে  পোশাকের সঙ্গে মানানসই। হালকা সাজে ভারী গয়না পরলে  সেটা মানানসই হবে না। সুতি পোশাকের সঙ্গে পুঁতি,  মেটাল, মাটি কিংবা বিডসের জুয়েলারি যায় ভালো।


আপনার মন্তব্য